চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৭ আগস্ট, ২০২০

সর্বশেষ:

ফার্নিচার আমদানি কমিয়ে রপ্তানি বাড়াতে হবে

১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ৬:০০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রাম ফার্নিচার মেলার উদ্বোধনীতে সিটি মেয়র

ফার্নিচার আমদানি কমিয়ে রপ্তানি বাড়াতে হবে

সময় ও চাহিদাকে সামনে নিয়ে ফার্নিচার শিল্প দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে উল্লেখ করে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, ফার্নিচার সামগ্রীর মান ও টেকসই আরও উন্নত এবং পরিবর্তন আনতে হবে। ফার্নিচার আমদানি কমিয়ে রপ্তানির পরিমাণ বাড়াতে হবে। তাহলে ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ বাড়বে। তিনি বলেন, নিত্যনতুন ডিজাইনে ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী ফার্নিচার শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো এখন পণ্য তৈরি করছে। বাংলাদেশের মানুষের দৈনন্দিন জীবিকা বদলে গেছে। এ দিন বদলের ক্রান্তিলগ্নে বাঙালি সমাজ একটি সুন্দর আগামীর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করছে। দেশের তৈরি ফার্নিচারগুলো এখন বিদেশেও রপ্তানি হচ্ছে। এটা খুবই আনন্দের। তবে এ ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে হলে ডিজাইনের পাশাপাশি পণ্যের গুণগত মান নিয়ন্ত্রণে টেকসই পণ্য উৎপাদনে জোর দিতে হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর জিইসি কনভেনশন হলে বাংলাদেশ ফার্নিচার শিল্প মালিক সমিতি চট্টগ্রাম বিভাগ আয়োজিত ১১তম

চট্টগ্রাম ফার্নিচার মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মেয়র বলেন, আপনারা বৈপ্ল­বিক পরিবর্তন সাধন করেছেন। আপনারা ডিজাইনের পরিবর্তন এনেছেন। আগে মানুষ বিদেশ থেকে ফার্নিচার আনতো। এখন আপনাদের থেকে ফার্নিচার নিচ্ছে। এই মার্কেট আপনারা দখল করে রেখেছেন। আপনারা আমদানি কমিয়ে রপ্তানি বাড়িয়ে দেন।

বাংলাদেশ ফার্নিচার শিল্প মালিক সমিতি চট্টগ্রাম বিভাগের সভাপতি সৈয়দ এ এস এম নুর উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেটের কমিশনার মোহাম্মদ এনামুল হক ও ফার্নিচার শিল্প মালিক সমিতি কেন্দ্রীয় মহাসচিব ইলিয়াছ সরকার।
বিশেষ অতিথি এনামুল হক বলেন, কাস্টমস ভ্যাটে ১৩ ডিজিটের নিবন্ধন চালু হয়েছে কিন্তু চট্টগ্রামের অনেক ফার্নিচার ব্যবসায়ী এখনো নিবন্ধন করেননি। নিবন্ধন না হলে আমরা কোনো সহযোগিতা করতে পারবো না। আগে ১০ বছরে যে পরিমাণ ফার্নিচার আমদানি হতো তা গেল এক বছরে ১ শতাংশ কমে এসেছে। আমি ফার্নিচার ব্যবসায়িদের দায়িত্ব নিবো যখন আপনারা আমার ঘরের ভিতের থাকছেন। আপনারা নিবন্ধিত হলে কাস্টমস ভ্যাটের সকল সুযোগ সুবিধা পাবেন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ভাইস চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল আউয়াল, চট্টগ্রাম বিভাগের সাধারণ সম্পাদক ও মেলা কমিটির আহ্বায়ক মো. মাকসুদুর রহমান। উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি মো. নুরুল আলম, মো. নাছের, সৈয়দ আইএম ইফতেখার উদ্দিন, মো. সাইফুদ্দিন চৌধুরী দুলাল, মো. আল ইকবাল। উল্লেখ, গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া ছয় দিনব্যপী এ মেলা চলবে আগামী ১৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল দশটা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত চলা এ মেলার প্রবেশ মূল্য রাখা হয়েছে দশ টাকা।

The Post Viewed By: 173 People

সম্পর্কিত পোস্ট