চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২০

১৮ নভেম্বর, ২০২০ | ২:৫৯ অপরাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, চবি

অশুভ শক্তির আঁতাত থেকে বিশ্ববিদ্যালয়কে রক্ষায় সজাগ থাকতে হবে: ড. ইফতেখার উদ্দিন

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাবেক উপাচার্য ও বর্তমান ক্রিমিনোলজি এন্ড পুলিশ সায়েন্স বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন আন্তর্জাতিক জরিপে বাংলাদেশের র‌্যাঙ্কিংয়ে নাম্বার ওয়ান হয়েছে। সেগুলো পূর্বকোণসহ বিভিন্ন গণমাধ্যম তুলে ধরেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা, উদ্ভাবন, সামাজিক প্রভাব, একাডেমিক খ্যাতিতে সাফল্য অর্জন করায় বুয়েটকে পিছনে ফেলে আমরাই প্রথম হয়েছিলাম। এ অর্জন ধরে রাখতে হবে। এ সময় তিনি অশুভ শক্তির সাথে আঁতাত করে কেউ যাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষতি বা বিপর্যস্ত করে তুলতে না পারে, সেদিকে সকলকে সজাগ থাকতে আহ্বান জানান।

বিশ্ববিদ্যালয় দিবসে সকল অনিয়ম-অসঙ্গতি দূরীকরণের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘গুণগত শিক্ষার দর্শন ছিল জাতির জনকের। এ মহান আদর্শকে সমুন্নত রাখতে বিশেষ করে উচ্চ শিক্ষায় মেধাবী ও সজ্ঞান ব্যক্তিবর্গের হাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব তুলে দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু। যারা শুধু মেধার দিক থেকে নয়, সততা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার ক্ষেত্রে ছিলে উচ্চমার্গীয়। শিক্ষার গুণগত মান, নতুন জ্ঞান সৃজন ও আধুনিক বিজ্ঞানমনস্ক শিক্ষার যে দর্শন বঙ্গবন্ধু দিয়েছিলেন এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী যেটাকে ধারণ করে বিশ্ববিদ্যালয়কে সাজানোর চেষ্টা করেছে, সেগুলোর উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে।’

ড. ইফতেখার বলেন, ‘মহামান্য রাষ্ট্রপতি বলেছেন উপাচার্য হবেন একাডেমিক লিডার, তার প্রথম যোগ্যতা হচ্ছে শিক্ষাগত যোগ্যতা। মেধা শূন্য নিম্নতম পর্যায়ের রেজাল্ট নিয়ে বা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করার ন্যুনতম শর্ত পূরণ না করে কেউ যদি বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়। তাদেরকে যদি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালনার ভার দিই, তাহলে বিশ্ববিদ্যালয়ে সঠিক গুণগত শিক্ষারমান কখনো বাস্তবায়ন করতে পারবো না।’
গবেষণার জায়গা আরও বিস্তৃতি করা দরকার উল্লেখ করে সাবেক এ উপাচার্য বলেন, ‘আমি চার বছর এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ছিলাম। এসময় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় যতগুলো গবেষণা প্রকল্প এবং বাস্তবায়ন হয়েছে, আর কোথাও এতবেশি গবেষণা বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতো হয়নি। এ ধারাবাহিকতা যদি সামনে ধরে রাখতে না পারি, তাহলে আমরা অনেক পিছিয়ে যাবো। একইসাথে গবেষণার জায়গায় আমাদের বিশ্বমানের দিক থেকে আরও দায়িত্ববোধ থাকা দরকার আমাদের শিক্ষকম-লীর, যাতে বিশ্বমানের গবেষণা করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আরও বেশি সুনাম অর্জন করতে পারে।’

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 58 People

সম্পর্কিত পোস্ট