চট্টগ্রাম বুধবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২০

৩ মে, ২০১৯ | ১২:৫৭ পূর্বাহ্ণ

মা

‘মা’ শব্দটি অতি আপন ও শ্রুতিমধুর। মাকে ডাকার জন্য ‘মা’ শব্দটিই পারফেক্ট। এটি পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শব্দও বটে। মাকে সম্মান করার জন্য দিবসের প্রয়োজন হয় না। মাকে প্রতিদিন সম্মান করা যায়। সম্মান করিও প্রতিদিন। আমার মায়ের মত আর কেউ নেই। আমার মা আমার প্রতি কতই না ¯েœহপরায়ন! মা অতি কষ্টে দশ মাস দশ দিন (মতান্তরে নয় মাস আট দিন) গর্ভে ধারণ করে নিজের শরীরের রক্তবিন্দু দিয়ে দিনে দিনে আমাকে বড় করে তুলছেন। মাতৃগর্ভ আমার প্রথম আশ্রয়স্থল। ভূমিষ্ঠ হওয়ার পরেও এ মাটির ধরায় মাতৃক্রোড়েই আমার প্রধান আশ্রয়। আমি একটু বড় হলেই মা আমার শিক্ষার জন্য সচেষ্ট হন। সাধ্যমতো আমাকে সুশিক্ষা দিতে বিন্দুমাত্র ত্রুটি করেন নি। বস্তুত আমি আমার জন্ম, শিক্ষা-দীক্ষা সবকিছুর জন্যই মায়ের নিকট ঋণী।
পৃথিবীতে যত ধর্ম প্রচলিত আছে সকল ধর্মেই মাকে বিশেষ মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। আমাদের ধর্মেও মাকে সর্বোচ্চ মর্যাদায় প্রতিষ্ঠিত করা হয়েছে। মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) বলেছেন, “আল জান্নাতু তাহতা আখদামিল উম্মাহাতি”-(মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের বেহেস্ত)। হিন্দু ধর্মেও জননীকে স্বর্গের চেয়েও গরীয়সী বলা হয়েছে। মায়ের ¯েœহের তুলনা বিরল। মায়ের নিকট থেকে যে ¯েœহ লাভ করি, তা স্বতঃস্ফূর্ত ও স্বর্গীয়। পৃথিবীতে আর কারো নিকট থেকে এরূপ নিঃস্বার্থ ভালবাসা আশা করা যায় না। মা সন্তানের প্রতি এতটাই দরদী যে, সন্তান যদি কখনো বিপদে পড়ে তখন মায়ের মন তা বুঝতে পারে।
মায়ের তুল্য শুভাকাক্সক্ষী পৃথিবীতে আর কেউ নেই। তাই পৃথিবীতে সবকিছু ছেড়ে দেওয়া যায়, কিন্তু মাকে ছাড়তে মন চাই না। তাই কখনো মাকে ভালোবেসে গাই, “মা-গো-মা/ ও-গো-মা/আমারে বানাইলি তুই দিওয়ানা/আমি দুনিয়া ছাড়ি/যেতে পারি/ তোমায় আমি ছাড়বো-না/ও-মা/ তোমায় আমি ছাড়বো-না।

আবদুল্লাহ আল ফয়সাল
চট্টগ্রাম।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 299 People

সম্পর্কিত পোস্ট