চট্টগ্রাম শনিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২০

সর্বশেষ:

পরিত্যক্ত ভবনেই স্বাস্থ্যসেবা

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ৬:০২ অপরাহ্ণ

হাটহাজারী সংবাদদাতা

ছাদ ভেঙে দুর্ঘটনার আশঙ্কা

পরিত্যক্ত ভবনেই স্বাস্থ্যসেবা

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার মেখল ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের মূল ভবনটি ছয় বছর ধরে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়। এরপরেও নতুন ভবন নির্মিত হয়নি। ইউনিয়নের হাজার হাজার রোগীর স্বাস্থ্যসেবা চলছে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনটিতে। যেকোনো সময় ভেঙে পড়তে পারে ভবনের ছাদ।

জানা যায়, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রটিতে একজন এমবিবিএস ডাক্তার ও একজন উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার নিয়মিত থাকার কথা। কিন্তু কাগজে-কলমে রয়েছে এমবিবিএস ডাক্তার। কেন্দ্রটি পরিত্যক্ত হওয়ায় তিনি হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে কর্মরত রয়েছেন। অপরদিকে উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার সপ্তাহে তিনদিন মেখল ইউনিয়নের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে বাকি তিনদিন অন্য ইউনিয়নে কাজ করছেন।

সরেজমিনে পরিদর্শনে দেখা যায়, সেবা কেন্দ্রের ভবনের বিভিন্ন অংশে বড় বড় ফাটল। সামান্য বৃষ্টি হলেই ছাদ চুঁয়ে পানি পড়া, সিলিং ও বিম থেকে কংক্রিট ভেঙে পড়া নিত্য নৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এমনকি চিকিৎসকের আবাসিক ভবনের ছাদের টিন, দরজা, জানালাও ভেঙে গেছে।

স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মেখল ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রটি ১৯৮৩ সালে নির্মিত হয়। প্রায় ৩৭ বছর আগে স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি নির্মিত হয়। বেশ কয়েকবছর ধরে ভবনটি জরাজীর্ণ ও পরিত্যক্ত অবস্থায়। গত ৬ বছর পূর্বে জরাজীর্ণ ও পরিত্যক্ত মূল ভবন প্রসঙ্গে কেন্দ্রে নিয়োজিত উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ডা. মো. আলী চৌধুরী ২০১৩ সালের ২২ মে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার বরাবর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য একটি চিঠি প্রেরণ করেন। চিঠি পাওয়ার পর ২০১৪ সালে পরিত্যক্ত ঘোষণা করে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

মেখল ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে নিয়োজিত উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ডা. মো. আলী চৌধুরী বলেন, গত ৬ বছর ধরে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে স্বাস্থ্য সেবা। তাছাড়া আবাসিক ভবনের অবস্থা আরো খারাপ। থাকার ব্যবস্থা ভাল থাকলে আরো বেশি স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করতে পারব।
জানা যায়, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রটিতে ২ জন ডাক্তারের জায়গায় কর্মরত আছেন মাত্র ১ জন। এরমধ্যে একজন এমবিবিএস ডাক্তার নিয়োগপ্রাপ্ত হলেও ডেপুটিশনে সে হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে কর্মরত রয়েছে। একজন এফ.ডাব্লিউ.ভি.টি পদশূন্য রয়েছে। পিয়ন, ফার্মাসিস্ট ও নৈশপ্রহরী নেই। ইউনিয়নের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে সেবা দিচ্ছেন একজন উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার।

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. আনোয়ারুল আজিম বলেন, ভবনটি জরাজীর্ণতার কারণে ৬ বছর পূর্বে পরিত্যক্ত ঘোষণা করেছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়। নতুন ভবন নির্মাণের প্রক্রিয়া চলছে। সেজন্য ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে স্বাস্থ্যসেবা চালিয়ে যেতে হচ্ছে।

 

 

 

 

 

পূর্বকোণ/পি-আরপি

শেয়ার করুন
  • 28
    Shares
The Post Viewed By: 79 People

সম্পর্কিত পোস্ট