চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট, ২০২০

সর্বশেষ:

মানুষের ক্ষোভ ক্রমশ বাড়ছে

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ৪:৪৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

মানুষের ক্ষোভ ক্রমশ বাড়ছে

বহদ্দারহাট মোড়ে সড়কের একপাশে কালভার্টে আন্ডারক্রসিং পাইপলাইন বসানোর কাজ শেষ করেছে ওয়াসা। এর আগে বহদ্দারহাট ফ্লাইওভারের র‌্যাম্প নির্মাণের জন্য বন্ধ ছিল সড়কটি। পরবর্তীতে সড়কটির সংস্কার কাজ না করায় গত তিন বছর ধরে বন্ধ সড়কের একপাশ। এতে দুর্ভোগের সীমা নেই যাত্রীদের।

যাত্রীরা অভিযোগ করে বলেন, প্রায় দেড় বছর সড়কের একপাশ বন্ধ করে বহদ্দারহাট ফ্লাইওভারের র‌্যাম্প নির্মাণ করে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (চউক)। ২০১৭ সালে ডিসেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে নবনির্মিত র‌্যাম্পটি খুলে দেয় ।
এর ১৫ দিনের ব্যবধানে মোড়ে কালভার্টে আন্ডারক্রসিং পাইপলাইন বসাতে পুনরায় সড়কটি বন্ধ করে দেয় ওয়াসা। সংস্থাটি সময় নিয়েছিল দেড় মাস। কিন্তু ওই দেড় মাসের স্থলে দুই বছর অতিবাহিত হলেও সড়কটি খুলে দিতে পারেনি চসিক। অথচ বছর খানেক আগে কালভার্টে আন্ডারক্রসিং পাইপলাইন বসানোর কাজ শেষ করে ওয়াসা।

ফলে প্রায় তিন বছর ধরে দুর্ভোগের মধ্যে যাতায়াত করছেন আরাকান সড়কের যাত্রীরা।

স্থানীয় লোকজন অভিযোগ করে বলেন, মদুনাঘাট পানি সরবরাহ প্রকল্পের অধীনে বহদ্দারহাট মোড়ে কালভার্টে আন্ডারক্রসিং পাইপলাইন বসাতে খোঁড়াখুঁড়ি করে ওয়াসার ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ‘চায়না পেট্রোলিয়াম পাইপলাইন ব্যুরো’এর লোকজন। ঠিকাদারের লোকজন ৫দিন খোঁড়াখুঁড়ি করলে আবার ১৫-২০ দিন বন্ধ থাকে। এভাবে প্রায় দুই বছর কাজ করছে ওয়াসার ঠিকাদার। ফলে যাত্রীরা তিন বছর ধরে দুর্ভোগের শিকার হয়ে আসছেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানা গেছে, ৭১ কোটি টাকা ব্যয়ে আরাকান সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ করছে চসিক। কিন্তু এ প্রকল্পে দীর্ঘদিন ধরে অনেকটা পরিত্যক্ত হয়ে পড়ে থাকা বহদ্দারহাট মোড়ে সড়কের একপাশ উন্নয়ন কাজে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। ফলে সংস্কার কাজে আরো দীর্ঘসূত্রিতা বাড়ে। তবে এটি সংস্কারের জন্য চসিক অবশেষে একটি প্রকল্প গ্রহণ করলেও তার কাজ চলছে ধীর গতিতে। ফলে এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্রমশ ক্ষোভ বাড়ছে।

The Post Viewed By: 157 People

সম্পর্কিত পোস্ট