চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০২ অক্টোবর, ২০২০

সর্বশেষ:

ন্যাটোর মোকাবেলায় রাশিয়া তৈরি করছে নতুন প্রজন্মের ডুবোজাহাজ

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ১:৩৬ পূর্বাহ্ণ

ন্যাটোর মোকাবেলায় রাশিয়া তৈরি করছে নতুন প্রজন্মের ডুবোজাহাজ

প্রায় ৫০ বছর পর মস্কো নতুন শ্রেণির ডুবোজাহাজ তৈরির পদক্ষেপ নিতে চলেছে। অবশ্য তৈরিতে কতদিন লাগবে বা শেষ পর্যন্ত রুশ নৌবহরকে কয়টা ডুবোজাহাজ হস্তান্তর করা হবে সে বিষয়ে এখনও কিছুই জানা যায় নি।
ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : রাশিয়া পরবর্তী প্রজন্মের ডুবোজাহাজ তৈরির প্রস্তুতি শুরু করেছে।
মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটোর ডুবোজাহাজ-বহরকে মোকাবেলার লক্ষ্য সামনে রেখে আক্রমণের কাজে ব্যবহার উপযোগী পুরোপুরি নতুন শ্রেণির এ ডুবোজাহাজ নির্মাণ করবে মস্কো।

সাইবেরিয়ার তুষার-কুকুরের একটি প্রজাতির নাম অনুযায়ী নতুন এ শ্রেণির নাম দেয়া হয়েছে লাইকা।
দুনিয়ার অন্যতম বৃহত্তম ডুবোজাহাজ-বহর রয়েছে রুশ ফেডারেশনের। এ বহরে রয়েছে আক্রমণের কাজে ব্যবহার যোগ্য পরমাণু এবং প্রচলিত উভয় ধরণের ডুবোজাহাজ। রয়েছে গাইডেড ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ডুবোজাহাজ। রয়েছে ভূমিতে আক্রমণযোগ্য ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র, ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র এবং পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র সজ্জিত ডুবোজাহাজ। এ ছাড়াও এতে থাকেব গাইডেড টর্পেডো, জাহাজ বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র।

বড় হলেও এ বহরের অনেক ডুবোজাহাজই বয়সে প্রবীণ। কয়েক দশকের পুরানো ডুবোজাহাজ এবং এ গুলো বদলানোর সময় এসেছে। রুশ ফেডারেশনের ১৬টি পরমাণু ডুবোজাহাজ তৎপর রয়েছে এখনও। শীতল যুদ্ধ শেষ হওয়ার আগে, সেই সোভিয়েত জমানায় এ গুলোর বেশির ভাগকে বানানো হয়েছিল।
শীতল যুদ্ধের পর দুই দফা ডুবোজাহাজ তৈরি করছে রাশিয়া। লাইকার মাধ্যমে তৃতীয়বার ডুবোজাহাজ নির্মাণের পথে পা বাড়াবে দেশটি। রুশ নৌবহরের আকুলা বা হাঙ্গর এবং ন্যাটোর দেয়া সাংকেতিক নাম ভিক্টর শ্রেণির ডুবোজাহাজের পরিবর্তে ব্যবহৃত হবে লাইকা।
এমন কথা শোনা যাচ্ছে। লাইকাতে অনেক নতুন নতুন ব্যবস্থা থাকবে। পশ্চিমা ডুবোজাহাজ বহরকে মোকাবেলার জন্য এ সব নতুন ব্যবস্থা লাইকায় বসানো হবে।

লাইকার নকশা তৈরি করছে সেন্ট পিটার্সবুর্গের নকশা কেন্দ্র ম্যালাসাইত। লাইকার পানি অপসারণ ক্ষমতা হবে ১১,৩০০ টন। মার্কিন নৌবাহিনীর ভার্জিনিয়া শ্রেণির ডুবোজাহাজের অপসারণ ক্ষমতা মাত্র ৮,৭০০ টন। এর গতি হবে ঘণ্টায় ৩৫ নট। ভূমির হিসাবে এটি হবে ঘণ্টায় ৪০ মাইল। এটি সর্বোচ্চ পানির ১৬৯৮ ফুট তলে যেতে পারবে। ভার্জিনিয়া শ্রেণির ডুবোজাহাজ ৮০০ ফুট তলে যেতে পারে। সর্বোচ্চ ১৬০০ ফুট যেতে পারে বলে ধারণা করা হয়।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 265 People

সম্পর্কিত পোস্ট