চট্টগ্রাম সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

৩ মে, ২০১৯ | ৩:০৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক হ

পোর্ট কানেকটিং রোডবঙ্গবন্ধুর নামে ও আগ্রাবাদএক্সেস রোড মহিউদ্দিন চৌধুরীর নামে হচ্ছে

নগরীর পোর্ট কানেকটিং (পিসি) রোড জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর নামে এবং আগ্রাবাদ এক্সেস রোড প্রয়াত জননেতা আলহাজ এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর নামে নামকরণের ঘোষণা দিয়েছেন সিটি মেয়র। পিসি রোডে বঙ্গবন্ধুর একটি দৃষ্টিনন্দন মুরালও স্থাপন করা হবে। সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন গতকাল বৃহস্পতিবার বিষয়টি পূর্বকোণকে নিশ্চিত করেছেন।
সিটি মেয়র বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতিকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। বাঙালিকে পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে মুক্ত করার পাশাপাশি তাঁর বড় স্বপ্ন ছিলো এ জাতিকে অর্থনৈতিক মুক্তি দেয়া। জাতির জনকের সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করছেন তাঁরই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামের উন্নয়নের জন্য কোন প্রকল্প হাতে পেলেই তা অনুমোদন করে দিচ্ছেন। কারণ তিনি চট্টগ্রামকে বিশেষভাবে গুরুত্ব দিয়েছেন। পিসি রোড বন্দরের সাথে সারাদেশকে যুক্ত করেছে। তাই পিসি রোডকে বন্দর অর্থনীতির লাইফলাইন বলা যায়। আর বন্দর হল সারাদেশের অর্থনীতির প্রাণ। তাই এই সড়কটি জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের নামে নামকরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সিটি কর্পোরেশনের আগামী সাধারণ সভায় এই প্রস্তাবটি উত্থাপন করা হবে। সাধারণ সভার অনুমোদনের পর মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের জন্য পাঠানো হবে।
এদিকে, নগরীর আগ্রাবাদ এক্সেস রোডটি প্রয়াত জননেতা আলহাজ এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর নামে নামকরণ করার ঘোষণা দেন সিটি মেয়র।
জানতে চাইলে সিটি মেয়র বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী চট্টগ্রামবাসীর অভিভাবক ছিলেন। চট্টগ্রামের উন্নয়নে এই প্রয়াত নেতার অনেক অবদান রয়েছে। তার নামে আগ্রাবাদ এক্সেস রোডের নামকরণ করে আমরা তাকে সম্মান জানাতে চাই। মহিউদ্দিন চৌধুরী তার অগ্রজ উল্লেখ করে বলেন, তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং চট্টগ্রামবাসীর জন্য সব সময় নিজেকে উজাড় করে দিয়েছেন। প্রয়াত এই নেতার স্মৃতি রক্ষায় কিছু করতে পারলে আমি নিজেকে অনেক ধন্য মনে করব।
এক্সেস রোডের সংস্কার কাজ খুব তাড়াতাড়ি দৃশ্যমান হবে উল্লেখ করে মেয়র বলেন, এক্সেস রোডের বাদামতলী থেকে বড়পুল পর্যন্ত সড়কের নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় রাস্তার দুইপাশে আরসিসি ড্রেন ও ফুটপাত নির্মাণ, রাস্তার মাঝে দুই মিটার প্রস্থের মিডিয়ান নির্মাণসহ এলইডি আলোকায়ন করা হয়েছে। পাশাপাশি এই সড়ককে সবুজায়নের আওতায় আনার বিষয়ে সব ধরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সড়ক আগের তুলনায় অনেক বেশি উঁচু করা হয়েছে। এখানে জলাবদ্ধতার কোন আশঙ্কা নেই।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 217 People

সম্পর্কিত পোস্ট