চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

১ মে, ২০১৯ | ২:০৬ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

ওয়ার্ড ৪০ উত্তর পতেঙ্গা

জীবন বাঁচাতে ফুটওভার ব্রিজ চায় কাটগড়বাসী

নগরীর উত্তর পতেঙ্গা ওয়ার্ডের সব থেকে ব্যস্ততম মোড় কাটগড়। আর এ ব্যস্ততম মোড়ের এক কিলোমিটারের মধ্যে গড়ে ওঠেছে বেশ কয়েকটি কন্টেইনার ডিপো। শুধু কন্টেইনার ডিপোই নয়, এই এলাকার সব থেকে বড় বাস স্ট্যান্ডটিও এ মোড়ে। যার ফলে এ পথে প্রতিদিন চলাচল করে হাজারো ভারি যানবাহন। আর যানবাহনে ব্যস্ত থাকা এই মোড়টির আশপাশেই গড়ে ওঠেছে ৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। যেখানে প্রায় ১০ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত রয়েছে। তবে এ মোড়টিতে নিরাপদ রাস্তা পারাপারের জন্য নেই কোনো ফুটওভার ব্রিজ। যার ফলে এ মোড়ে প্রায় ঘটে প্রাণঘাতির মত দুর্ঘটনা। কেননা এ মোড়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তাপার হয় এই এলাকার হাজারো বাসিন্দা ও শিক্ষার্থীরা। আর তাই জীবন বাঁচাতে এ মোড়ে দ্রুত ফুটওভার ব্রিজ স্থাপনের দাবি জানিয়েছে স্থানীয়রা। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণে এ নিয়ে মানববন্ধনও করেছেন শিক্ষার্থীরা।
গত ১১ এপ্রিল পতেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন করা হয় বলে জানান স্থানীয় যুবক মো. মিজানুর রহমান মিজান। তিনি বলেন, এই এলাকার সব থেকে ব্যস্ততম মোড় এই কাটগড়। ব্যস্ততম বলার কারণ হচ্ছে এ মোড়ের এক কিলোমিটারের মধ্যে ৬ থেকে ৭টি কন্টেইনার ডিপো। আর এসব ডিপো ব্যবহারকারী যানবাহনগুলোর একমাত্র চলাচলের পথ এটি। আর এ পথটি যেমন ডিপো ব্যবহারকারী গাড়িগুলোর একমাত্র চলাচলের পথ ঠিক তেমনি এই এলাকার হাজারো শিক্ষার্থী আর বাসিন্দাদেরও চলাচলের একমাত্র পথ। কেননা এ মোড়টির দুপাশে রয়েছে এই এলাকার সব থেকে বড় দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এছাড়া এই এলাকার সবচেয়ে বড় বাস স্ট্যান্ডও এ মোড়টিতে। তাই এখানকার স্থানীয়দেরও যাতায়াতের একমাত্র পথ এটি। তবে ব্যস্ততম এই মোড়টিতে ফুটওভার ব্রিজ না থাকায় প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। আর এই দুর্ঘটনা থেকে জীবন বাঁচাতে এ মোড়ে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের জন্য মানববন্ধন করেছি আমরা। যেখানে অংশগ্রহণ করেছে হাজারো শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা।
সরেজমিনে দেখা যায়, এ মোড়ের পশ্চিম পাশে থাকা বাস স্ট্যান্ডটির সাথেই রয়েছে পতেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়। যেখানে প্রায় ৩ হাজার শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত । আর এর ঠিক পাশেই রয়েছে কমিউনিটি সেন্টার। যার নিচে রয়েছে বেশকিছু নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান। যার ফলে প্রতিদিন হাজারো শিক্ষার্থী ও মানুষের চলাচল করতে হয় এ পথ ধরে। তবে এ মোড়ে ফুটওভার ব্রিজ না থাকায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পারপার করতে হয় তাদের। কেননা কাটগড় মোড়টির এক কিলোমিটার রাস্তার মধ্যে গড়ে ওঠেছে বেশকিছু কোম্পানির গোডাউন ও ডিপো। আর বিকল্প পথ না থাকায় এসব কোম্পানির গাড়িগুলো যাতায়াত করে এ পথ দিয়ে। এ মোড়ে একটি ফুটওভার ব্রিজ খুবই প্রয়োজন হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে জানান স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. জয়নাল আবেদীন। তিনি পূর্বকোণকে বলেন, ‘এই মোড়টি এই এলাকার সব থেকে ব্যস্ততম মোড় হলেও এখানে কোন ফুটওভার ব্রিজ নেই। কিন্তু এ মোড়ের চারপাশ দিয়ে চলাচল করে ভারি ভারি যানবাহন। তাই এ মোড়টিতে একটি ফুটওভার ব্রিজ খুবই প্রয়োজন। আমি সাধারণ সভায় সিটি মেয়রকে এ বিষয়ে জানিয়েছি। তবে এখানে ফ্লাইওভারের কাজ চলায় এ বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি। ফ্লাইওভারের কাজ শেষ হলেই দ্রুত এ মোড়ে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করা হবে বলেও জানান তিনি’।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 362 People

সম্পর্কিত পোস্ট