চট্টগ্রাম শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

৩ নভেম্বর, ২০২০ | ১:১৯ অপরাহ্ণ

এস এম মোরশেদ মুন্না, নাজিরহাট

এ কেমন মা!

একজন সন্তানের নিরাপদ স্থান আর নিবিড় ভালবাসার প্রতীক হলো ‘মা’। মায়ের আদর স্নেহ মায়া মমতায় বেড়ে উঠে প্রতিটি সন্তান। গর্ভধারিণী মা যখন নিজ হাতে আগুনে পুড়ে নিজ সন্তানকে হত্যা করার মতো কাজ করে ! এমন ‘মা’ পৃথিবীতে আছে, যা কখনো কল্পনাও করা যায় না।

ঘটনাটি ঘটেছে ফটিকছড়ি সদরে। মায়ের দেয়া আগুনে ১৩ দিন মৃত্যুর সাথে যুদ্ধ করে গত শনিবার সকালে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে মারা গেছে ১১ বছরের কিশোরী বিবি খায়রুনেছা। আর কিশোরীর দেখভাল করতে গিয়ে তার আপন চাচা সোলেমান (৪৭) গত ২৬ অক্টোবর ঢাকায় পিকআপের ধাক্কায় মারা যায়। হৃদয় বিধারক এ দু’টি ঘটনা এলাকায় আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, ফটিকছড়ি পারভিন আকতার গত ১৯ অক্টোবর সকাল সাড়ে ৬টার দিকে তার কিশোরী মেয়ে বিবি খায়রুনেছার শরীরে আগুন ধরিয়ে দেয়। পারভিন পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের রুস্তম খাঁ চৌধুরী বাড়ির মরহুম কবির আহমদের ছেলে কুয়েত প্রবাসী মো. লোকমানের স্ত্রী। এ সময় কিশোরীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসকরা কিশোরীর শরীর ৭০ ভাগ পুড়ে যাওয়ায় ঢাকা মেডিকেলে প্রেরণ করেন। অবশেষে ১৩ দিন পর গত ৩১ অক্টোবর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

অন্যদিকে কিশোরীকে আগুনে দগ্ধ করার ঘটনায় পারভিনের বড় মেয়ের জামাতা নাসির উদ্দীন বাদি হয়ে ফটিকছড়ি থানায়, গত ২০ অক্টোবর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করলে থানা পুলিশ কিশোরীর মা পারভিন আকতারকে সাথে সাথে গ্রেপ্তার করে কোর্টে প্রেরণ করেন।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 79 People

সম্পর্কিত পোস্ট