চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২১

প্রশাসনের ‘উদাসীনতায়’ শতবর্ষী সেই পুকুর ফের ভরাট!

৫ ডিসেম্বর, ২০২০ | ৫:২৯ অপরাহ্ণ

বোয়ালখালী সংবাদদাতা

প্রশাসনের ‘উদাসীনতায়’ শতবর্ষী সেই পুকুর ফের ভরাট!

আইনের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ফের ভরাট করা হচ্ছে বোয়ালখালী পৌর সদরের বণিকপাড়ার সেই শতবর্ষী পুকুর। স্থানীয় সাংসদ ও প্রশাসনের বাধায় সাড়ে তিন মাস আগে ভরাট কাজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। প্রশাসনকে ম্যানেজ করে গতকাল শুক্রবার ফের শুরু হয়েছে ভরাট কাজ।

পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক জমির উদ্দিন বলেন, পুকুর ভরাটের অনুমতি কখনো পরিবেশ অধিদপ্তর দেয় না। খতিয়ে দেখে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানা যায়, গত অক্টোবর মাসে পূর্ব গোমদ-ী বণিক পাড়ায় শতবর্ষী পুকুর ভরাট কাজ শুরু হয়। কাজ বন্ধ করতে প্রশাসনকে নির্দেশনা দেন স্থানীয় সাংসদ। সাড়ে তিন মাসের মাথায় আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ও এমপি’র নির্দেশনাকে উপেক্ষা করে ফের পুকুরটি ভরাট কাজ করে। গতকাল শুক্রবার স্থানীয়রা বান্দরবানে পিকনিকে যায়। এ সুযোগে একাধিক ট্রাকে ভরাট কার্যক্রম চালিয়ে যায়। প্রশাসনের উদাসীনতায় ও অবহেলায় প্রকাশ্যে পুকুর ভরাট কাজ শুরু হয়।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, বিষয়টি মীমাংসিত। আইনগতভাবেও সুযোগ নেই তাছাড়া এমপি মহোদয়ের পূর্বের নির্দেশনার পর নতুন করে কোনো নির্দেশনা নেই। তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে। কিন্তু প্রাকৃতিক জলাধার সংরক্ষণ আইন-২০০০ অনুযায়ী, কোনো পুকুর, জলাশয়, নদী, খাল ইত্যাদি ভরাট করা বেআইনি। আইনের ৫ ধারা অনুযায়ী, প্রাকৃতিক জলাধার হিসেবে চিহ্নিত জায়গার শ্রেণি পরিবর্তন বা অন্য কোনোভাবে ব্যবহার, ভাড়া, ইজারা বা হস্তান্তর বেআইনি। কোনো ব্যক্তি এই বিধান লঙ্ঘন করলে আইনের ৮ ও ১২ ধারা অনুযায়ী পাঁচ বছরের কারাদ- বা অনধিক ৫০ হাজার টাকা অর্থদ- অথবা উভয় দ-ে দ-িত হবেন। একই সঙ্গে পরিবেশ সংরক্ষণ আইন (২০১০ সালে সংশোধিত) অনুযায়ী, যেকোনো ধরনের জলাশয় ভরাট করা নিষিদ্ধ।

স্থানীয়রা জানান, শতবর্ষী পুকুরটি ভরাট করে বহুতল ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা নিয়েছেন স্থানীয় পারিজাত দে। একাধিকবার ভরাটের চেষ্টা করে আসছেন তিনি। গত মে মাসেও ভরাট কাজ শুরু করলে এলাকাবাসী ও প্রশাসনের বাধার মুখে কাজ বন্ধ রাখতে হয়। পুলিশ ভরাটের কাজে ব্যবহৃত স্কেভেটরও জব্দ করে। এখন প্রশাসনকে ম্যানেজ করে প্রশাসনের নাকের ডগায় ফের শুরু হয় পুকুর ভরাট কাজ। গতকাল শুক্রবার দেখা যায়, পুকুরটির প্রায় অর্ধেক অংশ ভরাট করা হয়েছে। তবে পুকুর ভরাটকারী পারিজাত দে বরাবরই দাবি করে আসছেন ছাগল ও হাঁসের খামার করার জন্য পুকুরটি ভরাট করা হচ্ছে।

 

 

 

পূর্বকোণ/পি-আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 87 People

মন্তব্য দিন :

সম্পর্কিত পোস্ট