চট্টগ্রাম বুধবার, ০২ ডিসেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

৫ মে, ২০১৯ | ২:২৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, সীতাকু-

বন বিভাগ ও বেলার পৃথক মামলা

সীতাকু-ের সলিমপুরে বিবিসি স্টিল শিপইয়ার্ডের লিজ বাতিল দাবি

সীতাকু-ের সলিমপুর সাগর উপকূলে বনের জায়গায় বিবিসি স্টিল শিপব্রেকিং ইয়ার্ডকে দেয়া লিজ চ্যালেঞ্জ করে তা বাতিল চেয়ে দুটি মামলা দায়ের হয়েছে।
গত সোমবার এ বিষয়ে মামলা দায়ের করেছে উপকূলীয় বন বিভাগ এবং রবিবার একই বিষয়ে হাইকোর্ট রিট পিটিশন দায়ের করেছে পরিবেশ আইনবিদ সমিতি বেলা। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সীতাকু-ের উত্তর সলিমপুর সাগর উপকূলীয় বনে বিবিসি স্টিল নামক একটি প্রতিষ্ঠান জাহাজ ভাঙা উঠোন নির্মাণ করতে শুরু করেছে। সেখানে ইতিমধ্যে কিছু কিছু গাছ কেটে ও ভূমি পরিবর্তনের মাধ্যমে ইয়ার্ড নির্মাণ শুরু হয়েছে। বনের ভেতর দিয়ে তৈরি করা হয়েছে দুটি রাস্তা ও শিপইয়ার্ডের হুইন্স মেশিন স্থাপনের কাজ চলছে। বিবিসি স্টিলের মালিক আবুল কাসেম প্রকাশ রাজা কাসেমকে উক্ত এলাকায় ৭.১০ একর জায়গা বালুচর উল্লেখ করে গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে লিজ প্রদান করা হয়। উপকূলীয় ম্যানগ্রোভ অরণ্যের হাজার হাজার গাছের বাগানকে বালুচর উল্লেখ করে লিজ প্রদানের পর থেকে বিষয়টি সর্বত্র ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি করে। এরই মধ্যে আর.এস খতিয়ান মূলে জায়গাটি বন বিভাগের সম্পত্তি বলে দাবী করে আসছে বন বিভাগ। কিন্তু বনকর্মীদের সেখানে ঘেঁষতেই দিচ্ছেন না লিজ গ্রহীতা বিবিসি স্টিলের স্বত্বাধিকারী মো. আবুল কাসেমে লোকজন। সম্প্রতি কাট্টলী বিটের অফিসারসহ বনকর্মীরা সেখানে গেলে তাদেরকে হামলা করতে উদ্যত হয় বিবিসি স্টিলের মালিকসহ লোকজন। এ কারণে কাট্টলী বিট অফিসার মামলা করেন। কিন্তু কোন অবস্থাতেই এ জায়গায় কাজ বন্ধ করেননি আবুল কাসেম রাজা। বাধ্য হয়ে গত পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) বিবিসি স্টিলের মালিকসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করেন। কিন্তু রহস্যজনক কারণে তাতেও কর্তৃপক্ষ কোন ব্যবস্থা নেয়নি। এ বিষয়ে সম্প্রতি একাধিক জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়। শেষে গত রবিবার পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) হাইকোর্টে একটি রিট পিটিশন দায়ের করে এ জায়গায় লিজ বাতিলের দাবী জানানো হয়। রিটে প্রতিপক্ষ করা হয়েছে বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব, শিল্প সচিব, জেলা প্রশাসক, আবুল কাসেম প্রকাশ এম.এ কাসেম রাজাকে। রিটে বলা হয় সীতাকু-ে উত্তর সলিমপুর মৌজার যে জায়গাটি চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক থেকে এম.এ কাসেম রাজাকে বিবিসি স্টিলের নামে লিজ প্রদান করা হয়েছে তা ১৯২৭ সালের ২০ ধারা অনুযায়ী সংরক্ষিত বন ঘোষণার জন্য ৪ ধারায় বিজ্ঞপ্তি জারিকৃত। তাই এটির লিজ বাতিল করার পাশাপাশি পরিবেশ অধিদপ্তর যেন বিবিসি স্টিলকে কোন পরিবেশগত ছাড়পত্র না দেয় সেই আবেদন করা হয়। অন্যদিকে গত সোমবার এ জায়গাটি বন বিভাগের দাবি করে বিবিসি স্টিলের লিজ বাতিল চেয়ে চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জর্জ আদালতে মামলা দায়ের করেছেন উপকূলীয় বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. এ.কে এম গোলাম মাওলা। বন বিভাগের অভিযোগ তাদের জায়গা অনিয়মের মাধ্যমে লিজ প্রদান করা হয়েছে।
উপকূলীয় বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা এ.কে. এম গোলাম মাওলা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমি এই লিজটি বাতিল চেয়ে জেলা প্রশাসককে বিবাদি করে সোমবার মামলা দায়ের করেছি। এছাড়া বেলাও হাইকোর্টে রিট পিটিশন দায়ের করেছে। তিনি বলেন, অবশ্য দুই দিন আগে এ বিষয়ে বিভাগীয় কমিশনারের দপ্তর থেকে লিজটি বাতিলের নির্দেশনা দিয়ে জেলা প্রশাসককে চিঠিও দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 322 People

সম্পর্কিত পোস্ট