চট্টগ্রাম সোমবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২০

২২ নভেম্বর, ২০২০ | ২:৫৪ অপরাহ্ণ

সারোয়ার আহমদ

পরিবেশবাদীদের তীব্র বিরোধিতাও দমাতে পারেনি

জাহাজভাঙা শিল্পে ফের শীর্ষে বাংলাদেশ

পরিবেশবাদীদের তোপের মুখেও বিশ্বে এবারও বাংলাদেশের জাহাজভাঙা শিল্প শীর্ষ স্থান দখল করে নিয়েছে। ২০১৯ সালে বাংলাদেশ একাই বিশ্বের ৫৪ দশমিক ৭ শতাংশ জাহাজ রিসাইকেল করে শীর্ষ স্থান দখল করে নিয়েছে। এর আগে ২০১৮ সালেও বিশ্বে যত জাহাজ ভাঙা হয়েছিল তার ৪৭ দশমিক ২ শতাংশই ভাঙা হয়েছিল বাংলাদেশে। সে বছর ভারতকে টপকে বাংলাদেশ প্রথম স্থান দখল করেছিল। এবার ২০১৮ ও ২০১৯ সালের জাহাজ ভাঙার তথ্য অনুযায়ী পর পর দুই বার শীর্ষ স্থান ধরে রাখলো বাংলাদেশ।

গত ১২ নভেম্বর জাতিসংঘের বাণিজ্য ও উন্নয়ন সংস্থা ‘আঙ্কটাড’ প্রকাশিত ‘রিভিউ অব মেরিটাইম ট্রান্সপোর্ট ২০২২’ প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে এসেছে। প্রতিবেদন অনুযায়ী দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভারত এবং তৃতীয় স্থানে রয়েছে তুরস্ক। ভারত ২৬ দশমিক ৬ শতাংশ এবং তুরস্ক রিসাইকেল করে ৯ শতাংশ জাহাজ। অর্থাৎ বাংলাদেশসহ প্রথম তিন দেশ মিলে ২০১৯ সালে বিশ্বের ৯০ দশমিক ৩ শতাংশ জাহাজ রিসাইকেল করে। এছাড়া পঞ্চম স্থানে থাকা পাকিস্তান রিসাইকেল করে ২ দশমিক ২ শতাংশ। অন্যন্য দেশ রিসাইকেল করে মাত্র ৪ দশমিক ৪ শতাংশ জাহাজ।

এর আগে বেলজিয়ামভিত্তিক সংগঠন দ্য এনজিও শিপ ব্রেকিং প্ল্যাটফর্ম জাহাজ ভাঙা শিল্প নিয়ে এক প্রতিবেদনে জানায়, ২০১৯ সালে বিশ্বে সবচেয়ে বেশিসংখ্যক জাহাজ ভাঙা হয় বাংলাদেশে। ওই বছর বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক বাজার থেকে ২৩৬টি জাহাজ আমদানি করে টুকরো করার জন্য। একটি জাহাজ ভেঙে টুকরো করে সব সরঞ্জাম পুনর্ব্যবহার উপযোগী করাই হচ্ছে রিসাইকেল, যা বাংলাদেশে জাহাজভাঙা শিল্প হিসেবে পরিচিত।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 35 People

সম্পর্কিত পোস্ট