চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০১ অক্টোবর, ২০২০

সর্বশেষ:

৯ম বাংলা অলিম্পিয়াড

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ১০:৩৯ অপরাহ্ণ

৯ম বাংলা অলিম্পিয়াড

বছর ঘুরে আবারো এসেছে ভাষার মাস ফেব্রæয়ারি। সেই সাথে আবারো এসেছে আন্ত:স্কুল বাংলা অলিম্পিয়াড। ভাষার মাসে দেশের ইংরেজি মাধ্যম স্কুলগুলোকে নিয়ে ৯ম বারের মতো শুরু হয়েছে ৯ম আন্ত:স্কুল বাংলা অলিম্পিয়াড ২০২০।
চট্টগ্রামের পূর্ব নাসিরাবাদে অবস্থিত ইন্টারন্যাশনাল হোপ স্কুল বাংলাদেশ ক্যাম্পাসে আজ ২২ ফেব্রæয়ারি সকাল সাড়ে ৮ টায় ৯ম বাংলা অলিম্পিয়াডের উদ্বোধন হয়েছে। দিনব্যাপী বর্ণিল আয়োজনে চট্টগ্রামের ইংরেজি মাধ্যম ও ইংরেজি ভার্শন স্কুলগুলো বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছে। চট্টগ্রাম বিভাগে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছে ২৭ টি স্কুলের প্রায় ৪ শত জন শিক্ষার্থী।
জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে প্রতিযোগিতার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয় সকাল সাড়ে আটটায়। অনুষ্ঠানের শুরুতই মুজিব বর্ষ এবং বাংলা অলিম্পিয়াড সম্পর্কে আলোকপাত করেন বাংলা অলিম্পিয়াড সমন্বয়ক কামরুল আহসান।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক আজাদী পত্রিকার সম্পাদক এম.এ.মালেক, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, কর্নেল (অবঃ) আবু তাহের মোহাম্মদ সালাউদ্দিন বীর প্রতীক, প্রফেসর এম. আলী আশরাফ, প্রফেসর ডাঃ সেলিম মোহাম্মাদ জাহাঙ্গির, সাংবাদিক নাজিম উদ্দিন শ্যামল, চট্টগ্রাম ক্লাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট মনজুরুল হক। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ইন্টারন্যাশনাল হোপ স্কুল বাংলাদেশের প্রিন্সিপাল রোকসানা জারিন, স্কুলের চেয়ারম্যান ইয়াশার সাভরান।

দিনব্যাপী প্রতিযোগিতার পর বিকালে ছিল পুরস্কার বিতরণী। পুরস্কার পেয়েছে ৮৪ জন প্রতিযোগী।
আবৃত্তি, সঙ্গীত, চিত্রাংকণ, উপস্থিত বক্তৃতা, নৃত্য বাংলা কুইজ ও রচনা-এই সাতটি বিভাগে ৯ম বাংলা অলিম্পিয়াডে শিক্ষার্থীরা প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে।

৯ম বাংলা অলিম্পিয়াড

চট্টগ্রামে প্রতিযোগিতায় বিচারক হিসেবে ছিলেন শহরের বিশিষ্ট লেখক, শিল্পী, শিক্ষাবিদ ও বিশিষ্টজনেরা।
বাংলা অলিম্পিয়াডের সমন্বয়ক কামরুল আহসান বলেন, সারা দেশের শতাধিক ইংলিশ মিডিয়াম ও ইংলিশ ভার্শন স্কুলের অংশগ্রহণে এবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে ৯ম আন্ত:স্কুল বাংলা অলিম্পিয়াড- ২০২০। অন্যান্য বারের তুলনায় এ বছর আরো বড় পরিসরে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ঢাকার পাশাপাশি এবারই প্রথম চট্টগ্রামেও বাংলা অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এবারই প্রথমবারের মতো বাংলা অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে লটারির মাধ্যমে নির্বাচিত তিন জনের জন্য থাকছে স্কুলের সম্পূর্ণ অর্থায়ণে আমেরিকা ভ্রমণের সুবর্ণ সুযোগ।
ইন্টারন্যাশনাল হোপ স্কুল বাংলাদেশের প্রিন্সিপাল রোকসানা জারিন বলেন, বাংলা ভাষা চর্চার এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে পেরে ইন্টারন্যাশনাল হোপ স্কুল বাংলাদেশ আনন্দিত ও গর্বিত। এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে মূলত ইংরেজি মাধ্যম স্কুলগুলো ভাষার মাসে ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করছে। ভাষার মাসে ভাষা নিয়ে ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের অনুষ্ঠানমালায় এটিই দেশের সব চেয়ে বড় আয়োজন।

৯ম বাংলা অলিম্পিয়াড

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 412 People

সম্পর্কিত পোস্ট