চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২০

৮ নভেম্বর, ২০২০ | ১:৩৯ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

স্বামীর খোঁজ দিবে বলে চট্টগ্রামে এনে গৃহবধূকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৪

স্বামীর সঙ্গে দেখা করিয়ে দেওয়ার আশ্বাসে কুমিল্লা থেকে চট্টগ্রামে এসে প্রতিবেশীর বাসায় উঠেছিলেন এক গৃহবধূ। পরদিন সকালে ওই ব্যক্তি দ্বারা ধর্ষণের শিকার হন বলে অভিযোগ উঠে।  পরে ধর্ষণে অভিযুক্ত ব্যক্তির সহযোগীরা ওই নারীকে উল্টো অপবাদ দিয়ে মারধর ও টাকা ছিনিয়ে নেয়।

এ ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে আজ রবিবার (৮ নভেম্বর) খুলশী থানায় বাদী হয়ে ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, লালখানবাজার মতিঝর্ণা এলাকায় স্বামীসহ ভাড়া থাকতেন তিনি। স্বামীর সঙ্গে পারিবারিক কলহের জেরে প্রায় মাসখানেক আগে বাসা ছেড়ে দিয়ে বাড়িতে চলে যান তিনি। বাড়িতে গিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মনোমালিন্য হলে স্বামী স্ত্রীর সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

গত শুক্রবার ওই নারীর প্রতিবেশী মনির হোসেন তার স্বামীকে খুঁজে দিতে সহায়তা করবে বলে জানালে ওই নারী সন্ধ্যায় চট্টগ্রামে আসেন।  পূর্ব পরিচিতি হওয়ায় মনিরের বাসায় স্ত্রীর সাথে ওইদিন রাতে ভুক্তভোগী নারী রাত্রিযাপন করেন। পরদিন মনিরের স্ত্রী চাকরিতে চলে গেলে মনির ওই নারীকে কুপ্রস্তাব দেয়। ওই নারী রাজি না হলে গলায় ছুরি ধরে জোরপূর্বক তাকে ধর্ষণ করে। ঘটনার পর ওই গৃহবধূ মনিরের বাসা থেকে বের হয়ে গেলেও ফেলে যাওয়া বোরকা নিতে দুপুরে আবার সেখানে যান। সেখানে যাওয়ার পর কিছু বখাটে যুবক তার সঙ্গে মনিরের বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু ওই নারী রাজি না হওয়ায় মারধর করে তার টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নেয়।

এদিকে এ ঘটনায় পুলিশ ধর্ষণে অভিযুক্ত মো. মনির হোসেন (৩৩), মাসুদ, সোহেল ও দিদারসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

রবিবার (৮ নভেম্বর) মনিরকে ডবলমুরিং থেকে ও অন্যদের লালখানবাজার এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানান চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) উপ-কমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক।

খুলশী থানার ওসি শাহীনুল ইসলাম পূর্বকোণকে বলেন, ‘ভুক্তভোগী নারীর কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত মনির হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পাশাপাশি ওই নারীকে হেনস্থা ও টাকা ছিনিয়ে নেওয়া আরও তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ’ 

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 206 People

সম্পর্কিত পোস্ট