চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

কাবা শরিফের আজান ও নামাজের নতুন সিদ্ধান্ত কার্যকর

২৯ মার্চ, ২০২০ | ১:৩৪ অপরাহ্ণ

কামাল পারভেজ অভি, সৌদি সংবাদদাতা

কাবা শরিফের আজান ও নামাজের নতুন সিদ্ধান্ত কার্যকর

সৌদি আরবে অবস্থিত বিশ্বের মুসলিম উম্মাহর দুই পবিত্র স্থান মক্কার মসজিদুল হারাম এবং মদিনা মুনাওয়ারার মসজিদে নববি। এ দুই পবিত্র মসজিদে সব সময়ই একাধিক ইমাম ও মুয়াজ্জিন নামাজ এবং আজান পরিচালনার দায়িত্ব পালন করে আসছেন। মহামারি করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে এবার পবিত্র কাবা শরিফের নামাজ ও আজানের দায়িত্ব পালনে ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের ব্যাপারে নতুন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে হারামাইন কর্তৃপক্ষ।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে শুধু মসজিদে হারাম ও মসজিদে নববি ছাড়া সৌদি আরবের সব মসজিদে নামাজ স্থগিত করা হয়েছে। করোনায় সর্বোচ্চ সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের অংশ হিসেবে শুধু কাবা শরিফে ইমাম এবং মুয়াজ্জিনের সংখ্যা কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন হারামাইন কর্তৃপক্ষ। জরুরি পরিস্থিতিতে হারামাইন কর্তৃপক্ষ পরামর্শের আলোকে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন যে, একাধিক ইমাম ও মুয়াজ্জিন এ অবস্থায় কাবা শরিফের নামাজ এবং আজানের দায়িত্ব পালন করার প্রয়োজন হবে না। কাবা শরিফের প্রধান ইমাম শায়খ ড. আব্দুর রহমান সুদাইসি ৩ শাবান মোতাবেক ২৭ মার্চ  (শুক্রবার) পরামর্শের আলোকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে পরামর্শ ও পর্যালোচনা করে এক জরুরি নির্দেশনা জারি করেন। তাতে জানা যায়;  ‘পবিত্র নগরী মক্কা মুকাররমার মসজিদে হারামে প্রতিদিন নামাজের জামায়াতের জন্য একজন সম্মানিত ইমাম এবং আজানের জন্য দুজন সম্মানিত মুয়াজ্জিন দায়িত্ব পালন করবেন। নতুন নিয়মটি ৫ শাবান মোতাবেক রবিবার (২৯ মার্চ) থেকে কার্যকর হবে।’

উল্লেখ্য, চলতি সপ্তাহেও মক্কার মসজিদে হারামে তিনজন ইমাম নামাজ পড়িয়েছেন। মদিনার মসজিদে নববিতে নামাজ পড়িয়েছেন সম্মানিত পাঁচজন ইমাম। মক্কায় নামাজ পড়িয়েছেন, ফজর ও আসরের শায়খ ড. বন্দর বিন বালিলাহ। মাগরিব ও ইশায় শায়খ ড. মাহের এবং জোহর পড়িয়েছেন শায়খ ড. আব্দুল্লাহ জুহানি। মদিনার মসজিদে নববিতে ফজর পড়িয়েছেন শায়খ ড. হামেদ, জোহর পড়িয়েছেন শায়খ ড. কাসিম, আসর প্রবীণ ইমাম শায়খ ড. আব্দুর রহমান আলি হুজাইফি, মাগরিব শায়খ আহমদ আলি হুজাইফি এবং ইশার দায়িত্বে ছিলেন শায়খ ড. তুবাইতি। সপ্তাহের শুরুতে কতজন ইমাম ও মুয়াজ্জিন মক্কা-মদিনায় নামাজের জামাআত ও আজানের দায়িত্ব পালন করবেন এ সূচি প্রণয়ন করা হত। এবার এ সূচিতে কাবা শরিফের নামাজ ও আজানের দায়িত্ব পালনে পরিবর্তন আনা হল। ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের মধ্যে কারা কোন ওয়াক্তে আজান ও নামাজ পরিচালনা করবেন সপ্তাহের প্রথমেই তা নির্ধারিণ করা হয়। প্রতি সপ্তাহে দুই বা ততোধিক ইমাম কাবা শরিফ ও মদিনায় নামাজ পরিচালনা করতেন। নতুন সিদ্ধান্তের আলোকে পবিত্র কাবা শরিফে নামাজের ইমামতি দায়িত্ব পালন করবেন একজন সম্মানিত ইমাম। আজানের দায়িত্বে থাকবেন দুজন সম্মানিত মুয়াজ্জিন। এটি ঘোষণা করেন মসজিদে হারাম ও মসজিদে নববির প্রধান ইমাম শায়খ ড. আব্দুর রহমান আস-সুদাইসি।

 

 

 

 

পূর্বকোণ/এম

শেয়ার করুন
  • 871
    Shares
The Post Viewed By: 431 People

সম্পর্কিত পোস্ট