চট্টগ্রাম বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ বিধবার পাওনা নিয়ে নয়-ছয়ের চেষ্টা

১০ জানুয়ারি, ২০২০ | ৩:৩৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, সীতাকু-

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ বিধবার পাওনা নিয়ে নয়-ছয়ের চেষ্টা

সীতাকু-ে এক বিধবা মহিলার বসত ভিটা গ্যাস লাইন সঞ্চালনের জন্য অধিগ্রহণ করা হলেও তাকে ভূমি অধিগ্রহণের টাকা দেয়া হচ্ছে না। রহস্যজনক কারণে চট্টগ্রাম এল.এ শাখার দায়িত্বরত কর্মকর্তারা এই জায়গার ক্ষতিপূরণের টাকা অন্য এক ব্যক্তিকে প্রদান করতে চাইছে। এমনকি তাকে একটি চেকও প্রদান করা হয়। যদিও ভুক্তভোগীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে পরে চেকটি ফেরত নেয় সংশ্লিষ্টরা। তবে প্রকৃত মালিক তার প্রাপ্য পাচ্ছে না।

সীতাকু- প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ৮ জানুয়ারি এমন অভিযোগ করেন সীতাকু-ের উত্তর সলিমপুর গ্রামের মৃত মুন্সী মিয়ার স্ত্রী সালেহা বেগম। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সালেহা বেগম বলেন, সীতাকু-ের উত্তর সলিমপুর এলাকায় তাদের খরিদা ভিটিতে বসতঘর নির্মাণ করে ছেলেমেয়েকে নিয়ে দীর্ঘ ৪০ বছরের অধিককাল বসবাস করছেন। সম্প্রতি গ্যাস লাইন সঞ্চালনার জন্য চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের আত্ততাধীন এল এ শাখার মামলা নং-০৭/১৭-১৮ ইং মূলে তার খরিদা ও দখলী ভিটি হুকুমদখল ও অবকাঠামোর ক্ষতিপূরণের নোটিশ প্রদান করেন। নোটিশ পরবর্তীতে সার্ভেয়ার সরেজমিন তদন্তের পর তাদের অবকাঠামোর ক্ষতিপূরণ প্রদান করলেও স্থানীয় ভূমিদস্যু আজম পাশার চক্রান্তে তাদের খরিদা জায়গার ক্ষতিপূরণ প্রদানে গড়িমসি করছে। একপর্যায়ে আজম পাশা এল এ শাখার তৎকালীন এক সার্ভেয়ারের সাথে হাত মিলিয়ে গোপনে তাদের ভিটির ক্ষতিপূরণের চেক উত্তোলন করে নেয়। একথা জানতে পেরে সালেহা বেগমের পক্ষে অভিযোগ করলে তা আবার ফেরৎ দিতে বাধ্য হয় আজম পাশা। বর্তমানে উক্ত অধিগ্রহণের টাকা নয়ছয় করে আত্মসাৎ করতে মরিয়া আজম পাশা চক্রটি। তিনি তার ন্যায্য পাওনা প্রদানের দাবি জানান। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, বিধবার ছেলে মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন, সালাহ উদ্দিন ও আকবর আলী।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 69 People

সম্পর্কিত পোস্ট