চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০

করোনায় বৈশ্বিক পরিস্থিতি আরও খারাপ হচ্ছে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা
করোনায় বৈশ্বিক পরিস্থিতি আরও খারাপ হচ্ছে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

৯ জুন, ২০২০ | ১:১৯ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

করোনায় বৈশ্বিক পরিস্থিতি আরও খারাপ হচ্ছে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

মহামারি করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশ্বব্যাপী নেয়া হয়েছিল লকডাউনের মতো কার্যক্রম। কিন্তু প্রতিটা দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক দিক বিবেচনা করে অনেক দেশেই শিথিল করা হয়েছে লকডাউন। এদিকে বিশ্বজুড়ে করোনা পরিস্থিতি দিন দিন খারাপ হওয়ায় এখনই লকডাউন শিথিল করার সময় আসে নি বলে সতর্ক করেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক টেড্রোস আধানম গ্যাব্রিয়েসাস।

এএফপি ও এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, টেড্রোস আধানম গ্যাব্রিয়েসাস সতর্ক করে বলেন, বিশ্বজুড়ে করোনার সংক্রমণ পরিস্থিতি দিন দিন আরও খারাপ হচ্ছে। যদিও এই মুহূর্তে ইউরোপের পরিস্থিতি কিছুটা ভালোর দিকে। তবে মহামারির ছয় মাস পার হলেও এখনই লকডাউনসহ বিধিনিষেধ শিথিলের সময় আসেনি বলেও সতর্ক করেন তিনি।

গতকাল সোমবার (৮ জুন) এমন পরিস্থিতিতে জেনেভায় এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে হুঁশিয়ারি দিয়ে ডব্লিউএইচও প্রধান গ্যাব্রিয়েসাস বলেন, ‘যদিও ইউরোপের অবস্থার উন্নতি হচ্ছে, তবে বিশ্বের পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে।’

আক্রান্তের পরিসংখ্যান তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘গত ১০ দিনের নয়দিনই প্রতিদিন এক লাখের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে। রবিবার (৭ জুন) শনাক্ত হয়েছে ১ লাখ ৩৬ হাজারেরও বেশি, যা এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ। রোববার শনাক্ত রোগীদের ৭৫ শতাংশই পাওয়া গেছে মাত্র ১০টি দেশে। এর মধ্যে আবার বেশিরভাগই ল্যাটিন আমেরিকা ও দক্ষিণ এশিয়ার দেশ।’

উল্লেখ্য, চীনের উহানে গত ডিসেম্বরের শেষদিকে প্রথম শনাক্ত হয় করোনাভাইরাস। ইতিমধ্যেই সেটি ১৮৮ টিরও বেশি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। এতে আক্রান্ত হয়েছেন ৭২ লাখ মানুষ, প্রাণ হারিয়েছেন চার লাখের বেশি। শুরুতে করোনা মহামারির কেন্দ্রস্থল ছিল পূর্ব এশিয়া, পরে ইউরোপ। এখন ছড়িয়েছে আমেরিকায়। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতেও দ্রুত বাড়ছে সংক্রমণ।

এদিকে, বিশ্বের বেশিরভাগ মানুষ এখনও করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে উল্লেখ করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বলেন, ‘মহামারির ছয় মাসেরও বেশি সময় গেছে। তবে কোনো দেশের জন্য এখনও প্যাডেল থেকে পা তুলে নেওয়ার সময় আসেনি।’

এ সময় যুক্তরাষ্ট্রে জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ডের জেরে চলা বিক্ষোভ থেকে সংক্রমণের ঝুঁকি প্রসঙ্গে জানতে চাইলে গ্যাব্রিয়েসাস বিক্ষোভকারীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নীতি মেনে আন্দোলনে যাওয়ার আহ্বান জানান।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 158 People

সম্পর্কিত পোস্ট