চট্টগ্রাম শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০

৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে হজের প্রাক নিবন্ধন

৩০ জুন, ২০২০ | ১২:১১ অপরাহ্ণ

সৌদি আরব সংবাদদাতা

মক্কায় ওমরাহ ও তাওয়াফের পরিকল্পনা চলছে

সৌদি আরবের দুই পবিত্র মসজিদ মক্কা মসজিদুল হারামে ওমরাহ ও তাওয়াফের পরিকল্পনা করছে সৌদি কতৃপক্ষ। বিশেষ করে ধর্মপ্রাণ মুসল্লীদের ভিড় এড়াতে কিছু পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে এই দুই মসজিদের রক্ষণাবেক্ষণ। আপাতত কিভাবে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে মুসল্লীদের ভীড় সামলানো হবে সে ব্যাপারে ব্যাপক গবেষণা চলছে। এ থেকে ধারণা করা হচ্ছে যে খুব শিগগিরই মক্কার মসজিদুল হারামে উমরাহ এবং তাওয়াফের জন্য আংশিক ভাবে খুলে দেওয়া হবে।

সৌদি গেজেটের একটি প্রতিবেদনে নির্ভরযোগ্য সূত্র সাপেক্ষে জানিয়েছে, সর্বোচ্চ মসজিদুল হারামের ধারণ ক্ষমতার ৪০% জনসংখ্যার মুসুল্লিদের প্রবেশ করতে দেওয়া হবে।

ভয়ংকর মহামারী কোভিড-১৯ হতে প্রতিরক্ষামূলক পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য দুই পবিত্র মসজিদের কর্তৃপক্ষ এইসমস্ত পদক্ষেপ নিচ্ছে।

তাদের পরিকল্পনায় আরো থাকছে যে মসজিদুল হারামে যে সকল মুসুল্লি আসবেন তাদের সকলের সমস্ত তথ্যাদি ও ফোন নাম্বার সংরক্ষণ করা হবে।

পরিকল্পনার আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ অংশজুড়ে আছে থার্মাল ক্যামেরা। যথারীতি থার্মাল ক্যামেরায় উপস্থিত সকলের শরীরের তাপমাত্রা পর্যবেক্ষণ করা হবে। যাদের উচ্চতাপমাত্রা পাওয়া যাবে তাদের ভিতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।

এছাড়া সকল মুসুল্লীদের কোভিড-১৯ সংক্রমণ, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার তরিকা ইত্যাদি সম্পর্কিত শিক্ষা উপকরন দিতে হবে।

শিক্ষা উপকরণে হাত ধোয়া, স্যানিটাইজার ব্যাবহার করা, হ্যান্ডশেক পরিহার করা এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসারে হাঁচি কাশির ব্যাপারে শিক্ষা দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই বসানো হয়েছে থার্মাল ক্যামেরা।

সেই সাথে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ব্যাপারে অত্যন্ত কঠোর অবস্থান নেওয়া হবে।

বিগত ১৪ দিনের মাঝে কেউ কোন উপসর্গ আছে এমন কারো নিকটে ছিলেন এমন কাউকে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।

উমরাহ পালন করতে আসা উমরাহ কারীদের কিং ফাহাদ গেটের মাধ্যমে মাতাফে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে।

এবং তাদের বের হতে হবে আলসাফা দরজা এবং আল নবী ব্রিজের দ্বারা।

দরজা নাম্বার ৮৯ ও ৯৪ দিয়ে বাকিরা মাতাফে প্রবেশ করতে পারবেন এবং তাদের বের হয়ে যেতে হবে আজইয়াদ দরজা দিয়ে।

আর দক্ষিণ ও পশ্চিম থেকে আগত মুসুল্লিগণ যারা ওমরাহ করছেন না তাদের মাতাফের দ্বিতীয় তলায় প্রবেশ করতে হবে আজইয়াদ ফ্লাইওভার এবং শুবাইকা ফ্লাইওভার দিয়ে।

এবং তাদের বের হতে হবে চলন্ত সিঁড়ি (এস্কেলেটর) এবং আল সাফা ব্রিজের মাধ্যমে।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 326 People

সম্পর্কিত পোস্ট