চট্টগ্রাম সোমবার, ২৫ মে, ২০২০

সর্বশেষ:

করোনা মোকাবিলায় প্রস্তুতি বাড়াতে হবে

৭ মার্চ, ২০২০ | ৩:২১ পূর্বাহ্ণ

করোনা মোকাবিলায় প্রস্তুতি বাড়াতে হবে

আন্তর্জাতিক বিশ্বে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব নিয়ে উদ্বেগ বাড়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে। বিশ্ব যেন আতঙ্কে করোনা ভাইরাস মোকাবিলা নিয়ে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রথমত শুরু হয় চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে। সেখানকার আক্রান্ত ব্যক্তিদের সংস্পর্শ থেকে ভাইরাসটি অন্যান্য এলাকায় ও চীনের বাইরে নানা দেশে ছড়িয়ে পড়তে পারে এমনটায় আশঙ্কা ছিল। সেই ধারাবাহিকতায় চীনে আসা-যাওয়ার ওপর নিয়ন্ত্রণ আরোপের উদ্যোগ নেয়া হয়। তা সত্ত্বেও চীনের বাইরে ৩০টি দেশ ও অঞ্চলে এই সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে। ফলে বিশ্বজুড়ে উদ্বেগ বাড়ছে।
বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাস সংক্রমণের খবর পাওয়া যায়নি। এটি স্বস্তির বিষয়,কিন্তু বৈশ্বিক পরিসরে সংক্রমণ বৃদ্ধির যেসব খবর পাওয়া যাচ্ছে তাতে আমাদের নিশ্চিন্ত থাকার সুযোগ নেই। বিশেষ লক্ষণীয় বিষয় হলো করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঘটেছে অধিকতর ঘনবসতিপূর্ণ এলাকাগুলোতে। এমনটা যেমন চীনে তেমনই করোনায় আক্রান্ত অন্যান্য দেশেও। নিউইর্য়ক টাইমস উল্লেখ করেছে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঘটেছে সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ কিছু এলাকায়।

বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি জনঘনত্বের দেশগুলোর অন্যতম। এ দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঘটলে তা এক বিরাট জাতীয় বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে, যা আমরা কোনোভাবেই চাই না। সে কারণে আমাদের সর্বোচ্চ সতর্কতা ও প্রস্তুতি এখনই নিতে হবে। সরকার এ বিষয়ে সচেতন আছে। বিদেশফেরত সব যাত্রীর বিমানবন্দরে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও স্বাস্থ্য ফরম পূরণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। একান্ত প্রয়োজন ছাড়া বিদেশ সফরে না যাওয়ার পরামর্শ প্রচার করা হয়েছে। হাসপাতালগুলোতে করোনা ভাইরাস শনাক্ত করাসহ সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা প্রয়োজন। সবার মাঝে জনসচেতনতা বাড়ানোর উদ্যোগ জোরদার করতে হবে। প্রতিটি মানুষকে সতর্ক থাকতে হবে। পরিবারের কোনো সদস্যের মধ্যে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের লক্ষণ প্রকাশ পাওয়ামাত্র তাকে হাসপাতালে নিতে হবে।

করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি মোকাবিলার জন্য সরকারি পর্যায়ের সতর্কতা ও প্রস্তুতির পাশাপাশি ব্যক্তিগত, পারিবারিক ও প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়েও সচেতনতা ও সতর্কতা প্রয়োজন। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কর্মক্ষেত্রগুলোতে সচেতনতা বাড়ানোর বিশেষ পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন। রাষ্ট্রীয় ও বেসরকারি গণমাধ্যমে সচেতনতামূলক প্রচারণা আরও বাড়াতে হবে। সবার আন্তরিকতা, সহযোগিতা ও সচেতনতাই পারে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে বাঁচাতে।

মো. রাশিদুল ইসলাম
কুষ্টিয়া।

The Post Viewed By: 98 People

সম্পর্কিত পোস্ট