চট্টগ্রাম বুধবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২০

৭ মে, ২০১৯ | ১২:১৩ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

আকবরশাহ থেকে অস্ত্রসহ এজাহারভুক্ত আসামি গ্রেপ্তার

নগরীর আকবরশাহ থানাধীন শাপলা আবাসিক এলাকা থেকে অস্ত্রসহ মো. হারুন প্রকাশ হারুন টেইলার (৩৫) নামের এজাহারভুক্ত এক আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। আজ মঙ্গলবার (৭ মে) গ্রেপ্তারের সময় হারুনের কাছ থেকে দেশীয় তৈরি একটি বন্দুকসহ ৪টি অস্ত্র, ৩ রাউন্ড গুলি ও ২টি কিরিচ উদ্ধার করা হয়।

গোয়েন্দা পুলিশের উপ কমিশনার (উত্তর) মিজানুর রহমান জানান, গ্রেপ্তার হওয়া হারুন শাপলা আবাসিক এলাকার ফছি আলমের ছেলে। তাকে মুজিবনগর বড়টেক পাহাড় থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আটকের পর তার নানা কীর্তির কথা জানিয়েছেন পুলিশের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা ।

নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (উত্তর) মির্জা সায়েম মাহমুদ জানান, শাপলা আবাসিক এলাকার বড় টেক পাহাড়ে আস্তানা করে চাঁদাবাজিসহ নানা সন্ত্রাসী কার্যকলাপ চালিয়ে আসছে হারুণ ও তার সহযোগীরা। বিভিন্নজনের কাছ থেকে চাঁদাবাজির অভিযোগ পেয়ে সোমবার গভীর রাতে বড় টেক পাহাড়ে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অভিযানে থাকা নগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক মো. ইলিয়াস খান জানান, অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে পাহাড়ী এলাকায় নানা ধরনের অপরাধ কার্যক্রম করে বেড়ায় সে। ২০১৬ সালের নভেম্বরে অস্ত্রসহ হারুণকে গ্রেপ্তার করেছিল নগর গোয়েন্দা পুলিশ। দেড় বছর জেল খেটে ২০১৮ সালের মে মাসে  জামিনে বেরিয়ে আসে সে। এরপর সাহাবউদ্দিন, মিলন এবং সুমনসহ আরও কয়েকজন মিলে একটি বাহিনী গড়ে তোলে।

তিনি আরও বলেন, বড়টেক পাহাড়ের আশপাশের এলাকায় ব্যক্তিমালিকানাধীন পাহাড় ছাড়াও বেশকিছু সরকারি খাস জায়গা আছে। এসব জায়গায় গত কয়েক বছর ধরে প্লট তৈরি করে আবাসিক এলাকা গড়ে উঠছে। মূলত এই জমি কেনাবেচার নিয়ন্ত্রণ নিতেই একটি সশস্ত্র বাহিনী গড়ে তোলে হারুন।

মুজিবনগর, শাপলা আবাসিক এলাকা, বড়টেক পাহাড় এলাকায় জমি বেচাকেনায় হারুণের বাহিনীকে চাঁদা দিতে হয়। আবার কেনাবেচা করা সে জমির দখল নিতেও টাকা দিতে হয় হারুণকে।

এদিকে হারুণের  প্রধান দুই সহযোগী সাহাবুদ্দিন ও মিলনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে বলে পুলিশ জানিয়েছে ।

 

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 208 People

সম্পর্কিত পোস্ট