চট্টগ্রাম সোমবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

২ ডিসেম্বর, ২০২০ | ১:০১ অপরাহ্ণ

মোহাম্মদ আলী

নগর ছাত্রদলের নয়া কমিটি: অছাত্র ১৮০ বিবাহিত ৮০

দীর্ঘ ৭ বছর পর নগর ছাত্রদলের কমিটি ঘোষণা করেও বিতর্ক এড়াতে পারেনি কেন্দ্র। ২৭২ সদস্যের এ কমিটিতে অছাত্র, বিবাহিত ও প্রবাসীদের আধিক্য রয়েছে বেশি। এছাড়াও একজনকে দেওয়া হয়েছে দুইটি পদ। ঘোষিত কমিটিতে কমপক্ষে ১৮০ জন অছাত্র, ৮০ জন বিবাহিত ও ১২ জন প্রবাসী রয়েছেন। আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবদলের এক নেতাকে নগর ছাত্রদলের কমিটিতে সহ-সভাপতি পদে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তার নাম সঞ্জয় মল্লিক। তিনি দক্ষিণ জেলা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক।

এছাড়া চিকিৎসক, সরকারি-বেসরকারি চাকরিজীবী, ঠিকাদার, ওষুধ ও কাপড়ের ব্যবসায়ী, ওষুধ কোম্পানির এমআর, পেশাদার সন্ত্রাসীও নতুন কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন। বিশাল এ কমিটিতে ৪৯ জন সহ-সভাপতি, ৮০ জন যুগ্ম সম্পাদক, ৪৮ জন সহ-সাধারণ সম্পাদক  ও ২৮ জন সহ-সাংগঠনিক পদ পেয়েছেন। অভিযোগ রয়েছে- পদ-পদবি নিয়ে বাণিজ্য করার কারণে পদ নিয়ে এ সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। ফলে পদবঞ্চিত একটি গ্রুপ দলীয় কার্যালয়ে আগুন দিয়ে ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

গত ৩০ নভেম্বর নগর ছাত্রদলের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল স্বাক্ষরিত ২৭২ সদস্যের এ কমিটি ঘোষণা দেওয়া হয়। প্রসঙ্গত ২০১৩ সালের ২১ জুলাই নগর ছাত্রদলের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। ১১ সদস্যের কমিটিতে গাজী মুহাম্মদ সিরাজ উল্লাহ সভাপতি ও বেলায়েত হোসেন বুলু সাধারণ সম্পাদক হন। এর মধ্যে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান যুগ্ম সম্পাদক জালাল উদ্দিন সোহেল।  দীর্ঘ ৭ বছরেও এ কমিটি আর পূর্ণাঙ্গ করা যায়নি। এরমধ্যে গাজী মুহাম্মদ সিরাজ উল্লাহ নগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক এবং বেলায়েত হোসেন বুলু নগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক হন। বর্তমানে তাদের দিয়েই নগর ছাত্রদলের কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। ঘোষিত কমিটিতে এ দুজন ছাড়াও অবশিষ্ট ৮জনকে স্ব-স্ব পদে বহাল রাখা হয়। ছাত্রদলের কয়েকজন নেতার সাথে কথা বলে জানা গেছে, ঘোষিত কমিটিতে কমপক্ষে ১২ জন প্রবাসী রয়েছেন। এর মধ্যে যুগ্ম সম্পাদক এইচ এম সাজেদুল ইসলাম অনিক বর্তমানে আমেরিকা প্রবাসী। ৮ বছর ধরে তিনি দেশের বাইরে রয়েছেন। অন্যরা মধ্যপ্রাচ্যসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে অবস্থান করছেন। ঘোষিত কমিটিতে সত্যজিত বড়–য়া রূমুকে করা হয় সহ-ধর্মবিষয়ক সম্পাদক। কিন্তু কমিটির তালিকায় সহ-তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক পদেও তার নাম রয়েছে।

নতুন কমিটির যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ হাসান ও মোহাম্মদ হোসেন সিআরবিতে চাকরি করছেন বলে জানা গেছে। তারা সম্পর্কে সহোদর। প্রচার সম্পাদক কামরুল হাসান আকাশ ঠিকাদারি ব্যবসায় জড়িত।

ঘোষিত কমিটিতে বিবাহিতদেরই জয়জয়কার। এ কমিটিতে কমপক্ষে ৮০ জন বিবাহিত রয়েছেন। উল্লেখযোগ্য কয়েকজন হলেন সহ-সভাপতি আলিফ উদ্দিন রুবেল, ইফতেখার আহমেদ নিবুন, নওশেদ আল জামসেদুর রহমান, নজরুল ইসলাম, ইমতিয়াজ উদ্দিন, সালাউদ্দিন আলী, আবু বক্কর শিকদার, ইয়াকুব আলী সিফাত, তানভীর আলম রুবেল, এন মোহাম্মদ রিমন, হেলাল উদ্দিন অনিক, বেলাল হোসেন, জসিম উদ্দিন হিমেল, শফিউল আলম, রাশেদুল ইসলাম, কামরুল হাসান তালুকদার, মোস্তাফিজুর রহমান মানিক, রিদওয়ানুল হক রিদু, যুগ্ম সম্পাদক ইমতিয়াজ নিশান, সুকান্ত তালুকদার জুয়েল, ওমর কাইয়ুম, মাসুদুর রহমান মোহন, আরিফুল ইসলাম, মেজবাহ ইসলাম নোমান, শফিকুর রহমান, শাহিন হায়াত প্রমুখ।

অভিযোগ রয়েছে- নগর ছাত্রদলের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে অছাত্রের সংখ্যা কমপক্ষে ১৮০। এদের মধ্যে চিকিৎসক, সরকারি-বেসরকারি চাকরিজীবী, ঠিকাদার, ওষুধ ও কাপড়ের ব্যবসায়ী, ওষুধ কোম্পানির এমআর, পেশাদার সন্ত্রাসীও রয়েছেন।

কমিটিতে এসএসসি পাস করেননি এমন রয়েছেন ৭ জন। এর মধ্যে সহ-সভাপতি আলিফ উদ্দিন রুবেল, নজরুল ইসলাম এবং যুগ্ম সম্পাদক ওমর কাইয়ুম স্কুলের গ-ি পেরোননি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানতে চাইলে নগর ছাত্রদলের সভাপতি গাজী সিরাজ পূর্বকোণকে বলেন, ‘২০১৩ সাল থেকে এ পর্যন্ত বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রামে জড়িত ছিল এমন ৩৫ জনকে পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। বজায় রাখা হয়নি সিনিয়র ও জুনিয়রের ধারাবাহিকতা। বিষয়টি আমার কাছে মনে হয়েছে ওসি’র আগে কনস্টেবলের নাম, আবার কনস্টেবলের পরে ওসি’র নাম। আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবদলের এক নেতাকে নগর ছাত্রদলের কমিটিতে সহ সভাপতি পদে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তার নাম সঞ্জয় চক্রবর্তী মানিক। তিনি দক্ষিণ জেলা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক।’

গাজী সিরাজ বলেন, ‘যদি নগর ছাত্রদলের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার আগে আমি ও সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলু’র সাথে কেন্দ্র থেকে সমন্বয় করা হলে এ অবস্থা হতো না। বিগত সময়ে আমাদের সাথে আন্দোলন-সংগ্রামে ছিল এস এম রুম্মান, গিয়াস উদ্দিন আবিদ, জিয়াউদ্দিন চৌধুরী জিয়া, মোহাম্মদ হানিফসহ (কোতোয়ালী) কমপক্ষে ৩৫ জন নতুন কমিটিতে স্থান পায়নি।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে নগর ছাত্রদলের সভাপতি গাজী সিরাজ ঘোষিত কমিটিতে কমপক্ষে ৩৫ জন করে বিবাহিত ও অছাত্র রয়েছে বলে স্বীকার করেন।

এদিকে নতুন কমিটির যুগ্ম সম্পাদক মো. ফখরুল ইসলাম শাহীন দৈনিক পূর্বকোণকে অভিযোগ করে বলেন, ‘নগর ছাত্রদলের কমিটিতে যারা জট বাঁধিয়েছে, তাদেরকেই দেওয়া হয়েছে জট খোলার দায়িত্ব। ফলে জটতো খুলেইনি, বরং হ-য-ব-র-ল হয়েছে। অবিলম্বে এই কমিটি বিলুপ্ত করে নিয়মিত ছাত্র এবং রাজপথের ত্যাগী, নির্যাতিত ও যোগ্য নেতাকর্মীদের দিয়ে নতুন কমিটি ঘোষণা করলে এ সমস্যা সমাধান হবে।’

 

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 209 People

সম্পর্কিত পোস্ট