চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২০

সর্বশেষ:

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ৭:৫৮ অপরাহ্ণ

রাঙ্গুনিয়া সংবাদদাতা

চট্টগ্রাম-কাপ্তাই সড়কে অবৈধ পার্কিং ঠেকাতে দিনভর এএসপি’র অভিযান

চট্টগ্রাম-কাপ্তাই সড়ককে যানজটমুক্ত ও সিএনজি অটোরিক্সার এলোমেলো ঠাঁই দাঁড়িয়ে থাকার কবল থেকে যাত্রীদের রেহাই দিতে ব্যস্ততম সড়কটির রাঙ্গুনিয়া উপজেলা অংশে অভিযান চালিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (রাঙ্গুনিয়া সার্কেল) মো. আনোয়ার হোসেন শামীম। সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দিনব্যাপী কাপ্তাই সড়কের রাঙ্গুনিয়া অংশের রোয়াজার হাট, পৌরসভা, চন্দ্রঘোনা, মরিয়মনগরসহ ব্যস্ততম বিভিন্ন পয়েন্টে পরিচালিত এ অভিযানে অনেকটাই যানজটমুক্ত হয় এসব এলাকার বিভিন্ন সড়ক জনপথ।

সকাল ১১ টায় পৌর এলাকার রোয়াজার হাট হতে অভিযান শুরু হবার পর দিনভর তা অব্যাহত থাকে। অভিযানকালে এলোমেলোভাবে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা সিএনজি অটোরিকশাসহ বিভিন্ন যানবাহনকে রাস্তা থেকে সরিয়ে নির্ধারিত জায়গায় সুশৃঙ্খলভাবে দাঁড় করাতে বাধ্য করা হয়, বন্ধ করা হয় যত্রতত্র পার্কিং এবং যাত্রী ওঠানামা। এসময় উপস্থিত চালক ও মালিকদের উদ্দেশ্যে সড়কে শৃঙ্খলা রক্ষায় করনীয়- বর্জনীয় সম্পর্কে দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন সহকারি পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন শামীম।

সড়কে বিশৃঙ্খলায় ব্যবসায়ী, চাকুরীজীবী, ছাত্রসহ বিভিন্ন পেশাজীবীদেরকে পড়তে হয় অবর্ণনীয় দুর্ভোগে। পুলিশের অভিযানের বিষয়টিকে স্বাগত জানিয়েছেন সাধারণ যাত্রীরাও। সড়কের নিযমিত যাত্রী ও উপজেলা সদর ইছাখালী বাজারের ব্যবসায়ি মো. শামসুদ্দিন জানান, অসহনীয় যানজটের কারনে রাঙ্গুনিয়ায় বাণিজ্যিক কর্মকান্ডসহ সাধারণ মানুষের দৈনন্দিন কার্যাবলী চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছিল। রাঙ্গুনিয়ায় এমন অভিযান খুব প্রয়োজন ছিলো। নির্দিষ্ট কয়েকটি বাজার কেন্দ্রিক প্রবল জ্যামের কারণে ১০ মিনিটের রাস্তা পার হতে আধা ঘণ্টারও বেশি সময় লেগে যায়। অভিযানে পুলিশ প্রশাসনকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান তিনি। তবে অভিযানে সন্তোষ প্রকাশ করলেও কয়েকদিন পর যানজট পরিস্থিতি যেন যেই লাউ সেই কদু না হয়ে পড়ে, এ ব্যাপারে নজর রাখতে পুলিশের দৃষ্টি আকর্ষন করেন এই ব্যবসায়ি।

রোয়াজারহাট বাজার কমিটির সহসভাপতি বি কে লিটন চৌধুরী বলেন, “যানজট নিরসন করতে হলে অবশ্যই সড়ক প্রশস্ত প্রয়োজন। বাজারে চলাচলরত গাড়ির চেয়ে পার্কিং গাড়ি সমস্যা বেশি সৃষ্টি করে। লোকজনের সুবিধার জন্য পুলিশের অভিযানে ব্যবসায়ী সমিতির সহযোগিতা থাকবে।” এ প্রসঙ্গে এএসপি আনোয়ার হোসেন শামীম বলেন, “জনগণের রাস্তা অবশ্যই জনগণের জন্য উন্মুক্ত রাখতে হবে। রাস্তায় যান চলাচল ব্যাহত হয়, এমন কর্মকাণ্ড করার অধিকার কারোরই নেই। প্রাথমিকভাবে রাস্তায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী যানবাহনগুলোকে একটা সুযোগ দিয়ে সব নিয়মকানুন বুঝিয়ে একটা ব্যবস্থা চালু করে দেওয়া হয়েছে। কি করা যাবে, কি করা যাবে না, এ সম্পর্কে চালকদেরকে যথাযথভাবে ব্রিফও করা হয়েছে। ভবিষ্যতে যারা এই নিয়মের ব্যতিক্রম ঘটিয়ে সড়কের শৃঙ্খলা বিনষ্ট করবেন, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।” দীর্ঘদিন ধরে রাঙ্গুনিয়া উপজেলার বিভিন্ন রাস্তা, বিশেষ করে ব্যস্ততম কাপ্তাই সড়কের বিভিন্ন পয়েন্ট অসহনীয় যানজট সৃষ্টি হয়। আগে একাধিকবার উদ্যোগ গ্রহণ করা হলেও সংশ্লিষ্টদের অসহযোগিতায় সেটি ফলপ্রসূ হয়নি। সার্কেল এএসপির গৃহীত উদ্যোগ টেকসই হলেই মাত্র সর্বস্তরের মানুষ সুফল পাবেন। অভিযানে আরো ছিলেন রাঙ্গুনিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলামসহ একদল পুলিশ।

পূর্বকোণ / আরআর- জিগার

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 135 People

সম্পর্কিত পোস্ট