চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

এবার হজের সুযোগ পাচ্ছে ২০ শতাংশ হজযাত্রী
৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে হজের প্রাক নিবন্ধন

৯ জুন, ২০২০ | ১২:০৮ অপরাহ্ণ

সৌদি আরব সংবাদদাতা

এবার হজের সুযোগ পাচ্ছে ২০ শতাংশ হজযাত্রী

বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস মহামারীতে চলতি বছর বিশ্বের মুসলিম দেশ থেকে মাত্র ২০ শতাংশ হজযাত্রীকে হজ করার সুযোগ দিবে সৌদি আরব সরকার। বাকি ৮০ শতাংশ হজযাত্রী এবার হজে যাওয়ার অনুমতি পাচ্ছেন না। এছাড়া বয়স্ক হজযাত্রীদেরও এবার হজে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হবে না। বয়স্ক যাত্রীদের ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকায় তাদের সাথে সম্পৃক্ত অনেক কম বয়স্ক নিবন্ধিত যাত্রীরাও হজে যাওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবেন।

সোমবার হজ পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত সৌদি সরকারের কয়েকটি বরাত দিয়ে এমনটি জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদ সংস্থা রয়টার্স।

প্রতি বছর পবিত্র হজ ও ওমরাহ থেকে সৌদি আরব সরকার ১২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করে থাকে। এবার সেটা নিঃসন্দেহে কমে যাবে উল্লেখযোগ্য হারে। অল্প সংখ্যক হজযাত্রীকে হজের সুযোগ দেয়ায় দেশটির অনেক আর্থিক ক্ষতি হবে। এছাড়া হজ ব্যবস্থাপনার সাথে সংশ্লিষ্ট বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের হজ এজেন্সিগুলো কোটি কোটি টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। বাংলাদেশে সরকারি ও বেসরকারি মিলে প্রায় ৬৫ হাজার হজযাত্রী চলতি বছর হজে যাওয়ার জন্য নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পন্ন করেছেন।

করোনা মহামারীর লকডাউনের কারণে প্রায় ১৩ শতাধিক হজ এজেন্সি ও ৪ শতাধিক ওমরাহ এজেন্সি গত ৩ মাস যাবত অফিস খুলতে পারছে না। হজ ও ওমরাহ কার্যক্রম সম্পূর্ণ বন্ধ থাকায় এসব এজেন্সিগুলো অর্থনৈতিকভাবে দেউলিয়ার পথে। কর্মকর্তা কর্মচারিদের বেতন ভাতা পরিশোধ করতে পারছে না এজেন্সিগুলো। এছাড়া সৌদি আরবে ওমরাহ বন্ধ হওয়ায় দেশটির ব্যাংকে অনলাইনে পাঠানো কোটি কোটি টাকা এবং বিভিন্ন বাজেট ক্যারিয়ারে অব্যবহ্রত টিকিটের কোটি কোটি টাকা এখনো ফেরত পাচ্ছে না। এ নিয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয় ও হাব যথাযথ উদ্যোগ না নেয়ায় এজেন্সির মালিকরা চরমভাবে ক্ষুদ্ধ। আসন্ন জাতীয় বাজেটে ক্ষতিগ্রস্ত হজ, ওমরাহ ও ট্রাভেলস এজেন্সিগুলোকে প্রণোদনা দেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দের জোর দাবি জানিয়েছেন একাধিক বৈধ হজ ও ওমরাহ এজেন্সির মালিক। এদিকে, এবার হজযাত্রায় অনিশ্চয়তা দেখা দেয়ায় লকডাউনের মাঝেই বিভিন্ন হজ এজেন্সির নিবন্ধিত হজযাত্রী হজের টাকা ফেরত দেয়ার জন্য হজ এজেন্সির মালিকদের দফায় দফায় চাপ দিচ্ছেন। কিন্ত নিবন্ধিত হজযাত্রীর হজে টাকা সরকারি ব্যাংকে জমা থাকায় টাকা ফেরত দেয়ার কোনো সুযোগ হচ্ছে না।

সৌদি আরবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা লাখ ছাড়িয়েছে। দেশটিতে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ১ লাখ ৫ হাজার ২৮৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। মারা গেছে ৭৪৬ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ৭৪ হাজার ৫২৪ জন।

এমন সময় দেশটি পরিকল্পনা করেছে এবার কম সংখ্যক হজযাত্রীকে হজের সুযোগ দেয়ার। হজ ব্যবস্থাপনার সঙ্গে জড়িত সৌদির দু’টি সূত্র জানিয়েছে, প্রতি বছর ২.৫ মিলিয়ন অর্থাৎ ২৫ লাখ হজযাত্রীকে হজ করার সুযোগ দেয়া হয়। এবার সেই সংখ্যা মাত্র ২০ শতাংশে নামিয়ে আনা হবে। অর্থাৎ ২৫ লাখের জায়গায় মাত্র ৫ লাখ হজযাত্রী হজ করার সুযোগ পাবেন। বাকি ২০ লাখ হজযাত্রী হজে গমনের সুযোগ পাবেন না। এছাড়া বয়স্ক হজযাত্রীদেরও হজে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হবে না। যারা হজের সুযোগ পাবেন তাদের কঠোর নিয়ম নীতি ও স্বাস্থ্যবিধি মেনেই হজ পালন করতে হবে।

এই বিষয়ে সৌদি সরকারের পক্ষ এখনো কোনো মন্তব্য করা হয়নি। আর এবারের করোনার ভাইরাসের কারণে তেলের দাম কমে যাওয়ার পাশাপাশি যদি হজ বন্ধ হয়ে যায় তাহলে সৌদি আরব অর্থনৈতিক সংকোচন মুখে পড়বে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 256 People