চট্টগ্রাম সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সৃজনশীল শিল্পে মুগ্ধতা

১৪ মার্চ, ২০২০ | ২:০১ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

শিল্পকলায় ২৫ শিল্পীর দলীয় চিত্রপ্রদর্শনী শুরু

সৃজনশীল শিল্পে মুগ্ধতা

শিল্প মাধ্যমগুলির মধ্যে চিত্রশিল্প একটি অন্যতম শক্তিশালী মাধ্যম। চিত্রের ভাষা চিরন্তন। দেশ-কাল-পাত্রের সীমানা ছড়িয়ে বহুদূর পর্যন্ত বিস্তৃত। যে কোন দেশের মানুষের ভাষা বা আচার-আচরণ, কৃষ্টি-কালচার যেমনই হোক না কেন চিত্রের ভাষা বুঝতে পারে। এজন্যই বলা হয়, ‘একটি চিত্র হাজার শব্দের চেয়েও শক্তিশালী’। চিত্রকলা তাই মানুষের অন্তরের অন্তর্নিহীত ভাষা ও বোধ। আবার অন্যদিকে একটা চিত্রকর্ম নিজেই একটি অনবদ্য একক। এর কোন অনুবাদের প্রয়োজন হয় না। যে কোন চিত্র পৃথিবীর যে প্রান্তেই প্রদর্শিত হোক না কেন, বিভিন্ন ভাষাভাষির মানুষ নির্বিশেষে সবাই এর অর্থ বুঝতে পারে। এখানেই চিত্র শিল্পের চরম সার্থকতা। ‘সময়ের সৃজনশীল শিল্প’ দলীয় চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথিরা একথা বলেন। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমির জয়নুল গ্যালারিতে ‘সময়ের সৃজনশীল শিল্প’ শিরোনামে ২৫ জন চিত্রশিল্পীর আঁকা চিত্রকর্ম নিয়ে তিনদিনের এ প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। সমাজের নানা দিক ও প্রকৃতি কিংবা সমসাময়িক বিষয় নিয়ে ৪৫টি চিত্রকর্ম ও দুটি ভাস্কর্য প্রদর্শিত হয়েছে। সন্ধ্যায় প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, শিল্পী সৈয়দ সাইফুল কবির, শিল্পী সৌমেন দাশ, শিল্পী কে এম এ কাইয়ূম ও চবি চারুকলা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক প্রণব মিত্র চৌধুরী। অনুষ্ঠানে অতিথিরা বলেন, এক সঙ্গে এত শিল্পীর কাজ সহজে দেখা যায় না। এই আয়োজনের মাধ্যমে শিল্প রসিকরা চিত্ত বিনোদনের সঙ্গে শিল্পের নতুন স্বাদ গ্রহণ করতে পারবে। প্রদর্শনীটি ঘুরে দেখা যায় শিল্পীর হাতের ছোঁয়ায় আর রং তুলির আঁচড়ে ক্যানভাসে ফুটে উঠেছে দৃষ্টিনন্দন নানা ছবি। শিল্পকর্মের এই বিচিত্র সমাহার সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। ছবিগুলো আঁকা হয়েছে তেলরং, এক্রোলিক, জলরংয়ের মিশ্রণে। প্রদর্শনীতে প্রবাসী শিল্পী মাসুদা আহমেদের জল রঙে আঁকা ‘কনভিকশন’ তার শিল্পকর্মে তুলে ধরেছেন দেশের বাইরে করা এক মন্দিরের দৃশ্য। আবার শামসুল আলম সোহেলের এক্রিলিক শিল্পকর্মগুলো আক্ষরিক ও ভাবার্থে এক ঘূর্ণিকেই দৃশ্যমান করে তুলেছেন অবলীলায়। তাঁর বিমূর্ত শিল্প যেন নিশ্চুপ প্যালেট এর একটা গল্প। শিল্পী উত্তম তালুকদারের বিন্যাসিত ফিগারগুলো রেখা, রং অকপট এবং বক্তব্য সমৃদ্ধ। অবরুদ্ধ শিরোনামে শিল্পী ড. জেসমিন আকতারের এপ্রোচ যেন একটু বিশেষভাবে ধ্রুপদী অথচ প্রান্তসীমায় ঝুলন্ত। শিল্পী আবেদুল ইসলাম টিটুর মিশ্র মাধমে করা প্রকৃতি কাজটিতে বিন্যস্থ কয়েকটি পাতার রেখাচিত্র। শিল্পী পংকজ মল্লিক এক্রিলিকে বাস্তবানুগ রীতিতে এঁকেছেন ‘ফ্রিডম’ নামের শিল্পকর্মটি। যেখানে পতাকা হাতে উদ্ধত দুটি মুক্তিকামী বীর যোদ্ধা ও সাদা পায়রা যেন কোন এক দিক নির্দেশনা দিচ্ছে। শিল্পী আবুল ফজল মুন্না, কামরুন নাহার রেখা, বাবলু দাশ, বিপ্লব চৌধুরীর রচিত চিত্রপটে আবেগের দ্যোতনায় পর্যবসিত। এভাবে মনের আবেগ আর ভালোবাসার মিশ্রণে আঁকা হয়েছে প্রতিটি ছবি। প্রদর্শনীটি সবার জন্য উন্মুক্ত এবং চলবে ১৬ মার্চ পর্যন্ত।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 249 People

সম্পর্কিত পোস্ট