চট্টগ্রাম সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

ভিয়েতনামে পর্যটনের আকর্ষণীয় নাম হ্যানয় ওল্ড কোয়ার্টার

২৬ জানুয়ারি, ২০২০ | ৪:৪৯ পূর্বাহ্ণ

শাওন সোলায়মান হ ভিয়েতনাম

ভিয়েতনামে পর্যটনের আকর্ষণীয় নাম হ্যানয় ওল্ড কোয়ার্টার

ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ের অন্যতম পর্যটন আকর্ষণের নাম ‘ওল্ড কোয়ার্টার’। শত বছরের ঐতিহ্য, ইতিহাস ও সংস্কৃতির মিশেলে এখনো নিজের আধিপত্য ধরে রেখেছে হাজার বছর পুরনো শহরটি। দেশে থাকতে ট্রাভেলার আশরাফুজ্জামান উজ্জ্বল ভাই বিশেষ করে বলেছিলেন এখানকার ‘ওয়াটার পাপেট শো’ এর কথা। ওল্ড কোয়ার্টারে যাবো শুনে রাষ্ট্রদূত গাড়িতে করে নামিয়ে দিলেন থিয়েটারের সামনে। প্রায় এক বর্গকিলোমিটারের কিছু বেশি জায়গা নিয়ে গড়ে উঠেছে ওল্ড কোয়ার্টার। ১০১০ সালের দিকে লি বংশের রাজত্বকালে বাণিজ্যিক রাজধানী হিসেবে ব্যবহৃত হতো এই ওল্ড কোয়ার্টার। সেসময়ে ওল্ড কোয়ার্টারের ছিল ৩৬টি সড়ক এবং প্রতিটি নির্দিষ্ট একটি করে পণ্য বিকিকিনির বাজার বলে প্রসিদ্ধ ছিল। ১৯৯৫ সালে দেশটির সরকার ওল্ড কোয়ার্টার হিসেবে উত্তরে হাং ডাউ স্ট্রিট; দক্ষিণে হাং বং স্ট্রিট, হাং গাই স্ট্রিট, চাউ গো স্ট্রিট এবং হাং থুয়াং স্ট্রিট; পূর্বে ট্রান কোয়াং খাই স্ট্রিট এবং ট্রান নাথ স্ট্রিট এবং পশ্চিমে ফুং হাং স্ট্রিটের মধ্যে এর সীমানা নির্ধারণ করে দেয়। ওয়াটার পাপেট শো: ওয়াটার পাপেট শো বা পানির ওপর পুতুল নাচের এই আয়োজন হ্যানয়ের ওল্ড কোয়ার্টারে খুবই বিখ্যাত।
হোয়ান কিয়েম লেক: ভিয়েতনাম মিথোলজির অবিচ্ছেদ্য অংশ হোয়ান কিয়েম লেক। প্রচলিত আছে, রাজ শাসনামলের সময় এক বহিঃশত্রুর আক্রমণ থেকে দেশকে রক্ষায় লেকটিতে থাকা এক কচ্ছপের শরণাপন্ন হয়েছিলেন তখনকার এক রাজা। কচ্ছপ তাকে একটি বিশেষ ক্ষমতা সম্পন্ন তলোয়ার দেয় যা দিয়ে যুদ্ধ জয় করে দেশকে রক্ষা করেন তিনি।

রাজা যখন তলোয়ারটি কচ্ছপকে ফিরিয়ে দিতে চাইলে কচ্ছপ সেটি আর ফেরত নেয়নি। বরং এই তলোয়ার যতদিন টিকে থাকবে ততদিন ভিয়েতনাম টিকে থাকবে এমন বার্তা দিয়ে লেকের জলে হারিয়ে যায় ওই কচ্ছপ।
সোলায়মান এখানকার এক ট্যুরিস্ট গাইড মিন লো মো বলেন, সাধারণ কচ্ছপ আর এখানকার কচ্ছপের মধ্যে পার্থক্য আছে। হোয়ান কিম লেকের কচ্ছপগুলোর ওপরের খোলস বেশ নরম। সেই ঘটনার কিছুদিন পর ওই কচ্ছপের মরদেহ পাওয়া গেলে লেকের ভেতরে একটি দ্বীপ বানিয়ে মন্দির করে কচ্ছপটির মরদেহ রাখা হয়। এখনো লেকটিতে ওই কচ্ছপ প্রজাতির কচ্ছপ পাওয়া যায়।

সোলায়মান এসবের বাইরেও ওল্ড কোয়ার্টারে ঘুরে দেখার জন্য আছে রোমান ক্যাথলিক চার্চ সেইন্ট জোসেফ ক্যাথেড্রেল, বাচ মা টেম্পল, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নিয়ন্ত্রণাধীন কারাগার হোয়া লো প্রিজন, অপেরা হাউজ ইত্যাদি।
এছাড়াও সোভিয়েতদের নির্মিত ডং জুয়ান মার্কেটও আছে এখানে। অনেকটা নিউ মার্কেটের হকার্স মার্কেটের মতো।
আছে অপেরা হাউজ। আর এসব কিছুই একে অপরের থেকে কমবেশি এক কিলোমিটার দূরত্বের মধ্যে। হাঁটতে কষ্ট হলে খুবই অল্প ভাড়ায় নিতে পারবেন সাইকেল বা বাই সাইকেল।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 210 People

সম্পর্কিত পোস্ট