চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২০

৩ মে, ২০১৯ | ২:২৩ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা

পটিয়ায় মালঞ্চের ৪০ বছর পূর্তি উৎসবে জামাল উদ্দিন

সুকুমার চর্চায় মন বড় হয় কূপম-ুকতা ধ্বংস করে

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. জামাল উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, সৃজনশীল সাহিত্য গোষ্ঠি মালঞ্চের শুদ্ধির যে চর্চা সেদিন শুরু হয়েছিল সেটি শুধু আমাদেরকে শুদ্ধ করেছিল তা নয়। পুরো পটিয়ার তরুণ সমাজকে অনেকটা শুদ্ধ করেছিল। সেই শুদ্ধির চর্চা এখনো অব্যাহত আছে দেখে পুলকিত হচ্ছি, অভিভূত হচ্ছি।
তিনি গত বুধবার দুপুরে পটিয়া পৌর সদরে একটি কমিউনিটি সেন্টারে সৃজনশীল সাহিত্য গোষ্ঠি মালঞ্চের ৪০ তম বর্ষপূতি উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। মালঞ্চের সভাপতি অজিত কুমার মিত্রের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ছড়াকার শিবুকান্তি দাশের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় উদ্বোধক ছিলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত ব্যক্তিত্ব শিক্ষাবিদ ড. মাহবুবুল হক, ‘বঙ্গবন্ধু’ শব্দের প্রবক্তা মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল হক চৌধুরী মুশতাক ও বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত শিশুসাহিত্যিক ও সাংবাদিক রাশেদ রউফ, দৈনিক সমকালের সিনিয়র রিপোর্টার স্বপন কুমার মল্লিক, দৈনিক পূর্বকোণের মফস্বল ইনচার্জ ইসমাইল পারভেজ ফারুকী। এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জামাল উদ্দিন আরো বলেন, পটিয়ার যে গৌরব রয়েছে তা যদি সমুজ্জ্বল করতে হয় তাহলে চর্চার দরকার। তরুণ প্রজন্ম সত্যিকার অর্থে আলোর পথে ধাবিত হোক। চর্চায় বিকশিত হয় মানুষ। তাই চর্চা করতে হবে। সুকুমার চর্চায় মানুষের মনকে বড় করে। কূপম-ুকতা মানুষকে ধ্বংস করে। মালঞ্চের কোন সদস্য বিপদগামী নয়। এসময় মালঞ্চের প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে স্মৃতি রোমান্থন করে তিনি বলেন, প্রয়াত রাজ বিহারী চৌধুরী, সেলিম রাহী আজকের অনুষ্ঠানে উপস্থিতি থাকলে ভালো হতো। সভায় উদ্বোধক একুশে পদকপ্রাপ্ত ব্যক্তিত্ব ড. মাহবুবুল হক বলেছেন, মালঞ্চ গড়ে উঠার মধ্য দিয়ে প্রতিকূল পরিবেশে মানুষকে জীবনের গল্প শুনিয়েছে। মহৎ জীবন গড়ে তোলার প্রেরণা যুগিয়েছে, প্রণোদনা যুগিয়েছে। মালঞ্চ প্রতিষ্ঠার ৪০ বছর পূর্তি উপলক্ষে দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয় বইমেলা, গুণীজন সম্মাননা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, পুরস্কার বিতরণ, প্রীতি ম্যাচসহ নানা আনন্দ আয়োজন।
প্রথম পর্ব সকাল ৯ টায় সূচনা করেন, পটিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ। বিকাল ৩টায় দ্বিতীয় পর্বের উদ্বোধন করেন একুশে পদকপ্রাপ্ত ব্যাক্তিত্ব শিক্ষাবিদ ড. মাহবুবুল হক। ইতিহাস ভিত্তিক সংকলন ‘মালঞ্চ’র মোড়ক উম্মোচন করেন অতিথিবৃন্দ। মালঞ্চ গুনীজন সম্মাননা পেয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল হক চৌধুরী মুশতাক ও শিশুসাহিত্যিক ও সাংবাদিক রাশেদ রউফ। মালঞ্চ সংগঠকদের মধ্যে সম্মাননা পেয়েছেন চিকিৎসক ডা. দিলীপ ভট্টচার্য্য, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক আবদুল আলীম ও লেখক গবেষক মুহাম্মদ শামসুল হক।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, মুক্তিযোদ্ধা মৃনাল কান্তি বড়–য়া, পুঁথি গবেষক ইছহাক চৌধুরী, বাসদ নেতা স.ম ইউনুছ, অধ্যক্ষ আবু তৈয়ব, মুহাম্মদ ছৈয়দ চেয়ারম্যান, সেলিম উদ্দিন, এডভোকেট খুরশীদ আলম, অধ্যাপক ভগীরত দাশ, ডা. পিন্টু কুমার দে, রশীদ এনাম, গিয়াস উদ্দিন সেলিম, সোহেল পারভেজ সুমন, আবদুর রহমান রুবেল, পলাশ রক্ষিত, রুদ্র সাজিদুল প্রমুখ।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 222 People

সম্পর্কিত পোস্ট