চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০

কালুরঘাট সেতুর প্রত্যাশায় জনগণ আমাকে ভোট দিয়েছে

২১ জানুয়ারি, ২০২০ | ৫:৩৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা হ বোয়ালখালী

শপথ নিয়েই সংসদে মোছলেম উদ্দিন

কালুরঘাট সেতুর প্রত্যাশায় জনগণ আমাকে ভোট দিয়েছে

চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী-চান্দগাঁও,পাঁচলাইশ) আসনে উপনির্বাচনে বিজয়ী দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েছেন। গতকাল সোমবার বিকেল ৩টায় জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সংসদ ভবনে তাঁকে শপথ বাক্য পাঠ করান। সংসদের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান শপথ অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী, হুইপ মাহবুব আরা বেগম, সামশুল হক চৌধুরী, ইকবালুর রহিম, এ বি তাজুল ইসলাম এমপি, মোস্তাফিজুর রহমান এমপি, ড. আবু রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী এমপি, ওয়াসিকা আয়শা খান এমপি, খালেদা খানম এমপি, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন, বোয়ালখালী উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল আলম, সাবেক কাউন্সিলর আবু তাহেরসহ জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা।

শপথ গ্রহণের পর চলমান সংসদ অধিবেশনে যোগদান করেন নবনির্বাচিত সাংসদ মোছলেম উদ্দিন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করে বক্তব্য শুরু করেন তিনি। আ. লীগের মনোনয়ন দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি সংসদে বলেন, সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সারাদেশে যে ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন, বিশেষ করে চট্টগ্রামে ব্যাপক কাজ হয়েছে। সেজন্য মানুষ আমাকে ভোট দিয়েছেন। এজন্য আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া আদায় করছি। তিনি প্রধানমন্ত্রীসহ সংসদীয় এলাকার সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।
তিনি বলেন, ৫৫ বছর রাজনৈতিক জীবনে শেষ পর্যায়ে এসে জাতীয় সংসদে আসার সুযোগ হয়েছে। ‘মানুষ যে প্রত্যাশা নিয়ে আমাকে সংসদে পাঠিয়েছেন, আমি যেন সেই প্রত্যাশা পূরণ করতে পারি। ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে স্বপ্ন নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন, আমি যেন বঙ্গবন্ধু প্রেমিক হিসেবে সফলভাবে কাজ করতে পারি।’

সংসদে প্রথম দিনেই কালুরঘাট সেতু নির্মাণের দাবি তুলে ধরেন তিনি। মোছলেম উদ্দিন বলেন, ‘এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দুঃখ, বোয়ালখালী-রাঙ্গুনীয়া-পটিয়াসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামবাসীর দীর্ঘদিনের অবহেলা কালুরঘাটের জরাজীর্ণ সেতু। এই সেতু অতিক্রম করতে গিয়ে অনেকের জীবন শেষ হয়ে গেছে। এই সেতুর প্রত্যাশায় জনগণ আমাকে ভোট দিয়েছেন।’

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ২০১০ সালে দ্বিতীয় কর্ণফুলী সেতু উদ্বোধন করার সময় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় জননেতা মরহুম আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু, আমি এবং অন্যরা কালুরঘাট সেতু নির্মাণের দাবি জানিয়েছিলেন। সেখানেই জাতির জনকের কন্যা কালুরঘাটে একটি নুতন সেতু নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। এ প্রত্যাশা পূরণের জন্য আজকে মানুষ আমাকে ভোট দিয়েছেন। আমি আশা করব, আগামী এক বছরের মধ্যে কালুরঘাট রেল সেতুর পাশাপাশি আর একটি সড়ক সেতুর নির্মাণ কাজ দৃশ্যমান হয়। এছাড়াও বোয়ালখালীতে শিল্পাঞ্চল ও অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রধানমন্ত্রীর হাত দিয়ে বাস্তবায়ন হবে। এতে এলাকার বেকার সমস্যা দূর হবে এবং আমাদের এলাকা অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ হবে।

সংসদ অধিবেশনে চট্টগ্রাম-৮ সংসদীয় আসনের নগরীর ৫টি ওয়ার্ডের উন্নয়নের জন্য সিটি কর্পোরেশন, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের কাছে প্রত্যাশা করেন।

The Post Viewed By: 165 People

সম্পর্কিত পোস্ট