চট্টগ্রাম বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

নারী শিক্ষা প্রসারে আদর্শ শিক্ষা নিকেতন

৯ মার্চ, ২০২০ | ৩:৪০ পূর্বাহ্ণ

ফারদিন শাহরুক নওশাদ

নারী শিক্ষা প্রসারে আদর্শ শিক্ষা নিকেতন

১৯৮৮ সালে রাবেয়া বসরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় স্থাপিত হয়। হালিশহর এলাকার একমাত্র প্রতিষ্ঠান যা নারী শিক্ষা প্রসারে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। জনাব এ.কে.এম বেলায়েত হোসেন একজন রাজনীতিবিদ, সমাজসেবক ও শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিত্ব। তিনি প্রথমে ১৯৭৯ সালে শাহ্ আমানত শিশু নিকেতন প্রতিষ্ঠা করে। পরবর্তীতে ১৯৮৮ ইং সালে এসে নারী শিক্ষা প্রসারের লক্ষে রাবেয়া বসরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়টি স্থাপন করেন। বিদ্যালয়টি ১৯৯৩ সালে জুলাই মাস থেকে এম.পি.ও ভূক্ত হয়।
বর্তমানে কর্মরত আছেন প্রধান শিক্ষিকা মিসেস খুরশীদ রোকেয়া। ১৯৯৮ সাল থেকে তিনি শিক্ষকতা জীবন শুরু করেন। তিনি ২০১২ সাল মার্চ মাস পর্যন্ত চন্দনাইশের ঐতিহ্যবাহী স্কুল ফতেনগর শরীফুন্নেছা নজির উদ্দিন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক পদে কর্মরত ছিলেন। ১ এপ্রিল ২০১২ সালে থেকে রাবেয়া বসরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সুনামের সহিত প্রধান শিক্ষক এর পদে কর্মরত রয়েছেন।
রাবেয়া বসরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সহকারী প্রধান শিক্ষক হিসেবে আছেন জনাব আ.ন.ম ফরিদ উদ্দিন এবং অত্র বিদ্যালয়ে শিক্ষকগণ হিসেবে আছেন যথাক্রমে নাঈমা বেগম, চানু সাহা, বিপাশা বড়–য়া, শাহীন আক্তার, আব্দুর রহীম, সামিনা আক্তার, আশা বড়–য়া, বাহার হোসেন, খালেদা জাহান, মাকসুদুর রহমান, কামরুন নাহার রীনা, জাহেদা আক্তার এবং মাহফুজুর রহমান। রাবেয়া বসরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় শিক্ষক
কাম- কম্পিউটার অপারেটর হিসেবে আছেন মাহফুজুর রহমান এবং অফিস সহকারী হিসেবে আছেন সুবল কুমার শীল এছাড়াও কর্মচারী ও আয়া হিসেবে আছেন জামাল উদ্দিন, খগেন্দ্র নাথ, নুর জাহান, আকলিমা বেগম ও শিরিন আক্তার।
নিরাপত্তা ব্যবস্থা অবকাঠামোগত ভাবে এই বিদ্যালয়টি অত্যন্ত সুরক্ষিত বালিকা বিদ্যালয়ের জন্য যে নিরাপত্তার প্রয়োজন তার সবটুকু এখানে রয়েছে। কর্র্তৃপক্ষের অনুমতি ব্যতীত স্কুল চলাকালীন সময়ে কোন শিক্ষার্থী বিদ্যালয় ক্যাম্পাসের অনুমতি ছাড়া বাহিরে যাওয়ার সুযোগ নেই। পুরো বিদ্যালয় চত্বর সি.সি. ক্যামেরা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। শিক্ষা কার্যক্রম ও অফিস, কার্যক্রম সম্পূর্ণ ডিজিটালাইজ করা হয়েছে।
বিদ্যালয়ের রয়েছে একটি সুবিশাল লাইব্রেরী যেখানে বই রয়েছে প্রায় ১০ হাজারের অধিক। প্রতিটি শ্রেণির জন্য পৃথক লাইব্রেরী ক্লাসের ব্যবস্থা রয়েছে শিক্ষার্থীরা চাইলে নাম এন্ট্রি দিয়ে বই বাড়িতে ও নিয়ে যেতে পারে। এই লাইব্রেরীতে সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক একটি বঙ্গবন্ধু কর্ণার স্থাপন করা হয়েছে যা অত্যন্ত দৃষ্টি নন্দন।
বিদ্যালয়ের দুই কক্ষ বিশিষ্ট বিজ্ঞানাগার রয়েছে একটি কক্ষে পদার্থ ও উচ্চতর গণিত এবং অন্য কক্ষে জীব বিজ্ঞান, সাধারন বিজ্ঞান ও রসায়ন ব্যবহারিক কাজ দেখানো হয়। ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত ক্লাস এখানে রয়েছে। প্রতিটি শ্রেণিতে পৃথক কোন শাখা রাখা হয়নি ফলে ছাত্রীর সংখ্যা সীমিত।
প্রতি ক্লাসে ৮০- ৯০ জন করে মোট ৪৫০ জন ছাত্রীর আসন ব্যবস্থা রয়েছে। বিদ্যালয়ে কম্পিউটারের ল্যাব এর ব্যবস্থা রয়েছে। প্রতি কøাসে প্রতিটি বিষয়ে প্রজেক্টরের মাধ্যমে মাল্টিমিডিয়া ক্লাস করানো হয়। বিদ্যালয়ের প্রাক্তন অনেক কৃতি শিক্ষার্থী দেশে এবং দেশের বাইরে প্রতিষ্ঠিত হয়ে সুনামের সহিত কাজ করে যাচ্ছেন।
ততমধ্যে ডা. ফারজানা আক্তার, ডা. সাবিনা গাফ্ফার। এরবাইরেও অনেক শিক্ষার্থী দেশের বাইরেও সমানতালে সুনামের সহিত কর্মরত।
রাবেয়া বসরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী ইসরাত জাহান এবং খাদিজা আক্তারকে তাদের ক্যাম্পাস সর্ম্পকে জিজ্ঞাসা করা হলে তারা বলে বিদ্যালয়ের পরিবেশ এবং শিক্ষকম-লীদের পাঠাদান অত্যন্ত সুন্দর এবং ৬ষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী মারজিয়া ইসলাম ও সাইমা আক্তার মীমকে তার বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা সর্ম্পকে জিজ্ঞাসা করলে তারা বলে, আমাদের প্রতিটি কক্ষে সি.সি. ক্যামেরা দ¦ারা নিয়ন্ত্রিত হওয়ায় আমাদের অভিভাবকরা দুঃচিন্তা মুক্ত থাকেন।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 222 People