চট্টগ্রাম শনিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২০

সর্বশেষ:

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ৬:৩০ অপরাহ্ণ

হাটহাজারী সংবাদদাতা

সাময়িকভাবে বন্ধ হল হাটহাজারীর মেখল আইসোলেশন সেন্টার

করোনায় চিকিৎসার অভাবে বিশেষ করে অক্সিজেন সংকটে মানুষ মারা যেতে থাকে ঠিক তখনি উত্তর চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার মেখল মানবিক আইসোলেশন সেন্টার খুলে মানুষের পাশে দাড়ায় আবুল কাশেম ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম। নিজ উদ্যোগে গড়ে তোলেন মেখল মানবিক আইসোলেশন সেন্টার। শুরুতে ২০ শয্যার বেড নিয়ে সেবা করতে চাইলেও পরে ডাক্তারের কাছে রোগী  নয় রোগীর কাছে ডাক্তার এ শ্লোগান নিয়ে চিকিৎসা সেবায় চালিয়ে যায়। তিনি অনুভব করেন ২০ শয্যার বেড দিয়ে শুধুমাত্র ২০ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী সেবা পাবে কিন্তু সময়টা ছিল ভয়ানক। তাই চিকিৎসা সেবার পরিধি বৃদ্ধি করে ঝুঁকে পড়েন ঘরে গিয়ে চিকিৎসা সেবা দেয়ার। দিন রাতের যে কোন সময় রোগীর ফোন পেলেই এম্বুলেন্স, চিকিৎসক ও যাবতীয় ওষুধ নিয়ে হাজির হচ্ছেন রোগীর বাড়িতে। উনার লক্ষ্য ছিল “ডাক্তারের কাছে রোগী নয় রোগীর বাড়ীতে ডাক্তার ” আর এভাবেই দীর্ঘ সাড়ে তিন মাস অনবরত রোগীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে চিকিৎসা সেবা দিয়েছে মেখল মানবিক আইসোলেশন সেন্টার। একইসাথে মেখল ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে এলাকা  ভিত্তিক চিকিৎসা সেবার ক্যাম্পিং করেছেন ৯ বার। সেবা দিতে সাথে পেয়েছেন ৩৫ জন তরুণ তরুণীসহ স্বেচ্ছাসেবক সহ প্রায় ৫০জন। ৪২টি সিলিন্ডার ও অন্যান্য চিকিৎসা সরঞ্জাম দিয়ে যাত্রা শুরু করেন। নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ইছাপুর মরিয়ম অর্কেড এর দোতলা কমিউনিটি সেন্টারটি ব্যবহার করেন সেন্টার হিসেবে। শুরু থেকে আজ অব্দি ১৬৩জন করোনা পজিটিভ রোগীকে চিকিৎসা দিয়ে সম্পূর্ন সেরে তুলেন এই সেন্টারের চিকিৎসক ও স্বেচ্ছাসেবকগণ। এ পর্যন্ত ইনডোর রোগীর সেবা দিয়েছেন ৪হাজার ৫শ ৩৩জনকে। আউটডোর সেবা দিয়েছেন ৩ হাজার ৪শ ২১ জনকে। এলাকা ভিত্তিক ক্যাম্পিং করে সেবা দিয়েছেন ২ হাজার ৭শ ৫৩ জনকে।
ওষুধ সেবা দিয়েছেন ৩হাজার ৭শ ৫৩ জনকে। ডায়াবেটিক পরীক্ষা সেবা দিয়েছেন ২ হাজার ৭শ ২৮জনকে। অক্সিজেন সেবা দিয়েছেন ১হাজার ৩শত ৯১জনকে। ওষুধসহ নেবুলেইজার সেবা দিয়েছেন ৩শ ৪৩জনকে। অক্সিজেন সাপোর্টসহ এম্বুলেন্স সেবা দিয়েছেন ৪৭জন রোগীকে। আর এ সবই করেছেন সম্পূর্ন বিনামূল্যে। ৬জন এমবিবিএস চিকিৎসক, সহকারীসহ ক্যাম্পিংয়ে দায়িত্বে ছিলেন আলাদা কয়েকজন চিকিৎসক। ইতিমধ্যে ডা. ইমরুল কায়েস চিকিৎসা সেবা দিয়ে মানুষের মনে স্থান করে নিয়েছেন।
আজ বুধবার (৩০সেপ্টেম্বর) সাময়িক বন্ধ ঘোষণাকালে মেখল মানবিক আইসোলেশন সেন্টারের উদ্যোক্তা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম প্রথমেই স্থানীয় সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম রাশেদুল আলম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুহুল আমিন, স্বেচ্ছাসেবকবৃন্দ, প্রবাসী ও উপজেলার কর্মরত গনমাধ্যমকর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এইসব মহান ব্যক্তিদের পরামর্শ ও সহযোগিতায় আইসোলেশন সেন্টারটি সফলতার সাথে করোনা রোগীসহ অসংখ্য রোগীদের সেবা দিতে পেরেছে। যেহেতু কিছুদিন যাবৎ রোগীদের ফোনকল নেই পরিস্থিতিও মোটামোটি ভাল তাই আপাতত আমাদের সেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তবে পরিস্থিতির অবনতি হলে আমরা পুনরায় চালু করব সব ধরনের সেবা। এসময় উপস্থিত ছিলেন মেখল ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন, ইউপি সদস্য মো. কাইয়ুম মেম্বার সহ প্রমুখ।
পূর্বকোণ / আরআর-শিমুল

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 109 People

সম্পর্কিত পোস্ট