চট্টগ্রাম শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর, ২০২০

চমেক হাসপাতালের ‘স্বল্প খরচে পরীক্ষা’ অনেকের অজানা

১৫ অক্টোবর, ২০২০ | ১১:৩৬ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

ক্ষুধার্ত শিশুর মাথায় ইট দিয়ে আঘাত

বুধবার (১৪ অক্টোবর) রাত ১০টা। চকবাজার প্যারেড কর্নারের আশপাশের প্রায় সব খাবারের দোকান বন্ধ। প্যারেড কর্নার সংলগ্ন কেয়ারি ইলিশিয়ামের বিপরীত পাশে জমজম রেস্টুরেন্ট নামের একটি খাবারের দোকান তখনো খোলা ছিল। কোথাও খাবার না পেয়ে ওই দোকানে খাবার চাইতে যায় ৯ বছরের শিশু জিসান। খাবার না দিয়ে ওই দোকানের ম্যানেজার এবং কর্মচারীরা তাকে তাড়িয়ে দেয়।

কিন্তু একদিকে ক্ষুধার জ্বালা অপরদিকে আশপাশে কোন দোকান খোলা নেই। বিকল্প কোন উপায় না দেখে শিশুটি খাবারের আশায় সেখানে দাঁড়িয়ে থাকে। কিন্তু তাতেও রেস্টুরেন্ট মালিক ও তার কর্মচারীদের মন গলেনি। তারা শিশুটির উপস্থিতিকে বিরক্তবোধ করে তার দিকে তেড়ে আসে। ধাক্কা দেয়। এক পর্যায়ে ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করে রক্তাক্ত করে।

খবর পেয়ে চকবাজার থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আহত শিশুকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করান। সিটি স্ক্যানসহ যাবতীয় চিকিৎসার ব্যবস্থা করে চকবাজার থানা পুলিশ।

চকবাজার থানার ওসি মোহাম্মদ রুহুল আমিন মর্মান্তিক ঘটনার তথ্য জানান। তিনি বলেন, ঘটনায় জড়িত কুমিল্লার নাঙ্গলকোট থানাধীন নান্দেশ্বর পাড়া এলাকার আলী আহমদের ছেলে এবং হোটেল মালিকের ভাই মো. ইসমাইল (৪০), বর্তমানে- ২ নম্বর জয়নগর, মঞ্জুর বাড়ি, সিঙ্গার শো-রুমের পিছনে এবং একই উপজেলার ঘাসিয়াপাড়ার মরহুম সৈয়দ হোসেনের পুত্র লোকমান হোসেনকে (৩৮) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

আহত পথশিশু জিসান নোয়াখালীর কোম্পানিগঞ্জ থানাধীন চরহাজারীর এলাকার মো. আমিন হোসেনের পুত্র। সে বর্তমানে চান্দগাঁও খাজা রোড ছমির উদ্দিন কলোনিতে থাকে।

 

 

পূর্বকোণ/পি-আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 263 People

সম্পর্কিত পোস্ট