চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২০

২৮ এপ্রিল, ২০১৯ | ২:৩৫ পূর্বাহ্ণ

মৃতদেহের পেটে ১১ প্যাকেট ইয়াবা

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে এক যুবকের লাশের ময়নাতদন্তের সময় তার পেটে প্যাকেটভর্তি ইয়াবা পেয়েছেন চিকিৎসকরা। জুলহাস (৩৫) নামে ওই যুবকের মৃত্যুর কারণ হিসেবে এই ইয়াবা গলে যাওয়াকে কারণ দেখিয়েছেন ঢাকা মেডিকেলের ফরেনসিক বিভাগের চিকিৎসকরা। গতকাল শনিবার সকালে জুলহাসের ময়নাতদন্তের সময় তার পেটে ইয়াবা পাওয়া যায়।-বিডিনিউজ
ঢাকা মেডিকেলের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, লাশের পেটে ১১টি প্যাকেট পাওয়া গেছে। তার মধ্যে কয়েকটি গলে গেছে। “পেটের মধ্যে প্যাকেট গলে যাওয়ায় তার মৃত্যু হয়েছে”, বলেন তিনি। কী পরিমাণ ইয়াবা জুলহাসের পেটে ছিল, গলে যাওয়ার কারণে তা নিশ্চিত করতে পারেননি চিকিৎসকরা। পেটের ভেতরে প্যাকেটে ইয়াবা পাচারের বেশ । ১১ পৃষ্ঠার ৫ম ক.

কয়েকটি ঘটনা আগেও ধরে পড়েছে। সম্প্রতি আরেকটি মৃত্যুর পর পেটের ভেতরে ইয়াবা পাওয়া গিয়েছিল। মতিঝিল থানার ওসি ওমর ফারুক জানান, জুলহাসের বিরুদ্ধে মাদক আইনে দুটি মামলা রয়েছে। তিনি জানান, শুক্রবার সকালে এই যুবক মতিঝিলের বিশ্বাস টাওয়ারের সামনে হঠাৎ অসুস্থ হয় পড়লে স্থানীয়রা তাকে পুলিশের সহায়তায় মুগদা হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে বেলা ১১টায় তার মৃত্যু হয়। পরে পুলিশ সুরতহাল করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায় লাশটি।
হাসপাতালে ভর্তির পর জুলহাসের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী তার ভাই এবং স্ত্রীর সাথে যোগাযোগ করে জানা যায়, তাদের বাড়ি নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার ভবানীপুর গ্রামে।
জুলহাসের মৃত্যুর পর তার পরিবারের সদস্যরা ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ নেওয়ার চেষ্টা করে বলে জানিয়ে ওসি বলেন, পুলিশ অনুমতি না দিয়ে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে। “প্রাথমিক তদন্ত করতে গিয়ে পুলিশ জানতে পেরেছে জুলহাসের বিরুদ্ধে নেত্রকোনা সদর থানায় একটি এবং আটপাড়া থানায় একটি মাদক মামলা রয়েছে।”

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 380 People

সম্পর্কিত পোস্ট