চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০১ অক্টোবর, ২০২০

সর্বশেষ:

ইরাকের তিন ঘাঁটি থেকে সেনা প্রত্যাহার করবে যুক্তরাষ্ট্র

১৮ মার্চ, ২০২০ | ২:০৫ পূর্বাহ্ণ

ইরাকের তিন ঘাঁটি থেকে সেনা প্রত্যাহার করবে যুক্তরাষ্ট্র

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : ইরান ও বাগদাদের সঙ্গে উত্তেজনা বৃদ্ধির মধ্যে ইরাকের তিনটি সামরিক ঘাঁটি থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।
আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে ইরাকের আল-কাইম, কায়ারা ওয়েস্ট ও কিরকুকের ঘাঁটি থেকে তাদের সেনাদের সরিয়ে নিচ্ছে বলে মার্কিন বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা আভাস দিয়েছেন।
ইরাকের ৮টি ঘাঁটিতে এখন যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ৫ হাজার ২০০ সেনা অবস্থান করছে বলে ইভিনিং স্ট্যান্ডার্ডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। এর মধ্যে তিনটি ঘাঁটি থেকে সেনা প্রত্যাহার ইরাকের মাটি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সৈন্য সংখ্যা কমিয়ে আনারই ইঙ্গিত দিচ্ছে বলে মত সামরিক বিশেষজ্ঞদের।
ইরান ও ইরাকের বর্তমান সরকারের সঙ্গে তুমুল উত্তেজনার মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্র গুরুত্বপূর্ণ তিনটি ঘাঁটি থেকে সরার এ সিদ্ধান্ত নিল।
চলতি সপ্তাহে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র আল-কাইম ঘাঁটি ও এর সামরিক সরঞ্জামগুলো ইরাকের সেনাবাহিনীর হাতে হস্তান্তর করবে বলে জানিয়েছে। এর মধ্য দিয়ে ইরাকের সিরীয় সীমান্ত অংশে মার্কিন সেনা উপস্থিতির অবসান ঘটবে।
ইউফ্রেতিস নদীর তীরের ছোট আল-কাইম শহরের কাছে পুরনো একটি রেলস্টেশনের ধ্বংসস্তূপের ওপর এ সামরিক ঘাঁটিটি গড়ে উঠেছে। মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) ২০১৪ সালে এ এলাকাটি দিয়েই ইরাকে তাদের দখলযাত্রা শুরু করেছিল।
২০১৭ সালের নভেম্বরে ইরাকি বাহিনী ফের তা পুনরুদ্ধার করে। আইএসের বিরুদ্ধে যুদ্ধজয়ের পর মূলত ইরানসমর্থিত মিলিশিয়া গোষ্ঠীগুলোই সীমান্তের সিরিয়া ও ইরাক দুই অংশেরই নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয়।
আল-কাইম ঘাঁটিতে ইরাকি সেনাবাহিনীর সদস্যরা থাকলেও ঘাঁটিটির আশপাশ এখন ইরানসমর্থিত পপুলার মবিলাইজেশন ফোর্সেসের (পিএমএফ) অধীনস্ত বাহিনীর কব্জায়। আইএসের বিরুদ্ধে যুদ্ধের সময় এই ইরানপন্থি মিলিশিয়া গোষ্ঠী ও যুক্তরাষ্ট্রের বাহিনীর পাশাপাশি অবস্থান দুই পক্ষের জন্যই বিব্রতকর ছিল, কিন্তু ইরাকি বাহিনী সমন্বয়কারীর ভূমিকা পালন করায় সে সময় বড় ধরনের কোনো সমস্যা হয়নি।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 80 People

সম্পর্কিত পোস্ট