চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সৌদি-রাজপরিবারে ধরপাকড় বন্ধ হয়নি, আটক কমপক্ষে ২০ জন প্রিন্স

৯ মার্চ, ২০২০ | ৩:৫০ পূর্বাহ্ণ

প্রভাবশালী প্রিন্স নায়েফ বিন আহমেদও আটক

সৌদি-রাজপরিবারে ধরপাকড় বন্ধ হয়নি, আটক কমপক্ষে ২০ জন প্রিন্স

ইতিপূর্বে ৩ জন শীর্ষস্থানীয় প্রিন্স আটক হওয়ার খবর জানা গেলেও,
লন্ডন-ভিত্তিক মিডল ইস্ট আই বলছে, আটক হওয়া প্রিন্সদের সংখ্যা ২০।
ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : সৌদি রাজপরিবারে ধরপাকড় বন্ধ হয়নি। দেশটির বর্তমান বাদশাহর ভাই প্রিন্স আহমেদ বিন আবদুল আজিজকে আটকের পর অন্যান্য প্রিন্সদের ধরপাকড় চলছে। ইতিপূর্বে ৩ জন শীর্ষস্থানীয় প্রিন্স আটক হওয়ার খবর জানা গেলেও, লন্ডন-ভিত্তিক মিডল ইস্ট আই বলছে, আটক হওয়া প্রিন্সদের সংখ্যা ২০। তবে এদের মধ্যে ৪ জনের নাম জানা গেছে। তারা হলেন বাদশাহ সালমানের একমাত্র জীবিত ভাই প্রিন্স আহমেদ, তার ছেলে প্রিন্স নায়েফ বিন আহমেদ (ল্যান্ড ফোর্সেস ইন্টিলিজেন্স অ্যান্ড সিকিউরিটি অথরিটির প্রধান), সাবেক ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন নায়েফ ও তার সৎ ভাই নাওয়াফ বিন নায়েফ। এদিকে বার্তাসংস্থা রয়টার্স একজন আঞ্চলিক সূত্রের বরাতে জানিয়েছে, আমেরিকা ও আরও কিছু বিদেশী শক্তির সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যমে ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থান চেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছে আটককৃত প্রিন্সদের বিরুদ্ধে। রয়টার্স একাধিক সূত্রকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, বাদশাহ সালমান নিজেই তাদের গ্রেফতারি পরোয়ানায় স্বাক্ষর করেছেন। এই ধরপাকড়ের মধ্যে ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান রাজপরিবারের সকল প্রিন্সকে টুইটারে তার প্রতি আনুগত্য ঘোষণা করার নির্দেশ দিয়েছেন। ৩ জন প্রিন্স ইতিমধ্যে তা করেছেনও। এদিকে আরেক প্রিন্স মিতেব বিন আবদুল্লাহকে নিয়েও উদ্বেগ ছড়িয়েছে।
সাবেক বাদশাহ আবদুল্লাহর এই সন্তানকে একসময় সিংহাসনের অন্যতম উত্তরাধিকার ভাবা হতো। ২০১৭ সালে ক্রাউন্স প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান যখন বেশ কয়েকজন প্রিন্স ও রাজপরিবারের সদস্যদের হোটেল রিটজ কার্লটনে আটক রেখেছিলেন, তাদের মধ্যে প্রিন্স মিতেবও ছিলেন। তিনি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ১০০ কোটি ডলারেরও বেশি জরিমানা প্রদানের বিনিময়ে মুক্তি পান। ৬৫ বছর বয়সী মিতেব একসময় অভিজাত ন্যাশনাল গার্ডের প্রধান ছিলেন।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 69 People

সম্পর্কিত পোস্ট