চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৫ জুন, ২০২০

সর্বশেষ:

তাবলিগ জমায়েত থেকে করোনার ঝুঁকিতে ৯০০০ মানুষ

২ এপ্রিল, ২০২০ | ৩:০৭ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

তাবলিগ জমায়েত থেকে করোনার ঝুঁকিতে ৯০০০ মানুষ

ভারতের তাবলিগ জামাতের সদর দপ্তর দিল্লির নিজামুদ্দিন মসজিদের একটি সমাবেশ থেকে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে হাজার হাজার মানুষের মধ্যে। এ সমাবেশে যারা অংশ নিয়েছিলেন, তাদের মধ্যে সাতজন ইতিমধ্যেই এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। আশঙ্কা করা হচ্ছে, এ মসজিদ থেকে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৯ হাজার ছাড়াতে পারে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভর খবরে বলা হয়, মার্চের শুরুতে নিজামুদ্দিন মসজিদে তাবলিগ জামাতের এক বিশাল জমায়েত হয়। এতে কমপক্ষে ৭ হাজার ৬০০ জন ভারতীয় ও ১ হাজার ৩০০ জন বিদেশি অংশ নেন। আর এ জমায়েত থেকে ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। তাবলিগ জামাতের এ জমায়েতে অংশ নেয়া সাতজন করোনা আক্রান্তের মৃত্যুতে চিন্তায় পড়েছে মহারাষ্ট্র প্রশাসন থেকে ভারতীয় কেন্দ্রীয় সরকার। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের আশঙ্কা, এই জমায়েত থেকে বহু মানুষের শরীরে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে। ভারতের ২৪টি রাজ্য এবং ৪টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ওই তাবলিগ সদস্যদের খোঁজে চিরুনি অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছেন, করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় ১ হাজার ৫১ জন তাবলিগ সদস্যকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। ২১ জনের শরীরে ইতিমধ্যেই করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছে এবং তাদের মধ্যে সাতজন মারাও গেছেন। তাদের আশঙ্কা, সঠিকভাবে তাবলিগের মুসল্লিদের কোয়ারেন্টিন না করা গেলে ৯ হাজারেরও বেশি আক্রান্ত হবেন।

প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবারই তাবলিগের মার্কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তাবলিগের শীর্ষ আলেম মাওলানা সাদ, জিশান, মুফতি শেহজাদ, এম সাইফি, ইউনুস, মহম্মদ সলমন ও মহম্মদ আশরাফের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এদিকে, পুলিশ নোটিশ জারির সঙ্গে সঙ্গেই মাওলানা সাদ গত ২৮ মার্চ থেকে নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

পূর্বকোণ/এম

The Post Viewed By: 55 People

সম্পর্কিত পোস্ট