চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

৪ মে, ২০১৯ | ১:০৯ পূর্বাহ্ণ

ডা. মোহাম্মদ ওমর ফারুক

অ্যাডভান্স্ড থাইরয়েড কার্সিনোমা : আমাদের অভিজ্ঞতা

ঢাকা পিজি হাসপাতাল নাক কান গলা বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. কামরুল হাসান তরফদার স্যারের আলোচনা শুনলাম স্কাই টাওয়ার হোটেলের ৪২ তলায় অবস্থিত ঈৎুংঃধষ+ঈড়ৎধষ হল কক্ষে। তাঁর আলোচনার বিষয়বস্তু ছিল: অফাধহপবফ ঈধৎপরহড়সধ ড়ভ ঞযুৎড়রফ- ঙঁৎ বীঢ়বৎরবহপব।
এটি একটি অতি স্বাভাবিক থাইরয়েড ক্যান্সার। ক্যান্সারটি থাইরয়েড গ্রন্থি ছাড়াও শরীরের অন্যান্য অঙ্গেও ছড়িয়ে পড়ে। সকল থাইরয়েড ক্যান্সারের ৮০ ভাগ হয়ে থাকে প্যাপিলারী থাইরয়েড ক্যান্সারে। এটি সাধারণত প্রাথমিকভাবে প্রকাশ পায় না। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে গলার সামনে অস্বাভাবিক ফুলা নিয়ে রোগীরা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন। এটি শক্ত অথবা নরমও হতে পারে। এ ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীরা বেশি দিন বাঁচার ইতিহাস আছে। এ ধরণের রোগীদের বাঁচার হার ১০ বছর পর্যন্ত হয়ে থাকে। উপরোক্ত ক্যান্সারের বিস্তৃতি ঘাড়ের মধ্যে হয়ে থাকে ৫০ ভাগ (ঝসধষষ চধঢ়রষষধৎু ঈধৎপরহড়সধ) এবং ৭৫ ভাগ (খধৎমব চধঢ়রষষধৎু ঈধৎপরহড়সধ)। এ ক্যান্সারের দূরবর্তী বিস্তারণ খুবই সীমিত। যদি বিস্তারণ ঘটে তবে তা ফুসফুস, লিভার এবং হাড়ে ছড়িয়ে পড়ে। এ ধরণের ক্যান্সার আশেপাশের মাংসপেশীতেও ঢুকে পড়ে। ৩০ থেকে ৫০ বছর বয়সের মধ্যে এটি সাধারণত হয়ে থাকে। পুরুষদের চেয়ে মহিলাদের ক্ষেত্রে ৩ গুণ বেশি এ ক্যান্সার ধরা পড়ে।
এ ক্যান্সারের আকার আধা ইঞ্চির কম হলে বলা যায় এটি ঝুঁকিমুক্ত। ৫৫ বছরের নীচে হলে এ ক্যান্সারের কম ঝুঁকি থাকে আবার ৫৫ বছরের বেশি হলে ঝুঁকি থাকে বেশি। ৮৫ ভাগ ক্যান্সারের ক্ষেত্রে রেডিয়েশন সংশ্লিষ্টতাকে বেশি দায়ী করা হয়। চধঢ়রষষধৎু ঈধৎপরহড়সধ সাধারণত লসিকা গ্রন্থিতে ছড়িয়ে পড়ে ৫০ ভাগ ক্ষেত্রে। এটির পঁৎব ৎধঃব অত্যন্ত সন্তোষজনক। চধঢ়রষষধৎু ঈধৎপরহড়সধ এর চিকিৎসা হল ঞড়ঃধষ ঞযুৎড়রফবপঃড়সু। কিছু কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, এ ধরনের সার্জারি করতে গিয়ে ২% রোগীর ক্ষেত্রে ¯œায়ুবৈকল্য দেখা দেয়। পরবর্তী পর্যায়ে রেডিওআয়োডিন থেরাপি এবং থাইরয়েড সাপ্লিমেন্ট দেয়া হয় রোগীদের। চধঢ়রষষধৎু ঈধৎপরহড়সধ-এ আক্রান্ত রোগীদের ক্ষেত্রে লসিকা গ্রন্থি রহাড়ষাবসবহঃ থাকলে সেগুলো অপসারণ করতে হয়। প্রফেসর কামরুল স্যার উক্ত ক্যান্সার আমাদের দেশের রোগীদের সাথে কিভাবে আচরণ করে তা উপস্থাপন করেছেন অত্যন্ত সাবলীলভাবে । এতে অস্ট্রেলিয়ার ঝপড়ঃঃ ঈড়সধহ আলোচনা করেন ঞযব গধহধমবসবহঃ ড়ভ ওহাধংরাব ঞযুৎড়রফ ঈধৎপরহড়সধ। স্বাগতিক তাইওয়ানের বিশেষজ্ঞ সার্জন ঈযবহম-চরহম ধিহম আলোচনা করলেন ঝড়হড়মৎধঢ়যু ধষংড় যবষঢ়ং ঃযব ঝঁৎমবড়হ ঃড় ফড় ধ নবঃঃবৎ লড়ন। সন্ধ্যা ৬ টায় পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে আগত থাইরয়েড সার্জনদের সাথে গ্রুপ ফটোসেশনে ব্যস্ত হয়ে পড়লেন সবাই।
পরে এধষধ উরহহবৎ এর আড্ডায় আমরা সবাই। বিভিন্ন স্বাদের, বিভিন্ন পদের, সু-স্বাদু আইটেম দিয়ে আপ্যায়িত করা হয় আমাদের সাবইকে। সামুদ্রিক বিভিন্ন প্রজাতির মাছ, লেটুস পাতা, ব্যতিক্রমী সালাদ এর আয়োজন আয়োজকদের সদিচ্ছার অকৃত্রিম প্রমাণ পাওয়া যায়।
এরই মধ্যে রাশিয়া আগত প্রখ্যাত থাইরয়েড সার্জন চৎড়ভ ওষুধ ঝষবঢ়ঃংড়া এর সাথে করমর্দন। আবার ওদিকে কংগ্রেস প্রেসিডেন্ট ঋবহম-ণঁ ঈযরধহম এর সাথে আমরা বাংলাদেশী ডেলিগেটরা দেখা করি। ৯ ডিসেম্বর ডায়মন্ড-২ হল কক্ষে নির্ধারিত আলোচনা শুনি। প্রফেসর কামরুল হাসান তালুকদার স্যার সহ আমরা ক’জন কংগ্রেস প্রেসিডেন্টের কাছে যাই আমাদের সোসাইটির পক্ষ থেকে গিফট প্রদানের জন্য। অষবীধহফৎরঃব + চবধৎষ হল কক্ষে চলছিল এক দূর্দান্ত আলোচনা। আলোচনার বিষয়বস্তু: চধৎধঃযুৎড়রফ ওহংঁভভরপরবহপু। এটি একটি সুন্দর ও অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ আলোচনা- এতে কোন সন্দেহ নেই। প্যারাথাইরয়েড গ্রন্থিতে উৎপাদন ক্ষমতা কমে যাওয়াকে বুঝায়। এতে করে রক্তে ক্যালসিয়ামের স্বল্পতা দেখা দেয়, ফলে মাংসপেশিতে খিঁচুনি ও ব্যথা শুরু হয়-যাকে বলা হয় ঞবঃধহু।
এটি জন্মগতভাবে হতে পারে অথবা থাইরয়েড ও প্যারাথাইরয়েড সার্জারীর পরেও হয়ে থাকে। রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে ঞবঃধহু নির্ণয় করা সম্ভব। ক্যালসিয়াম গুøকুনেট ইনজেকশন অথবা ভিটামিন ডি প্রদানের মাধ্যমে এ ধরণের রোগ নিরাময় করা সম্ভব। এ ধরণের রোগীদের সারা শরীরে অবশ অনুভূত মনে হয় অথবা মুখমন্ডল, হাত এবং পায়ে এক বিদ্ঘুটে অনুভূতি ও মাংসপেশির অস্বাভাবিক সংকোচন দেখা দেয়। তাছাড়া মাথা ব্যথা, অলসতা, হাড় ব্যথা, অনিদ্রা দেখা দেয়।

লেখক : সভাপতি, রাউজান ক্লাব জুনিয়র কনসালটেন্ট (ইএনটি), জেনারেল হাসপাতাল, রাঙ্গামাটি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 341 People

সম্পর্কিত পোস্ট