চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২০

৭ মে, ২০১৯ | ১২:৪৫ পূর্বাহ্ণ

‘বন্ধু হে আমার’

ছেলেটির বাবা মফস্বল শহরের নামকরা ব্যারিস্টার। তার একমাত্র ছেলে অভিক। কিন্তু পরিবারের বনেদিয়ানা ছেলেটির কাছে খুব নগন্য মনে হয়। পারিবারিক সম্মান বা বাবার সুনামের বিপরীতে তার সদর্প উপস্থিতি তাকে বহুবার বাবার সঙ্গে তর্কে লিপ্ত করেছে। তাতে বাবা যতখানি না ব্যথিত তার থেকে বেশি খুশি অভিক। কারণ এতে বাবার ঠুনকো আভিজাত্যে আঘাত করে। তার ভাষায়, ‘অর্থই একটি মানুষ বা তার পরিবারের পরিচয়ের মানদ- কখনই নয়, বরং তার কৃতকর্ম তাকে মৃত্যুর পর অনেকদিন বাঁচিয়ে রাখবে।’
বাবার নিষেধ সত্ত্বেও বৃত্তির টাকা দিয়ে পুরোনো একটি মোটর সাইকেল কিনে অভিক। সেটাই তার চলার সঙ্গী। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বাবা-ছেলের সম্পর্কের তিক্ততা বাড়তে থাকে। একপর্যায়ে অভিককে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতে বাধ্য করে। আসার সময় মাকে অভিক বলে, ‘লক্ষ্মীর সাথে বাস করে অলক্ষ্মীর সাথে থাকা যায় না মা। তুমিও পারবে না মা। আমি চললাম।’ এমন নানা টানাপোড়নের মধ্য দিয়ে এগিয়ে যায় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বিখ্যাত ছোট গল্প ‘রবিবার’-এর কাহিনি। এই গল্প অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে টেলিফিল্ম ‘বন্ধু হে আমার’। এর চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন তরুণ নির্মাতা রাকেশ বসু। টেলিফিল্মটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন এফ এস নাঈম, মম, সুজাত শিমুল, অধরা প্রিয়া প্রমুখ, আগামী ৮ মে, বিকাল ৩টা ৫ মিনিটে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আইয়ে এটি প্রচারিত হবে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 308 People