চট্টগ্রাম রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

করোনাযুদ্ধে জয়ের বিকল্প নেই প্রধানমন্ত্রীর ৩১দফা নির্দেশনা

৪ এপ্রিল, ২০২০ | ১:৫৩ পূর্বাহ্ণ

সম্পাদকীয়

করোনাযুদ্ধে জয়ের বিকল্প নেই প্রধানমন্ত্রীর ৩১দফা নির্দেশনা

কোবিড-১৯ মোকাবিলায় বিশ্বের দেশগুলোতে লকডাউনসহ নানামাত্রিক প্রতিরোধ উদ্যোগ সত্ত্বেও করোনার ছোবল বিস্তৃত হচ্ছে জ্যামিতিক হারে। জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বলেছেন করোনার কারণে সমগ্র মানবজাতিই আজ হুমকির মুখে। তিনি করোনাভাইরাসকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ‘সবচেয়ে বড় সংকট’ বলে অভিহিত করেছেন। করোনায় অকল্পনীয় প্রাণহানির পাশাপাশি অকল্পনীয় অর্থনৈতিক মন্দার ব্যাপারেও তিনি সতর্ক করেছেন। নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দফতরে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের সম্ভাব্য আর্থ-সামাজিক প্রভাব নিয়ে জাতিসংঘের প্রতিবেদন প্রকাশকালে তিনি বলেছেন, এ সংকট এমন বৈশ্বিক মন্দা নিয়ে আসতে পারে, সম্ভবত যার সমান্তরাল নজির সাম্প্রতিক ইতিহাসে নেই। করোনাভাইরাস সমাজগুলোর মর্মমূলে আঘাত হানছে, মানুষের জীবন ও জীবিকা কেড়ে নিচ্ছে। জাতিসংঘ গঠিত হওয়ার পর থেকে কোভিড-১৯ আমাদের সবচেয়ে বড় পরীক্ষার মুখে ফেলেছে। এ অবস্থায় সংক্রমণ রোধ করতে ও মহামারীর ইতি ঘটাতে সম্মিলিত প্রচেষ্টা ও পদক্ষেপের বিকল্প নেই। জাতিসংঘ, বিভিন্ন দেশের সরকার এবং জনগণের সমন্বিত চেষ্টায় কেবল এই মহামারীর গতি রোধ সম্ভব। কিন্তু সরকারের প্রাণপণ প্রচেষ্টা দৃশ্যমান হলেও সচেতনতার অভাব, গোড়ামি, বেপরোয়া মনোভাবসহ নানা কারণে করোনা মোকাবিলায় কাক্সিক্ষত সাফল্য আসছে না। এতে করোনার কমিউনিটি ট্রান্সমিশনে ঝুঁকির পথ প্রশস্ত হচ্ছে। এমন অবস্থা কারো জন্যেই মঙ্গলকর হবে না।
চীনের অভিজ্ঞতার আলোকে সরকার করোনার বিস্তার ঠেকাতে ২৬ মার্চ থেকে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত ১৭দিনে গণছুটিসহ বেশকিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। তবে নাগরিকসাধারণের সচেতনতা, সন্দেহভাজনদের শণাক্ত করে কঠোরভাবে কোয়ারেন্টাইন এবং আক্রান্তদের আইসোলেশন মানতে বাধ্য করার পাশাপাশি চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী এবং যারা করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসাসহ নানাক্ষেত্রে কাজ করছেন তাদের জন্যে পর্যাপ্ত পিপিই’র ব্যবস্থা, করোনা শণাক্তকরণ যন্ত্রপাতি ও সুচিকিৎসার ব্যবস্থার ওপরই করোনা ঠেকাতে সরকারের গৃহীত পদক্ষেপগুলোর সফলতা নির্ভর করছে। সরকারের সুচিন্তিত পদক্ষেপের পাশাপাশি নাগরিকগণ যদি দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেন তাহলে করোনা যুদ্ধে বাংলাদেশ জয়ী হবে। দেশকে করোনা ঝুঁকি থেকে মুক্ত করা গেলে অর্থনৈতিক মন্দা মোকাবিলার পথও মসৃণ হয়ে যাবে। আর যদি বিপরীত আচরণ করা হয়, তাহলে পুরো জাতিকে তার খেসারত দিতে হবে। করোনাবিরোধী যুদ্ধে কারো খামখেয়ালির সুযোগ নেই। এ ক্ষেত্রে সাধারণ নাগরিক, জনপ্রতিনিধি এবং সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সংশ্লিষ্ট সবার উচিত হবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রদত্ত ৩১ দফা নির্দেশনা আমলে নেয়া। ৩১ দফা নির্দেশনায় প্রধানমন্ত্রী করোনাভাইরাস সম্পর্কে চিকিৎসাব্যবস্থা গ্রহণ ও সচেতনতা কার্যক্রম বাস্তবায়ন, চিকিৎসাসংশ্লিষ্ট সবার জন্য পিপিই নিশ্চিত করার পাশাপাশি করোনাচিকিৎসায় ব্যবহৃত পিপিই, মাস্কসহ সব চিকিৎসাসরঞ্জাম জীবাণুমুক্ত রাখা এবং বর্জ্য অপসারণের ক্ষেত্রে বিশেষ সাবধানতা অবলম্বন ও সংশ্লিষ্ট সবার স্বাস্থ্যসুরক্ষায় বিশেষ অগ্রাধিকার প্রদানের কথা বলেছেন। লুকোচুরি না করে করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিলে ডাক্তারের শরণাপন্ন হওয়া, যারা হোম কোয়ারেন্টাইনে বা আইসোলেশনে আছেন তাদের প্রতি মানবিক আচরণ করা, নিয়মিত হাত ধোয়া, মাস্ক ব্যবহার ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে, নদীবেষ্টিত জেলাসমূহে নৌ-এ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করতে, সাধারণ রোগীদের চিকিৎসাসেবা অব্যাহত রাখতে, ত্রাণকাজে কোন ধরনের দুর্নীতি না করতে, খেটে খাওয়া দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে মানবিক সাহায্য দিতে, সোশ্যাল সেফটিনেট কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে, অর্থনৈতিক কর্মকা- যেন স্থবির না হয় সে বিষয়ে যথাযথ নজর দিতে, খাদ্য উৎপাদন ও সরবরাহ ব্যবস্থা বজায় রাখতে, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে, ওয়ার্ডভিত্তিক তালিকা প্রণয়ন করে দুস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণ, গুজব ও অসত্য তথ্য যাতে বিভ্রান্তি ছড়াতে না পারে সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে বলেছেন। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া গণছুটিকালে কাউকে ঘরের বাইরে না যেতেও আহবান জানিয়েছেন।
আমরা মনে করি, প্রধানমন্ত্রীর ৩১দফা নির্দেশনা খুবই সুচিন্তিত ও সময়োপযোগী। এসব নির্দেশনার সুচারু বাস্তবায়ন হলে করোনাযুদ্ধে আমাদের জয়লাভ সহজতর হবে। জনগণসহ সংশ্লিষ্ট সবার উচিত হবে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাগুলো আমলে নিয়ে বাস্তবায়নে যার যার অবস্থান থেকে সর্বোচ্চ ভূমিকা রাখা। মনে রাখতে হবে, করোনাভাইরাসের কারণে আজ আমাদের সবার জীবন এক কঠিন বাস্তবতার মুখোমুখি। প্রতি মুহূর্তেই সংকট ঘনীভূত হচ্ছে। এমন দুঃসময়ে একই চেতনায় সংঘবদ্ধ হয়ে নিজেকে এবং নিজের পরিবারকে, দেশ ও দেশবাসীকে বাঁচাতে ঐক্যবদ্ধ হওয়া, চরম দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেয়া ছাড়া অন্য কোন পথ নেই। সবাই একজোট হয়ে লড়াইয়ে শামিল হলেই কেবল করোনাবিরোধী যুদ্ধে সাফল্য আসবে।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 447 People

সম্পর্কিত পোস্ট