চট্টগ্রাম বুধবার, ২১ অক্টোবর, ২০২০

৩ অক্টোবর, ২০২০ | ১১:০৯ অপরাহ্ণ

রাঙ্গুনিয়া সংবাদদাতা

রাঙ্গুনিয়ায় তড়িতাহত বিদ্যুৎ কর্মী চমেকে ভর্তি, অবস্থা আশংকাজনক

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় বিদ্যুৎ খুঁটিতে কাজ করতে গিয়ে ১১ হাজার ভোল্টের তারে আটকে ১৫ মিনিট ধরে ঝুলে ছিলেন আবুল কাসেম (৩২) নামে এক যুবক। পরে কন্ট্রোলরুমে ফোন দিয়ে বিদ্যুতের সংযোগ বন্ধ করে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়। আজ শনিবার (৩ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার চন্দ্রঘোনা-কদমতলী ইউনিয়নের আধুরপাড়া এলাকা এ ঘটনা ঘটে।

আহত যুবক আবুল কাসেম পল্লী বিদ্যুতের ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান জিয়া এন্টারপ্রাইজের নিযুক্ত লাইনম্যান। তিনি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিকে না জানিয়ে ও মেইন লাইন বন্ধ না করে কাজ করতে গিয়ে এ দুর্ঘটনার সম্মুখীন হন।

ইউপি চেয়ারম্যান ইদ্রিছ আজগর জানান, আধুরপাড়া এলাকার বিদ্যুৎ খুঁটিতে পুরাতন তার পরিবর্তনের কাজ করার সময় আবুল কাসেম বৈদ্যুতিক খুঁটির ওপরে উঠে কাজ করছিলেন। এ সময় ১১ হাজার ভোল্টের সঙ্গে সংযোগ স্থাপনের কাজ করতে মেইন লাইনে হাত দিলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে লাইনে ঝুলতে থাকেন তিনি। তবে কোমরে বেল্ট থাকার কারণে তিনি পরে যাননি। পরে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে ফোন করলে তারা বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ করে দেন। ১৫ মিনিট ঝুলে থাকার পর তাকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে নগরীর চট্টগ্রাম মেডিকেলে কলেজ (চমেক) হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

চট্টগ্রাম পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির রাঙ্গুনিয়া জোনাল অফিসের সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (এজিএম) জুয়েল দাশ জানান, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটি মেইন লাইন শাটডাউন বা বন্ধ করার জন্য গত ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আবেদন করেছিল। কিন্তু ঠিকাদার এই সময়ের পরেও কাজ করার বিষয়টি অফিসে জানায়নি। এমনকি মেইন লাইন বন্ধের জন্য কোনো ফোনও দেননি। ফলে দুর্ঘটনাটি ঘটে।

জুয়েল দাশ বলেন, ঘটনা শোনার পর আহত শ্রমিককে দেখতে হাসপাতালে গিয়েছিলাম। তিনি ডান হাত ও পায়ে গুরুতর আঘাত পেয়েছেন। সর্বশেষ তিনি নগরীর চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ বিষয়ে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান জিয়া এন্টারপ্রাইজের কর্মকর্তার সঙ্গে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

 

 

 

পূর্বকোণ/জিগার-আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 75 People

সম্পর্কিত পোস্ট