চট্টগ্রাম রবিবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

৬ মে, ২০১৯ | ২:৪৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা , সাতকানিয়া

কোটি টাকা মুক্তিপণ দাবি, অপহরণের ২ ঘণ্টা পর ছেলেকে মুক্তি

অস্ত্রের মুখে পিতা-পুত্রকে অপহরণ সাতকানিয়ায়

খোঁজ মিলেনি ব্যবসায়ীর ষ ১০ রাউন্ড কার্তুজের গুলি উদ্ধার

সাতকানিয়ার সোনাকানিয়া বোর্ড অফিস এলাকা থেকে এক ব্যবসায়ীকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে অপহরণের পর ১ কোটি টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছে অপহরণকারীরা। গত শনিবার রাত পৌনে ১১টার দিকে কাপড়ের দোকানের ব্যবসায়ী মোস্তাক আহমদ সওদাগরকে (৪৫) মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি যাওয়ার পথে অপহরণ করা হয়। অপহরণকারীরা এ সময় ব্যবসায়ী মোস্তাকের সাথে থাকা তার ছেলে আকিব উল্লাহকে (১৪) অপহরণ করলেও প্রায় ২ ঘণ্টা পর তাকে ছেড়ে দেয়। গতকাল রবিবার বিকালে সাতকানিয়া থানায় অজ্ঞাতনামা আসামি করে একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়। অপহৃত ব্যবসায়ীর শ্যালক এ অভিযোগের বাদি। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ১০ রাউন্ড কার্তুজের গুলি ও একটি রেইনকোট উদ্ধার করে। অপহৃত ব্যবসায়ী সোনাকানিয়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড জমাদার পাড়ার ইসমাইল সওদাগর বাড়ির মৃত আঙ্গা মিয়ার ছেলে।
বাদি রেজাউল করিম (৩০) বলেন, ‘আমার দুলাভাইয়ের সোনাকানিয়া ইউনিয়নের মির্জাখীল বাংলাবাজার এলাকায় ভাই ভাই শপিং মল ও ভাই ভাই ক্লথ স্টোর নামে দুটি কাপড়ের দোকান রয়েছে। গত শনিবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে দোকান বন্ধ করে মোটর সাইকেল যোগে আমার বড় ভাগিনা আকিব উল্লাহকে সাথে নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। মোটর সাইকেলটি সোনাকানিয়া বোর্ড অফিসের উত্তর পার্শ্বে তাঁতী পাড়া সড়কের ইমাম উদ্দিন টেকে পৌঁছলে ৭/৮ জন মুখোশ পরিহিত অস্ত্রে সজ্জিত লোক সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মুখোশ পরিয়ে তারা বাবা ও ছেলেকে অপহরণ করে। পরে সড়কের পূর্ব পার্শ্বস্থ বিলে হাঁটিয়ে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। তবে দুলাভাইয়ের ব্যবহৃত মোটর সাইকেল ও ২টি মোবাইল ফোন ফেলে চলে যায়। পরে মির্জাখীল বাংলা বাজারের আবদুল মোমেন নামে এক ব্যবসায়ী তার বাড়ি যাওয়ার পথে দুলাভাইয়ের মোটর সাইকেলটি চিনতে পেরে আমার ছোট ভাইকে খবর দিলে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছাই।’
অপহৃতের ছেলে ও সোনাকানিয়া মির্জাখীল উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র আকিব উল্লাহ (১৪) জানায়, ‘অপহরণকারীরা আমার বাবা ও আমাকে মুখোশ পরিয়ে বিলে হাঁটিয়ে অপরিচিত স্থানে নিয়ে যায়। পরে তারা বাবাকে রেখে দিয়ে প্রায় ২ ঘণ্টা পর আমাকে ছিদ্দিকীয়া মহিলা মাদ্রাসার উত্তর পার্শ্বে সড়কের উপর ছেড়ে দেয়। এসময় অপহরণকারীরা বলে, এই স্থান থেকে তুই ১০ মিনিট পর বাড়ি চলে যাবি। তোর মাকে ঘরে গিয়ে বলবি ১ কোটি টাকা দিলে তোর বাবাকে ছেড়ে দেয়া হবে। না হয় মেরে ফেলা হবে। কাল সকালে তোর মাকে ফোন করব বলে অপহরণকারীরা চলে যায়।’
সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সফিউল কবীর বলেন, অপহরণের ঘটনাটি সত্য। খবর পেয়ে ঘটনার দিন রাতে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে একটি রেইন কোর্টের প্যাকেট থেকে ১০ রাউন্ড কার্তুজের গুলি উদ্ধার করে। এছাড়া ঘটনাস্থলের আশপাশ এলাকায় অভিযান চালানো হয়। এ ঘটনায় অপহৃতের শ্যালক রেজাউল করিম বাদি হয়ে আজ (রবিবার) বিকালে অজ্ঞাতনামা আসামি করে থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। অপহৃত ব্যবসায়ীকে উদ্ধার ও অপহরণকারীদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 642 People

সম্পর্কিত পোস্ট