চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২১

১২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ৫:২২ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

স্ত্রীকে নির্যাতন ও ভ্রুণ হত্যার অভিযোগে বরখাস্ত হচ্ছেন এএসপি সাকিব

খাগড়াছড়ির এপিবিএন স্পেশালাইজড ট্রেনিং সেন্টারে কর্মরত পুলিশের এএসপি নাজমুস সাকিব সাময়িকভাবে বরখাস্ত হচ্ছেন।

আজ শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) পুলিশ সদর দপ্তরের সংশ্লিষ্ট বিভাগের একাধিক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। স্ত্রীকে দফায় দফায় নির্যাতন এবং ভ্রুণ হত্যার অভিযোগে তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করার প্রস্তাব জানিয়েছে পুলিশ সদর দপ্তরের ডিসিপ্লিন ও প্রফেশনাল স্ট্যান্ডার্ড শাখা।

জানা যায়, গত ২৮ আগস্ট থেকে পুলিশের এ এএসপিকে সাময়িক বরখাস্ত করতে পুলিশ সদর দপ্তর থেকে স্বরাষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে কোনও আদেশ এখনও খাগড়াছড়ির এপিবিএন স্পেশালাইজড ট্রেনিং সেন্টার কর্তৃপক্ষ পাননি। তিনি বর্তমানে সেখানেই কর্মরত আছেন।

উচ্চ আদালত সূত্রে জানা গেছে, নাজমুস সাকিব চার সপ্তাহের অন্তর্বর্তীকালীন জামিনে আছেন। গত ১৮ আগস্ট বিচারপতি শেখ মো. জাকির হোসেন ও বিচারপতি কেএম জাহিদ সারওয়ারের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ তার জামিন মঞ্জুর করেন।

এদিকে, ৪ মে দফায় দফায় শারীরিক নির্যাতন ও জোর করে গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগে রমনা থানায় মামলা দায়ের করেন নাজমুস সাকিবের স্ত্রী ইসরাত রহমান। মামলায় সাকিবের বাবা ও মাকেও আসামি করা হয়। মামলা দায়েরের পর দ্রুত বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়নি বলে দাবি করেছেন স্ত্রী ইসরাত রহমানের আইনজীবী ইশরাত হাসান।

ইসরাত রহমান জানান, এ ধরনের মামলায় সরাসরি জেলে যাওয়ার নিয়ম থাকলেও তিনি পুলিশ কর্মকর্তা হওয়ায় ক্ষমতার কারণে তা সম্ভব হচ্ছে না।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 163 People

সম্পর্কিত পোস্ট