চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

ট্রাকচাপায় প্রাইভেটকারের দুই যাত্রী ও ভিক্ষুক নিহত

৯ জানুয়ারি, ২০২০ | ৫:১৪ পূর্বাহ্ণ

সৌমিত্র চক্রবর্তী হ সীতাকু-

ট্রাকচাপায় প্রাইভেটকারের দুই যাত্রী ও ভিক্ষুক নিহত

সীতাকু-ে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনা ক্ষুব্ধ এলাকাবাসীর ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ, তীব্র যানজট

সীতাকু-ে পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় একজন নারীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এসব ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ২জন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে এলাকাবাসী প্রায় এক ঘণ্টা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ব্যারিকেড দিয়ে রাখলে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেন।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল বুধবার রাত আনুমানিক ৯টার দিকে উপজেলাধীন মহাসড়কের ছোটকুমিরা গুল আহমদ জুট মিলস এলাকায় ঢাকামুখী একটি প্রাইভেট কারের সামনে হঠাৎ একটি শিশু এসে পড়ায় কারচালক তাকে বাঁচাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে কারটি আইল্যান্ড টপকে চট্টগ্রামমুখী রোডে দ্রুতগামী একটি ট্রাকের সামনে এসে পড়ে। এতে ট্রাকটি কারটির উপরে উঠে গেলে সেটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। কারের ৪ যাত্রী গুরুতর আহত হন। তাদেরকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে সীতাকু- হাসপাতালে নিয়ে গেলে মেজবা (৩৫) নামক এক কার যাত্রী মারা যান। পরে অন্য তিন যাত্রীকে চমেক হাসপাতালে নিয়ে যাবার পথে আব্দুল্লাহ (৩৫) নামক আরো একজন যাত্রী নিহত হন। কুমিরা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক মো. সাইদুর ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, একটি শিশুকে বাঁচাতে গিয়ে কারচালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ঢাকামুখী রোড থেকে চট্টগ্রামমুখী সড়কে এসে ট্রাকের সামনে পড়ায় এ ঘটনা ঘটেছে।

অন্যদিকে রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার সলিমপুর ফকিরহাট আরমান হোটেলের সামনে এক ভিক্ষুক মহিলা একটি শিশুকে নিয়ে মহাসড়ক পারাপারের সময় চট্টগ্রামমুখী সড়কে দ্রুতগামী লরি তাদেরকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই ভিক্ষুক মহিলাটির মাথা চুরমার হয়ে মারা যান। এছাড়া তার সাথে থাকা শিশুটি পায়ে গুরুতর আহত হলে স্থানীয়রা তাকে হাসপাতালে প্রেরণ করেন। ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী দুর্ঘটনার প্রতিবাদে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে। রাত সাড়ে ১০টা থেকে প্রায় সাড়ে ১১টা পর্যন্ত দীর্ঘ এক ঘণ্টার অবরোধে মহাসড়কে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। এসময় ফৌজদারহাট পুলিশ ফাঁড়ি, বারআউলিয়া হাইওয়ে থানার পুলিশসহ বিভিন্ন ফোর্স গিয়ে এলাকাবাসীকে পরিস্থিতি বুঝিয়ে শান্ত করলে সাড়ে ১১টায় যানজট স্বাভাবিক হয়। ফৌজদারহাট ট্রাফিক কার্যালয়ের ইনচার্জ (টি.আই) রফিক আহমেদ মজুমদার বলেন নিহত মহিলাটি একজন ভিক্ষুক। তাকে আমরা প্রতিদিন ভিক্ষা করতে দেখি, আজও দেখেছি। কিন্তু তার নাম জানি না। তিনি বলেন দুর্ঘটনার পর স্থানীয়রা মহাসড়ক অবরোধ করলে যানজট হয়। পরে আমরা সবাই মিলে এলাকাবাসীকে বুঝিয়ে শান্ত করলে অবরোধ উঠে যায়।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 233 People

সম্পর্কিত পোস্ট