চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

২৭ এপ্রিল, ২০১৯ | ২:৪২ পূর্বাহ্ণ

সৌদিতে জোর করে স্বীকারোক্তি নিয়ে গণশিরñেদ

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : চলতি সপ্তাহে সৌদি আরবের ইতিহাসে একসঙ্গে সবচেয়ে শিরñেদ কার্যকর করার ঘোষণা দেয়ার বহু আগে তাদের কয়েকজন অভিযোগ করে বলেছেন, যারা আমাদের নির্যাতন করেছেন, তারাই আমাদের নামে মিথ্যা স্বীকারোক্তি লিখেছে। আমরা সম্পূর্ণ নিরপরাধ।
শুক্রবার মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএনের খবরে এমন তথ্য পাওয়া গেছে। শিরñেদ হওয়া এসব লোক আদালতের কাছে তাদের জীবন রক্ষার করুণ আবেদন করেছিলেন। কিন্তু দেশটির আদালত সেই আবেদন আমলে নেননি।
জেরাকারীদের হাতে নির্যাতিত হওয়ার প্রমাণ থাকার কথাও তাদের কয়েকজন বলেছিলেন। বিচারের নথিপত্রে দেখা গেছে, তাদের একজন আদালতে করুণা পাওয়ার প্রত্যাশায় বাদশাহ সালমান ও তার ছেলে মোহাম্মদ বিন সালমানের আনুগত্য প্রকাশ করেন।
তবে ২০১৬ সালে যখন বিচার চলছিল, তখন এসব কিছুই বিচারকের মনে নাড়া দিতে পারেনি। তাদের সন্ত্রাস সংশ্লিষ্ট অপরাধে দোষী সাব্যস্ত করে মৃত্যুদ- দেয়া হয়েছে। ৩৭ জনের শিরñেদ কার্যকর করার কথা মঙ্গলবার ঘোষণা দিয়েছে রিয়াদ। এদের মধ্যে তিনজন অপ্রাপ্তবয়স্ক ছিল। সৌদি আরব বলছে, তাদের বয়স কম হলেও তারা অপরাধ করেছে।
তাদের একজনকে ক্রুশবিদ্ধ করে হত্যা করে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে, যাতে অন্যরাও সতর্ক হন। মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের খবরে বলা হয়েছে, নিহতদের মধ্যে সবচেয়ে বয়স কম ছিল আবদুল কারিম আল-হাওয়াজের। ষোলো বছর বয়সে সহিংস বিক্ষোভে অংশ নেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছিল তার বিরুদ্ধে।
তাকে শিরñেদের ঘটনায় জাতিসংঘ থেকে ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়েছে। সৌদি আরবকে তার নীতি পরিবর্তনের আহ্বান জানানো হয়েছে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 295 People