চট্টগ্রাম শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর, ২০২০

সর্বশেষ:

বান্দরবানে ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক দলের কমিটি গঠন: সংঘাত বাড়ার আশঙ্কা

১১ অক্টোবর, ২০২০ | ৬:৩১ অপরাহ্ণ

বান্দরবান সংবাদদাতা

বান্দরবানে ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক দলের কমিটি গঠন: সংঘাত বাড়ার আশঙ্কা

পার্বত্য জেলা বান্দরবানে পাহাড়ের অন্যতম শক্তিশালী দল ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) গণতান্ত্রিক’র কমিটি গঠন করা হয়েছে। এটি ইউপিডিএফের সংস্কারপন্থী দল নামেও পরিচিত। নয় সদস্যবিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি গঠন করে দলটি এই প্রথম বান্দরবানে যাত্রা শুরু করেছে।

মংপু মারমাকে (হেডম‍্যান) আহবায়ক করে গঠন করা কমিটির অন‍্যান‍্য সদস‍্যরা হলেন রাজবিলা ইউনিয়নের ইউপি সদস‍্য বাবলু মারমা (সদস‍্য সচিব) মং এ নু মারমা, উথোয়াইনু মারমা, মংশৈসা মারমা, আপ্পাই মারমা, উসাইনু মারমা, মহাইপ্রু মারমা, অংসা চিং মারমা। জানা গেছে, গত ৪ অক্টোবর চট্টগ্রাম নগরীর একটি হোটেলে গোপনে এই কমিটি গঠন করা হয়।

সংগঠনটি বান্দরবানে এমন একটি সময়ে আত্মপ্রকাশ করল যখন স্থানীয় পাহাড়ি সংগঠনগুলোর মধ্যে আধিপত্য বিস্তার ও চাঁদাবাজি নিয়ে পরস্পরের মধ্যে দ্বন্দ্ব-সংঘাত চরম আকার ধারণ করেছে। এর আগে আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল জনসংহতি সমিতির সংস্কারপন্থী গ্রুপ কমিটি গঠন করে বান্দরবানে তাদের কার্যক্রম শুরু করলেও পরে রাজবিলা ইউনিয়নের বাঘমারা এলাকায় সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ারে এ সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতা ও জেলা কমিটির আহ্বায়কসহ ছয়জন নিহত হয়। এ ঘটনার পর সংগঠনের কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।

এদিকেম গত শনিবার (১০ অক্টোবর) সন্ধ্যায় জামছড়ি এলাকায় জনসংহতি সমিতির নেতা বাচমং মারমা সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হন। একের পর এক অপহরণ ও হত্যাকাণ্ডে বান্দরবানের রাজবিলা ও রোয়াংছড়ি এলাকায় জনমনে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

এ বিষয়ে ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক দলের আহ্বায়ক মংপু মারমা অবশ‍্য কমিটি গঠনের ব্যাপারে কিছু জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন। তবে ইউপিডিএফের মূল দলের জেলা সমন্বয়ক ছোটন তঞ্চঙ্গ‍্যা বান্দরবানে গণতান্ত্রিক দলের কমিটি গঠনের কথা তিনি শুনেছেন বলে জানিয়েছেন। এ বিষয়ে তিনি আর কোনো মন্তব্য করতে চাননি।

স্থানীয়রা বলেন, নতুন এই কমিটি গঠনের ফলে এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের লড়াই আগের চাইতে বাড়বে। শান্তিচুক্তির পর ১৯৯৮ সালের ২৬ শে ডিসেম্বর পূর্ণ স্বায়ত্তশাসনের দাবিতে প্রসিত খীসার নেতৃত্বে গঠিত হয় ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট ইউপিডিএফ। পরে ২০১৭ সালের ১৫ নভেম্বর প্রসিত খীসা ও সঞ্জয় চাকমার নেতৃত্বকে চ্যালেঞ্জ করে তপন জ্যোতি চাকমা ও শ্যামল কান্তি চাকমার নেতৃত্বে গঠিত হয় ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক। বান্দরবানে সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতি ও ইউপিডিএফ মূল দলের সাংগঠনিক তৎপরতা থাকলেও বর্তমানে এ দুটি সংগঠনের সংস্কারপন্থী গ্রুপগুলোও তৎপর হয়ে উঠেছে।

 

 

পূর্বকোণ/মিনার-আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 536 People

সম্পর্কিত পোস্ট