চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২০

২৮ অক্টোবর, ২০২০ | ২:০৮ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

আসছে শীত: জেনে নিন সুস্থ থাকার উপায়

শীতের আমেজ বাতাসে। গাছের পাতারা ঝরা শুরু করেছে। ঠান্ডা আবহে কুয়াশাচ্ছন্ন সকাল, মৃদু উষ্ণ পানিতে স্নান, উষ্ণ কম্বল, তাজা তাজা শাকসবজি এসবের জন্যই অনেকের পছন্দ শীতকাল।

শীতের সময় শরীরে একটা অলসতা ভাব আসে। তবে সঠিক খাবার বাছাই, ওজন নিয়ন্ত্রণ, রোগ প্রতিরোধ করে শরীরকে কর্মোদ্যমী করে তোলা যায়।

কর্মোদ্যমী সকাল: সকালেই কর্মোদ্যমী দিন শুরু করুন। দিনের শুরুতেই শরীর নাড়াচাড়া বা ব্যায়াম করতে পারেন। সুযোগ থাকলে ১০ মিনিট বাড়ির বাইরে দৌড়ান। বাইরের সতেজ বাতাস আপানর মন ভালো করবে।

ফল ও সবজি: শীতকালে প্রচুর সবজি বাজারে পাওয়া যায়। পুষ্টিকর খাবার সব সময়ই শরীর সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। এ সময় তাই বেশি করে শাকসবজি খেতে হবে। এতে শরীর যথেষ্ট পুষ্টি পাবে এবং রোগব্যাধি কমবে।

ভিটামিন ‘ডি’: শীতের সময় অধিকাংশ লোকজনই ঘরের ভেতর থাকেন। এ সময় শরীরে ভিটামিন ‘ডি’ কমে যায়। সূর্যের আল্ট্রাভায়োলেন্ট ‘বি’ রশ্মির মাধ্যমে শরীরে ভিটামিন ‘ডি’ উৎপন্ন হয়।তাই এ সময় পর্যাপ্ত ভিটামিন ও খনিজ উপাদান গ্রহণ করা জরুরি। বিশেষ করে ভিটামিন ‘ডি’ গ্রহণে গুরুত্ব দিতে হবে।

প্রোটিন গ্রহণ: ভালো মানের প্রোটিন পেশি ঠিক রাখার পাশাপাশি শরীর উষ্ণ রাখতে সাহায্য করে। সমৃদ্ধ প্রোটিন দেহে উত্তেজক ওরেক্সিন কোষ উৎপাদনে সাহায্য করে যা শরীরে কর্মোদ্যমী বাড়ায়।

প্রোটিন গ্রহণের উৎকৃষ্ট মাধ্যম হচ্ছে বাদাম খাদ্যতালিকায় যুক্ত করা। কাজু বাদাম প্রোটিনের ভালো উৎস। এটি কেবল শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণই করে না, এটি হার্টের স্বাস্থ্যের জন্যও উপকারী।

পানি পান: শীতকালে খুব কমই তৃষ্ণা পায়। এ সময় পানি কম পান করার ফলে শরীর আর্দ্রতাহীন হয়ে পড়ে। ঠান্ডা আবহাওয়া হলেও শরীরে পানির চাহিদা থাকে। যারা বাড়িতে বা অফিসে থাকেন তাদের জন্য বিষয়টা গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিদিন অন্তত ২-৩ লিটার পানি পান করতে হবে।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 122 People

সম্পর্কিত পোস্ট