চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২০

২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ২:১৯ অপরাহ্ণ

নাজিম মুহাম্মদ

সড়কে নয়, ফুটপাতে হকার বসবে পাঁচঘণ্টা

সড়কে নয়, সময়সীমা মেনে হকার বসবে ফুটপাতের নির্ধারিতস্থানে। বিষয়টি নিয়ে হকার নেতাদের সাথে বৈঠকও করেছেন নগর পুলিশ। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক ঘোষণা দিয়েছেন ফুটপাতে হকার থাকবে পাঁচঘণ্টা। কর্পোরেশনের নিয়ম মেনে ফুটপাতে ব্যবসা করবে কর্পোরেশনের তালিকাভুক্ত হকার। গতকাল (সোমবার) নগরীর নিউ মার্কেট মোড়, স্টেশন রোড তিনপুলের মাথায় সড়ক থেকে হকারদের সরিয়ে দেয়া হয়েছে। সড়কে যত্রতত্র রেখে যাওয়া হকারদের চৌকিগুলো রীতিমতো কয়েকটি মিনিট্রাকে উঠিয়ে নিয়ে যায় নগর ট্রাফিক বিভাগ। কোতোয়ালী থানার স্টেশন রোড, নিউ মার্কেট, আমতল এলাকায় সড়ক থেকে হকার সরিয়ে দেয়া হলেও নগরীর অন্যান্য এলাকায় সড়কজুড়ে রয়েছে হকার।

ফুটপাতে হকারদের বসার বিষয়ে ২০১৭ সালেও সিটি কর্পোরেশনের তৎকালিন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বেশ কিছু নিয়ম-নীতিমালা তৈরি করেছিলেন। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে চিঠি চালাচালি করেও হকারদের পুনর্বাসনের কোন স্থান না পাওয়ায় পরবর্তীতে কর্পোরেশনের উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি ।

নগর ট্রাফিকের উত্তর জোনের উপ-কমিশনার (ডিসি) মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ জানান, সড়কের কার্পেটিং করা স্থানে কোন হকার বসতে দেয়া হবে না। কারণ সড়কে যত্রতত্র হকার বসার কারণে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। ইতিমধ্যে হকার নেতাদের সাথে আমরা বৈঠক করেছি। তারাও কথা দিয়েছেন সড়কে কোন হকার বসবে না। কোতোয়ালী থানা এলাকার নিউ মার্কেট, স্টেশন রোড, রিয়াজউদ্দিন বাজার আমতল, তিনপুলের মাথা ঘিরে প্রায় চার হাজার হকার বসে সড়কের দুইপাশ জুড়ে। দিনভর ব্যবসা করার পর তারা চৌকিগুলো সড়কের উপর রেখে চলে যায়। গতকাল (সোমবার) এইসব এলাকায় সড়কে থাকা হকারদের চৌকিগুলো মিনিট্রাকে উঠিয়ে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। সড়কে ফের কেউ যেন বসতে না পারে সে বিষয়টি আমরা নজরদারিতে রেখেছি।

ডিসি শহীদুল্লাহ বলেন, ফুটপাত সিটি কর্পোরেশনের নিয়ন্ত্রণে। কর্পোরেশন থেকে ইতিমধ্যে বলে দেয়া হয়েছে বিকেল তিনটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত হকার বসতে পারবে। তবে কোন ধরনের স্থায়ী স্থাপনা কিংবা ছাউনি দিতে পারবে না। প্লাস্টিকের চেয়ার নিয়ে বসতে হবে। এ ধরনের বেশ কিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে কর্পোরেশন থেকে।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন জানান, কর্পোরেশনের নিয়ম মেনে বিকেল তিনটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত হকাররা ফুটপাতে ব্যবসা করতে পারবে। আগামী ৬ সেপ্টেম্বর থেকে এ নিয়ম মেনে হকারদরে ব্যবসা করতে হবে।

চট্টগ্রাম সম্মিলিত হকার্স ফেডারেশনের সভাপতি নুর হোসাইন মিলন জানান, ২০১৭ সালে সিটি কর্পোরেশন হকারদের একটি তালিকা তৈরি করেছিলো।সেই হিসাবে কর্পোরেশনের তালিকাভুক্ত হকার রয়েছে দশ হাজার। যারা নিউ মার্কেট, আগ্রাবাদ, ইপিজেড, জিইসি মোড়, বায়েজিদ বোস্তামী, কর্ণফুলী শাহ আমানত সেতু, পতেঙ্গা স্টিল মিল, বন্দরটিলা, দুই নম্বর গেটসহ নগরীর বিভিন্ন এলকায় প্রতিদিন ব্যবসা করে। এর বাইরে দশ হাজারের বেশি ভাসমান হকার নগরীতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। যাদের কোন তালিকা নেই।
নগরীর হকারদের শৃঙ্খলা আনতে ২০১৭ সালের জুলাই মাসে উদ্যোগ নিয়েছিলো চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক)। তখনো বলা হয়েছিলো ১ জুলাই (২০১৭) থেকে চসিকের নির্ধারিত স্থানে পরিচয়পত্রধারী হকাররাই শুধু বিকেল পাঁচটা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত পণ্য সামগ্রী নিয়ে বসার সুযোগ পাবে। ২০১৭ সালের ৩১ মে নগর ভবনের সম্মেলন কক্ষে রেজিস্ট্রার্ড হকার সংগঠকদের নিয়ে এক সভাও করেন তৎকালিন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। ওই বৈঠকে বেশ কিছু সিদ্ধান্তও নেয়া হয়েছিল। তা হলো, চকিসের প্রকৌশল বিভাগ ফুটপাতগুলো টাইলস দিয়ে দৃষ্টিনন্দন করবে এবং আলাদা করে দোকানের পজিশন মার্কিংসহ নম্বারিং করে দেবে। নির্দিষ্ট আইডি নম্বর অনুযায়ী নির্দিষ্টস্থানে ব্যবসা পরিচালনা করবে। ফুটপাতে জনসাধারণের চলাচলের সুযোগ থাকবে।

বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিলো, প্রত্যেক হকারকে দৃষ্টিনন্দন একটি বড় আকারের ছাতা সরবরাহ করা হবে, যাতে তাদের দৃষ্টিনন্দন দেখায়। নির্দিষ্টস্থানের বাইরে জায়গা দখল করে হকাররা কোনো ধরনের ব্যবসা পরিচালনা করার সুযোগ পাবে না। দৃষ্টিনন্দন, পরিচ্ছন্ন ও পরিবেশবান্ধব নগরী গড়ার পরিকল্পনার অংশ হিসাবে এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছিলো বলে তখন বলা হয়েছিলো। হকার নেতাদের সাথে অনুষ্ঠিত ওই সভায় সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ছাড়াও গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এ সভার সিদ্ধান্তগুলো পরবর্তীতে বাস্তবায়ন হয়নি।
পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
  • 14
    Shares
The Post Viewed By: 163 People

সম্পর্কিত পোস্ট