চট্টগ্রাম সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০

চন্দনাইশে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

১৫ নভেম্বর, ২০২০ | ৮:৫১ অপরাহ্ণ

পটিয়া সংবাদদাতা

পটিয়ায় গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

চট্টগ্রামের পটিয়ায় এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত গৃহবধূর নাম রানী আকতার। আজ রবিবার (১৫ নভেম্বর) উপজেলা উপজেলার ভাটিখাইন ইউনিয়নের জসিম মেম্বারের বাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, রবিবার সকাল ১০টার দিকে রানী আকতারের ঘরে যান প্রতিবেশী হাসনা বানু। নিহত রানীর ঘরের দরজা বন্ধ দেখে ডাকাডাকি করার পরও সাড়া না পাওয়ায় তার স্বামী শহীদকে খবর দেন হাছনা বানু। পরে স্বামী শহীদ এসে ডাকলেও সাড়া না পাওয়ায় ঘরের টিনের চাল খুলে ভেতরে প্রবেশ করেন স্বামী শহীদ। পরে সেখানে রানী ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় রশি পেছিয়ে আত্মহত্যা করে ঝুলে আছে দেখতে পাওয়া যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার পটিয়া হাসপাতালে নিয়ে যায়। পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক সামিয়া আয়েশা ইসিজি রিপোর্ট দেখে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের বড় ভাই আবদুল আলীম জানান, এক বছর আগে উপজেলার ভাটিখাইন ইউনিয়নের করল গ্রামের গ্রামের শহিদুল ইসলামের সাথে কচুয়াই ইউনিয়নের ওয়াহিদুরপাড়া গ্রামের রানী আকতারের পারিবারিকভাবে বিবাহ হয়। এর কয়েকদিন পর ভালই কেটেছিল তাদের দাম্পত্য জীবন। মাসখানিক না যেতেই যৌতুকের জন্য স্বামী শহীদ রানীর ওপর অমানুষিক শারীরিক অত্যাচার ও নির্যাতন শুরু করে। কখনও ৫০ হাজার টাকা, আবার কখনও এক লাখ টাকা টাকা দাবি করে আসত। বিবাহের পর থেকে তার বোনকে যৌতুকের জন্য স্বামী-শাশুড়ি শারীরিক অত্যাচার ও নির্যাতন চালাত। তার বোন ৯ মাসের অন্তঃসত্তা। আগামী দুই-একদিনের মধ্যে নবজাতক প্রসবের দিন ধার্য ছিল।

স্থানীয় ইউপি মেম্বার জসিম উদ্দিন জানান, তাদের সংসারে প্রায় ঝগড়া-বিবাদ হতো। স্থানীয়ভাবে বেশ কয়েকবার মীমাংসা করার জন্য সামাজিক বৈঠক করি।

পটিয়া থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক মোকতার হোসেন জানিয়েছেন, প্রাথমিক তদন্তে ধারণা করা হচ্ছে, যৌতুকের দাবিতে রানীও তার স্বামীর মধ্যে পারিবারিক কলহ সৃষ্টি হয়। এর জেরে ওই গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনায় পটিয়া থানায় নিহত গৃহবধূর ভাই আবদুল আলিম বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। লাশ উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য নগরীর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

 

 

 

পূর্বকোণ/হারুন-আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 66 People

সম্পর্কিত পোস্ট