চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০

১৯ অক্টোবর, ২০২০ | ১১:৫০ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রামের ৬ উপজেলার ১১ ইউপিতে ভোট মঙ্গলবার

রাত পোহালেই চট্টগ্রামের ৬ উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ ও উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ওই ১১ ইউপিতে আগামীকাল মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) সকাল থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হবে। ইতিমধ্যে জেলা আঞ্চলিক নির্বাচন কার্যালয় সংশ্লিষ্ট উপজেলাগুলোতে নির্বাচনী সরঞ্জাম পাঠিয়ে দিয়েছে। তবে নির্বাচনী কেন্দ্রগুলোতে ভোট গ্রহণের সরঞ্জাম গেলেও ভোটকেন্দ্রে ব্যালট পেপার পাঠানো হবে সকালে। অনাকাঙ্খিত ঘটনা এড়াতে চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন কমিশন এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

লোহাগাড়ার আমিরাবাদ, লোহাগাড়া সদর, আধুনগর ইউনিয়ন ও ফটিকছড়ির সুয়াবিল ইউনিয়নে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ফটিকছড়ির নানুপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে, জাফতনগর ইউনিয়নের ৮ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কর্ণফুলীর জুলধা ইউনিয়নের ৯ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য, বোয়ালখালীর আমুচিয়া ইউনিয়নের ৭ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য, রাঙ্গুনিয়ার চন্দ্রঘোনা কদমতলী ইউনিয়নের ৩ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য, সন্দ্বীপের মগধারা ইউনিয়নের ৭ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য এবং হারামিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে মোট ২৮ জন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী, ১১৮ জন সাধারণ সদস্য এবং ৩৭ জন সংরক্ষিত সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

এদিকে, মিরসরাইয়ের মিঠানালা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী, চন্দনাইশের বরকল ইউনিয়নের ৭ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য, রাউজানের চিকদাইর ইউনিয়নের ৪ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য এবং ফটিকছড়ির খিরাম ইউনিয়নের ৫ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য পদের তিন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় সেখানে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে না।

চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আতাউর রহমান বলেন, চারটি ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হওয়ায় সাধারণ নির্বাচন ও বাকি ৭টি ইউনিয়নে বিভিন্ন কারণে শূন্য হওয়া পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। রাত পোহালেই সকাল থেকে এই ১১টি ইউপির ৬৩টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে সব রকমের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, নির্বাচনী এলাকাগুলোতে সরঞ্জামাদি পাঠানো হয়েছে। অনাকাঙ্ক্ষিত ও যেকোনো ঘটনা এড়াতে শুধু ভোটের ব্যালট পেপার সকালে পাঠানো হবে। প্রতিটি কেন্দ্রে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পুলিশ, ল্যাব ও বিজিবি মোতায়েন থাকবে।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, সন্দ্বীপের হারামিয়া ইউনিয়নে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আকবর হোসেন, ফটিকছড়ির সুয়াবিল ইউনিয়নে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হেলাল উদ্দিন ও নানুপুর ইউনিয়নে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেলাল হোসেন, লোহাগাড়ার আমিরাবাদ ইউনিয়নে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শহীদ্দুল্লাহ কায়সার, লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম জিহান সানজিদা এবং আধুনগর ইউনিয়নে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কৌশিক আহম্মদ খন্দকার দায়িত্ব পালন করবেন।

 

 

 

পূর্বকোণ/আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 113 People

সম্পর্কিত পোস্ট