চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০

৩০ এপ্রিল, ২০১৯ | ২:৫৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

যাত্রা শুরু জহিরুল আলম দোভাষের

সিডিএ’র দায়িত্বভার গ্রহণ ‘চলমান উন্নয়ন প্রকল্পগুলো স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার আলোকে বাস্তবায়িত হবে’

চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) চেয়ারম্যানের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন এম জহিরুল আলম দোভাষ। গতকাল সোমবার তিনি সিডিএ’র চেয়ারম্যানের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। এসময় তিনি সিডিএ’র বোর্ড সদস্য, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন। জহিরুল আলম দোভাষ সিডিএকে জনবান্ধব সংস্থা হিসেবে দেখতে চান উল্লেখ করে বলেন, সিডিএ’র সমস্ত কাজ স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার আওতায় আসতে হবে। সর্বোপরি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ় অঙ্গীকার ও ঘোষণা অনুযায়ী দুর্নীতির ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতির শতভাগ অনুসরণ করা হবে।
চলমান উন্নয়ন প্রকল্প সম্পর্কে তিনি বলেন, চলমান উন্নয়ন প্রকল্পগুলো অবশ্যই স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার আলোকে বাস্তবায়িত হবে। সাধ এবং সাধ্যের যেমন একটা সীমা আছে তার সাথে প্রকল্পসমূহ বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সময়ের ব্যাপারটারও বিবেচনায় আনতে হবে। আমরা জানি এ নগরীর প্রধান সমস্যা ও দুঃখ-দুর্দশা হচ্ছে জলাবদ্ধতা। চট্টগ্রাম শহরকে জলাবদ্ধতামুক্ত করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৫ হাজার কোটি টাকারও বেশি মেগাপ্রকল্প বাস্তবায়নের নির্দেশনা দিয়েছেন। যার কার্যক্রম সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে।
জলাবদ্ধতা প্রসঙ্গে সিডিএ’র চেয়ারম্যান আরো বলেন, সিডিএ’র সদ্য বিদায়ী চেয়ারম্যান আবদুচ ছালামের বক্তব্যে আমরা জানতে পারি, নগরী এ বছরে জলাবদ্ধতা মুক্ত হবে না। এর সুফল পেতে হলে আরো তিন থেকে চার বছর সময় লাগবে। তবে আমি দৃঢ়ভাবে প্রতিজ্ঞা করছি, এ প্রকল্প যথাশীঘ্রই সম্ভব বাস্তবায়ন করে নগরবাসীকে জলাবদ্ধতার অভিশাপ হতে মুক্ত করবো। এছাড়া ইতোমধ্যে গৃহীত চলমান প্রকল্পসমূহ দ্রুত বাস্তবায়নে এবং জনগণের অগ্রাধিকার বিবেচনায় নতুন নতুন প্রকল্প গ্রহণ করা হবে।
সিডিএ’র সচিব তাহেরা ফেরদৌসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী। এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন সিডিএ বোর্ড সদস্য মো. গিয়াস উদ্দিন, প্রধান প্রকৌশলী কাজী হাসান বিন শামস, মো. মোস্তফা জামাল। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব নঈম উদ্দিন চৌধুরী, এডভোকেট সুনীল কুমার সরকার, এডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য নোমান আল মাহমুদ শফিক আদনান, হাসান মাহমুদ শমসের, শফিকুল ইসলাম ফারুক, এডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, চন্দন ধর, মশিউর রহমান চৌধুরী, আহমেদুর রহমান সিদ্দিকী, আবদুল আহাদ, দেবাশীষ গুহ বুলবুল, ইঞ্জিনিয়ার মানস রক্ষিত, দিদারুল আলম চৌধুরী, আবু তাহের, হাজী মো. হোসেন, শহীদুল আলম, কার্যনির্বাহী সদস্য হাজী মো. ইয়াকুব, গাজী শফিউল আজিম, কামরুল হাসান ভুলু, নুরুল আবছার মিয়া, ইউসুফ সর্দার, সাইফুদ্দিন খালেদ বাহার, নজরুল ইসলাম বাহাদুর, অমল মিত্র, রোটারিয়ান মো. ইলিয়াছ। সিডিএ’র বোর্ড সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- মো. জসিম উদ্দিন শাহ, কে বি এম শাহজাহান, হাসান মুরাদ বিপ্লব, স্থপতি আশিক ইমরান, এম আর আজিম প্রমুখ।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 655 People

সম্পর্কিত পোস্ট