চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

দিন-দুপুরে ব্যবসায়ীকে হত্যার চেষ্টা ফটিকছড়িতে

৯ জানুয়ারি, ২০২০ | ৪:৩১ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, নাজিরহাট

পুলিশকে মাদক ব্যবসার তথ্য দেয়ার জের

দিন-দুপুরে ব্যবসায়ীকে হত্যার চেষ্টা ফটিকছড়িতে

পুলিশকে মাদক ব্যবসার তথ্য দেয়ার অভিযোগে ফটিকছড়ির নানুপুরে মো. মফিজ আলী (৪০) নামে এক ব্যবসায়ীকে গুলি করে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম মো. লোকমান। তিনি নানুপুর ইউনিয়নের ঢালকাটা গ্রামের নোয়াজীর বাড়ির মো. ইসহাকের পুত্র। লোকমান ইতিপূর্বে মাদক মামলায় জেল খাটেন এবং তার বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মাদক মামলা রয়েছে বলেও জানা যায়।

এ ঘটনায় গত ৩ জানুয়ারি (শুক্রবার) রাতে একই ইউনিয়নের মঙ্গলচাঁদ বাড়ির মো. মনির আহমদ সওদাগরের ছেলে নানুপুর বাজারের ব্যবসায়ী মো. মফিজ আলী বাদি হয়ে ফটিকছড়ি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহারে ঘটনার বিবরণ দিয়ে উল্লেখ করা হয়, ২০১৮ সালে অভিযুক্ত লোকমানের বিরুদ্ধে পুলিশকে নানুপুরে মাদক ব্যবসার তথ্য দেয়ার জের ধরে ক্ষেপে উঠে অভিযুক্ত লোকমান। সেইসূত্রে ৩ জানুয়ারি (শুক্রবার) দুপুরে ইউনিয়নের ঢালকাটা গ্রামের হাজি ওমদা মিয়া চেয়ারম্যান মঞ্জিলের সামনে মামলার ১ নং বিবাদি লোকমান সদলবলে অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ব্যবসায়ী মফিজের পথরোধ করে গালিগালাজ করে। একপর্যায়ে অস্ত্র বের করে মফিজকে প্রাণনাশেরও চেষ্টা করা হয় বলে মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। এ সময় তিনি (মফিজ) প্রাণ বাঁচানোর জন্য পালিয়ে পার্শ্ববর্তী প্রতিবেশি হাসান আলীর বাড়ির সীমানা প্রাচীরের ভেতরে আশ্রয় নেয়। পরে স্থানীয়রা ছুটে আসলে লোকমান ও সাঙ্গপাঙ্গরা পালিয়ে যায়।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী নানুপুর বাজারের আরেক ব্যবসায়ী হাসান আলী বলেন, ‘মাদক ব্যবসায়ী লোকমান সদলবলে মফিজের ওপর অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে হামলা করে। তার প্রাণনাশের উদ্দেশ্য আমার চোখের সামনে গুলি চালায়। মফিজ আমাদের ঘরে আশ্রয় নিলে কোনরকম প্রাণে বাঁচে।’
মামলার বাদি মফিজ বলেন, ‘পুলিশকে ২০১৮ সালে মাদক ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসী লোকমানের ব্যাপারে তথ্য দেয়ার জের ধরে জেল থেকে বেরিয়ে এসে সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে আমাকে হত্যার চেষ্টা করে। আমি জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। থানায় মামলা দায়ের করেছি। আমি বাঁচতে চাই।’
এ ব্যাপারে শুক্রবার রাতে ফটিকছড়ি থানার এসআই জামাল মোল্লা বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 114 People

সম্পর্কিত পোস্ট