চট্টগ্রাম রবিবার, ৩১ মে, ২০২০

সৌদি আরবে বাংলাদেশি স্কুলগুলোকে প্রণোদনা দেয়ার দাবি

৪ মে, ২০২০ | ৬:২৪ অপরাহ্ণ

 সৌদি আরব সংবাদদাতা

সৌদি আরবে বাংলাদেশি স্কুলগুলোকে প্রণোদনা দেয়ার দাবি

মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম শক্তিশালী দেশ সৌদি আরবেই বাংলাদেশি নাগরিকদের সন্তানদের শিক্ষা নিশ্চিত করতে ‘নো লস নো প্রফিট’ নীতিতে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ। দেশটিতে ঢাকা শিক্ষাবোর্ড ও  ব্রিটিশ কারিকুলামের অধীনে রয়েছে রয়েছে লাল সবুজের পতাকাবাহী ৯টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। যেখানে বর্তমানে  ১০ হাজারের মতো শিক্ষার্থী পড়াশুনা করছেন। বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ রিয়াদের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান মোসতাক আহমেদ শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে বিশেষ প্রণোদনা প্রদান করার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকা প্রণোদনা থেকে মধ্যপ্রাচ্যের এসব বাংলাদেশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বিশেষ প্রণোদনার দাবি জানিয়ে  প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন শিক্ষক এবং অভিভাবকরা।

ইতিপূর্বে স্কুলগুলোর নানা সংকটে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন প্রধানমন্ত্রী, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ দূতাবাস। বর্তমান বৈশ্বিক করোনা মহামারিতে নতুন সংকটের জন্ম হয়েছে স্কুলগুলোতে। একদিকে শিক্ষক-কর্মচারীসহ ভবন ভাড়ার টাকার চাপ অন্যদিকে অভিভাবকরা বেকার হয়ে পড়ায় মাসিক টিউশন ফি পরিশোধে অপারগতা। এই অবস্থায় বিদ্যালয়গুলো বাঁচাতে সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

জাতীয় কারিকুলামে পরিচালিত বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ রিয়াদের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান মোসতাক আহমেদ বলেন, আমরা গভীর সংকটে আছি। সবকিছু বন্ধ থাকলেও আমরা শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ক্লাস চালিয়ে চাচ্ছি। বিশেষ ফান্ড থেকে শিক্ষকদেরকে ফেব্রুয়ারি এবং মার্চের অর্ধেক বেতন পরিশোধ করা হয়েছে। অভিভাবকদের অবস্থাও ভালো না। এই অবস্থায় সরকারের বিশেষ বরাদ্ধ ছাড়া পরিস্থিতি মোকাবেলা করা সম্ভব নয়। পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে কমপক্ষে ৬ মাস শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত রাখা যায় তার জন্য একটা বিশেষ প্রণোদনা প্রদান করার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান মোসতাক আহমেদ।

পূর্বকোণ/- আরপি

The Post Viewed By: 198 People

সম্পর্কিত পোস্ট